২০১৮ সালের জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষার সময়সূচী ও বিস্তারিত তথ্য

অষ্টম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের ২০১৮ সালের জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট (জেএসসি) ও জুনিয়র দাখিল সার্টিফিকেট (জেডিসি) পরীক্ষা ১ নভেম্বর থেকে শুরু হবে। এ বছর জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট (জেএসসি) ও জুনিয়র দাখিল সার্টিফিকেট (জেডিসি) পরীক্ষায় ২৬ লাখ ৭০ হাজার ৩৩৩ জন শিক্ষার্থী অংশে নেবে। দেশের ২৯ হাজার ৬৭৭টি প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা ১ থেকে ১৫ নভেম্বর পর্যন্ত দুই হাজার ৯০৩টি কেন্দ্রে পরীক্ষায় অংশ নেবে।

নির্ধারিত দিনগুলোতে ১০টা ও বিকাল ২টা থেকে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। এবার ৯ম বারের মতো এই পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। পরীক্ষা শুরুর ৩০ মিনিট আগে পরীক্ষার্থীদের কক্ষে উপস্থিত হওয়া এবার বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। তবে ব্যতিক্রম কিছু থাকলে কর্তৃপক্ষ বিবেচনায় নেবে। পরীক্ষার বিস্তারিত সময়সূচি নিচে তুলে দেওয়া হলোঃ

৪ নভেম্বরের জেএসসি পরীক্ষা স্থগিতের বিজ্ঞপ্তি

৪ নভেম্বরের জেডিসি পরীক্ষা স্থগিতের বিজ্ঞপ্তি

জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট (জেএসসি) পরীক্ষাসময়সূচি ২০১৮

 

জুনিয়র দাখিল সার্টিফিকেট (জেডিসি) পরীক্ষাসময়সূচি ২০১৮

 

জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষার সময়সূচি ডাউনলোড করুন]

এবার সব পরীক্ষার্থীকে নির্ধারিত সময়ের ৩০ মিনিট আগে পরীক্ষা কেন্দ্র প্রবেশ করতে হবে। বাংলা দ্বিতীয় পত্র, ইংরেজি প্রথম ও দ্বিতীয় পত্র ছাড়া অন্য বিষয়ের পরীক্ষা সৃজনশীল প্রশ্নে হবে। পরীক্ষা চলাকালে পরীক্ষা কেন্দ্রের ২০০ মিটারের মধ্যে শিক্ষক, ছাত্র, কর্মচারীরা মোবাইল ফোন ব্যবহার করতে পারবেন না।

পরীক্ষায় শ্রবণ প্রতিবন্ধীসহ অন্যান্য প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীরা অতিরিক্ত ২০ মিনিট বেশি সময় পাবেন। দৃষ্টি প্রতিবন্ধী, সেরিব্রাল পলিসিজনিত প্রতিবন্ধী এবং যাদের হাত নেই তারা ব্যবহার করতে পারবেন শ্রুতি লেখক।

আর অটিস্টিক, ডাউন সিনড্রোম পরীক্ষার্থীরা পাবেন ৩০ মিনিট অতিরিক্ত সময়, চাইলে তাদের সঙ্গে শিক্ষক/অভিভাবক/সাহায্যকারী আসতে পারবে। বহু নির্বাচনী ও সৃজনশীল প্রশ্নপত্রে দু’টি বিভাগ থাকলেও দু’টি অংশ নিয়ে একত্রে ৩৩ পেলেই পাস বলে গণ্য হবে। অর্থাৎ এসএসসি’র মত দু’টি অংশে আলাদা করে পাসের প্রয়োজন হবে না।

পরীক্ষার হলে শিক্ষার্থীরা সাধারণ সাইন্টিফিক ক্যালকুলেটর ব্যবহার করতে পারবে। তবে মোবাইল ফোন বা কোনো ধরনের ইলেক্ট্রনিক্স ডিভাইস হলে আনা যাবে না। কেন্দ্র সচিব ছাড়া অন্য কেউ পরীক্ষা কেন্দ্রে মোবাইল ফোন ব্যবহার করতে পারবেন না।

২০১০ সাল থেকে জেএসসি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হচ্ছে। প্রাথমিক শিক্ষা অষ্টম শ্রেণি পর্যন্ত উন্নীত করার পরিপ্রেক্ষিতে গতবার থেকে জেএসসি-জেডিসি পরীক্ষা প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের তত্ত্বাবধানে অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু ওই মন্ত্রণালয় দায়িত্ব না নেওয়ায় এই পরীক্ষা শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অধীনে অনুষ্ঠিত হচ্ছ।

এবার জেএসসি-জেডিসির ২৬ লাখ ৭০ হাজার ৩৩৩ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে ১৪ লাখ ৪৬ হাজার ৬০১ জন ছাত্রী এবং ১২ লাখ ২৩ হাজার ৭৩২ জন ছাত্র। ছাত্রদের থেকে এবার ২ লাখ ২২ হাজার ৮৬৯ জন ছাত্রী বেশি।

আট বোর্ডের অধীনে এবার জেএসসিতে ২২ লাখ ৬৭ হাজার ৩৪৩ জন এবং মাদ্রাসা বোর্ডের অধীনে জেডিসিতে ৪ লাখ ২ হাজার ৯৯০ জন পরীক্ষা দেবে।

গত বছর এ পরীক্ষায় ২৪ লাখ ৬৮ হাজার ৮২০ জন অংশ নিয়েছিল জানিয়ে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, এবার এ পরীক্ষায় পরীক্ষার্থী বেড়েছে ২ লাখ ১ হাজার ৫১৩ জন।

এবার জেএসসিতে ২ লাখ ৪৬ হাজার ৩৫৩ জন এবং জেডিসিতে ৩৪ হাজার ২৫১ জন অনিয়মিত পরীক্ষার্থী পরীক্ষায় বসবে।

এক থেকে তিন বিষয়ে যারা অকৃতকার্য হয়েছিল তারাও এবার ওইসব বিষয়ে পরীক্ষা দেবে, এ সংখ্যা জেএসসিতে ২ লাখ ৩০ হাজার ৭৮৫ জন এবং জেডিসিতে ৩০ হাজার ৫৪৮ জন। বিদেশের নয়টি কেন্দ্রে এবার ৫৭৮ জন জেএসসি পরীক্ষায় অংশ নেবে।

গতবছর জেএসসি-জেডিসি পরীক্ষা ০১ নভেম্বর থেকে শুরু হয়ে ১৮ নভেম্বর শেষ হয়। গত ৩০ ডিসেম্বর দুপুরে ২০১৭ সালের জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট ও জুনিয়র দাখিল সার্টিফিকেট (জেডিসি) পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশ করা। শিক্ষা বোর্ড এর ওয়েবসাইটের পাশাপাশি লেখাপড়া বিডিতেও উক্ত পরীক্ষার সূচি প্রকাশ করা হয়।

আগামী ১৫ নভেম্বর পর্যন্ত পরীক্ষা শেষে ডিসেম্বরের শেষ সপ্তাহে প্রতিবারের মত এবারো ২০১৮ সালের জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষার ফলাফল ঘোষণা করা হবে। প্রকাশ হওয়ার পর উক্ত ফলাফল সকল শিক্ষা বোর্ড এর নিজ নিজ ওয়েবসাইটের পাশাপাশি লেখাপড়া বিডি থেকেও জানা যাবে।

পোষ্টটি লিখেছেন: আল মামুন মুন্না

আল মামুন মুন্না এই ব্লগে 589 টি পোষ্ট লিখেছেন .

আল মামুন মুন্না, বাংলাদেশের প্রথম শিক্ষা বিষয়ক বাংলা কমিউনিটি ব্লগ সাইট "লেখাপড়া বিডি"র প্রতিষ্ঠাতা ও পরিচালক হিসেবে নিয়োজিত আছেন। সম্প্রতি জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীন যশোর সরকারী এম. এম. কলেজ থেকে ফিন্যান্স এন্ড ব্যাংকিং বিষয় নিয়ে বি.বি.এ অনার্স সম্পন্ন করে আজম খান সরকারী কমার্স কলেজে এমবিএ করছেন।

10 comments

  1. আর মাত্র তিনটা মাস।।

  2. ভাল করে পড়তে হবে।।

  3. very nice….

  4. খুব ভালো

  5. কিছু জে ডি সি সাজেশন লাগবে

  6. এহসানুল হক সৈ্কত

    এইবার তো ৪র্থ বিষয় নাই, ফলে জিপিএ-৫ প্রাপ্তদের সংখ্যা কমে যাবে। এই বিষয়ে কি সরকার অন্য কোন উদ্দ্যোগ নিয়েছে???

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *