প্রাথমিক ও ইবতেদায়ী শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষা ২০১৭ এর সময়সূচী ও পরীক্ষা সংক্রান্ত বিস্তারিত তথ্য

২০১৭ সালের প্রাথমিক ও ইবতেদায়ী সমাপনী পরীক্ষা ১৯ নভেম্বর থেকে শুরু হয়ে ২৬ নভেম্বর শেষ হবে। এবার ৯ম বারের মত সারাদেশে এই পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

প্রতিদিনের পরীক্ষা সকাল ১১টায় শুরু হয়ে দুপুর দেড়টা পর্যন্ত চলবে । অন্যান্যবারের মতো এবারো বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন পরীক্ষার্থীদের অতিরিক্ত ২০ মিনিট সময় দেওয়া হচ্ছে। পরীক্ষার ফি ও এবারো ৬০ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। আপনাদের সুবিধার্থে পরীক্ষার বিস্তারিত সময়সূচি নিচে দেওয়া হলোঃ

প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষার সময়সূচি – ২০১৭

১৯ নভেম্বর – ইংরেজি

২০ নভেম্বর – বাংলা

২১ নভেম্বর –  বাংলাদেশ ও বিশ্ব পরিচয়

২২ নভেম্বর – প্রাথমিক বিজ্ঞান

২৩ নভেম্বর – ধর্ম ও নৈতিক শিক্ষা

২৬ নভেম্বর – গণিত পরীক্ষা হবে।

 

 ইবতেদায়ী শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষার সময়সূচি – ২০১৭

 ১৯ নভেম্বর – ইংরেজি

২০ নভেম্বর – বাংলা

২১ নভেম্বর – বাংলাদেশ ও বিশ্ব পরিচয়

২২ নভেম্বর – আরবি

২৩ নভেম্বর – কুরআন ও তাজবীদ এবং আকাঈদ ও ফিকহ্

২৬ নভেম্বর – গণিত

[প্রাথমিক ও ইবতেদায়ী শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষার সময়সূচীটি ডাউনলোড]

পরীক্ষার্থীর সংখ্যাঃ পঞ্চম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের প্রাথমিক ও ইবতেদায়ি শিক্ষা সমাপনীতে এ বছর ৩০ লাখ ৯৬ হাজার ৭৫ জন অংশ নেবে। এরমধ্যে প্রাথমিক সমাপনীতে ২৮ লাখ চার হাজার ৫০৯ জন এবং ইবতেদায়িতে দুই লাখ ৯১ হাজার ৫৬৬ জন।

এ বছর দেশের সাত হাজার ২৬৭টি এবং বিদেশের ১২টি কেন্দ্রে ১৯ নভেম্বর পরীক্ষা শুরু হয়ে শেষ হবে ২৬ নভেম্বর। ডিসেম্বরের শেষ সপ্তাহে ফল প্রকাশের সম্ভাব্য সময় নির্ধারণ করা হয়েছে।

পরীক্ষায় গত বছর ৩২ লাখ ৩০ হাজার ২৮৮ জন অংশ নিয়েছিলো। সে হিসেবে এবার পরীক্ষার্থী কমেছে এক লাখ ৩৪ হাজার ২১৩ জন।

২০১৫ সালে পঞ্চমের সমাপনীতে ৩২ লাখ ৫৪ হাজার ৫১৪ জন পরীক্ষা দিয়েছিল। ২০১৬ সালে পরীক্ষায় বসে ৩২ লাখ ৩০ হাজার ২৮৮ জন, যা আগের ২০১৫ সালের থেকে ২৪ হাজার ২২৬ জন কম। ২০১৭ সালের মাধ্যমে পঞ্চমের সমাপনী পরীক্ষায় টানা দুই বছর পরীক্ষার্থী কমলো।

এবার ছাত্রদের চেয়ে এক লাখ ৮৯ হাজার ৮০১ জন বেশি ছাত্রী সমাপনীতে অংশ নেবে। প্রাথমিক সমাপনীতে দুই হাজার ৯৫৩ জন এবং ইবতেদায়িতে ৩৭৯ জন বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন পরীক্ষার্থী অংশ নেবে। তারা অতিরিক্ত ২০ মিনিট সময় পাবে।
প্রাথমিক ও এবতেদায়ী শিক্ষা সমাপনী বৃত্তিঃ সমাপনী পরীক্ষার ফলের ভিত্তিতে শিক্ষার্থীদের বৃত্তি প্রদান করে থাকে সরকার। প্রাথমিক সমাপনীতে ৩৩ হাজার ট্যালেন্টপুল ও ৪৯ হাজার সাধারণ কোটাসহ মোট ৮২ হাজার ৫০০ জনকে বৃত্তি প্রদান করা হয়। ট্যালেন্টপুল ও সাধারণ কোটায় বৃত্তিপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীরা যথাক্রমে ৩০০ ও ২২৫ টাকা হারে বৃত্তি পায়। প্রকাশ হওয়ার পর বৃত্তির ফলাফল পাবেন এই লিঙ্কে

ফলাফলঃ প্রতিবারের মত এবারো ডিসেম্বরের শেষ সপ্তাহে প্রাথমিক ও ইবতেদায়ী শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষার ফল প্রকাশের সম্ভাব্য সময় নির্ধারণ করা হয়েছে।

পোষ্টটি লিখেছেন: আল মামুন মুন্না

আল মামুন মুন্না এই ব্লগে 549 টি পোষ্ট লিখেছেন .

আল মামুন মুন্না, বাংলাদেশের প্রথম শিক্ষা বিষয়ক বাংলা কমিউনিটি ব্লগ সাইট “লেখাপড়া বিডি”র প্রতিষ্ঠাতা ও পরিচালক হিসেবে নিয়োজিত আছেন। সম্প্রতি জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীন যশোর সরকারী এম. এম. কলেজ থেকে ফিন্যান্স এন্ড ব্যাংকিং বিষয় নিয়ে বি.বি.এ অনার্স সম্পন্ন করে আজম খান সরকারী কমার্স কলেজে এমবিএ করছেন।


Ads by Wizards

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।