২০১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষে ডুয়েটে বিএসসি ইঞ্জিনিয়ারিং ও ব্যাচেলর অব আর্কিটেকচার প্রোগ্রামে ভর্তি পরীক্ষার সংশোধিত সময়সূচী প্রকাশ

রাজধানী ঢাকা হইতে প্রায় চল্লিশ কিলোমিটার উত্তরে গাজীপুর জেলার ভাওয়ালের গড় এলাকায় ঢাকা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, গাজীপুর অবস্থিত৷ ১৯৮০ সালে ঢাকার তেজগাঁও শিল্প এলাকায় “কলেজ অব ইঞ্জিনিয়ারিং” নামে এর অগ্রযাত্রা শুরু হইয়াছিলো। পরবর্তীতে নাম পরিবর্তিত হইয়া ইহা “ঢাকা ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ” নামে আত্মপ্রকাশ করে৷duet

প্রকৌশল শিক্ষার মানোন্নয়ন ও গবেষণার সুযোগ বৃদ্ধির লক্ষ্যে বিগত ১ জুলাই ১৯৮৬ হইতে ঢাকা ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজকে ডিগ্রী প্রদানকারী স্বায়ত্বশাসিত প্রতিষ্ঠান “বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজি” (বিআইটি), ঢাকা তে রুপান্তরিত করা হয়৷ প্রকৌশল ও প্রযুক্তির বিভিনড়ব ক্ষেত্রে অগ্রসরমান বিশ্বের সাথে সঙ্গতি রক্ষা ও সমতা অর্জন এবং জাতীয় পর্যায়ে উচ্চ শিক্ষা ও গবেষণা, আধুনিক জ্ঞানচর্চা ও পঠন-পাঠনের সুযোগ সৃষ্টি ও সম্প্রসারণের নিমিত্তে ১ সেপ্টেম্বর, ২০০৩ সনের ৩৪ নং আইন বলে “বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজি, ঢাকা” উন্নীত ও রুপান্তরের মাধ্যমে “ঢাকা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, গাজীপুর” নামে বিশ্ববিদ্যালয় হিসাবে যাত্রা শুরু করে৷ বর্তমানে ঢাকা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, গাজীপুর-এ স্নাতক পর্যায়ে বিএসসি ইঞ্জিনিয়ারিং ও ব্যাচেলর অব আর্কিটেকচার এবং স্নাতকোত্তর পর্যায়ে এম ইঞ্জিনিয়ারিং/ এম এসসি ইঞ্জিনিয়ারিং/ এম ফিল ও পিএইচডি ডিগ্রি প্রদান করা হইতেছে৷ ঢাকা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, গাজীপুর-এ কেবলমাত্র ডিপ্লোমা ইন-ইঞ্জিনিয়ারিং/আর্কিটেকচার/এগ্রিকালচার-এ পাসকৃত ছাত্র/ছাত্রীদের ভর্তি পরীক্ষার মাধ্যমে ১ম বর্ষ বি এসসি ইঞ্জিনিয়ারিং ও বি আর্ক প্রোগ্রামে ভর্তি করা হয়৷

ডুয়েটে ভর্তির বিস্তারিত গাইডলাইন ও সিলেবাস ডাউনলোড করুন

ভর্তির যোগ্যতা ও অন্যান্য তথ্যঃ  ঢাকা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, গাজীপুর-এ বিভিন্ন অনুষদের বিভাগ সমূহে ২০১৬-১৭ শিক্ষা বর্ষের ১ম বর্ষ বি এসসি ইঞ্জিনিয়ারিং ও ব্যাচেলর অব আর্কিটেকচার (বি আর্ক) প্রোগ্রামে ভর্তির জন্য ভর্তি পরীক্ষার মাধ্যমে ছাত্র/ছাত্রী বাছাই করা হইবে৷ এই নিমিত্তে উপযুক্ত প্রার্থীদের নিকট হইতে ডাচ বাংলা ব্যাংক লিমিটেড মোবাইল ব্যাংকিং এবং অনলাইন এর মাধ্যমে দরখাস্ত আহবান করা যাইতেছে৷

ভর্তি বিষয়ক তথ্যাবলী বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি বিষয়ক www.duetbd.com/admission2017 এর পাশাপাশি লেখাপড়া বিডি’তেও পাওয়া যাচ্ছে।

আমদের পেইজে লাইক দিন গ্রুপে যোগ দিন

ভর্তি ফিঃ ভর্তি পরীক্ষার ফি বাবদ টাকা ৯৮০/- (নয়শত আশি) টাকা ডাচ বাংলা ব্যাংক লিমিটেড মোবাইল ব্যাংকিং এর মাধ্যমে প্রদান করিতে হইবে।

আবেদনপত্র গ্রহন, প্রবেশপত্র ডাউনলোড ও ভর্তি পরীক্ষা সংক্রান্ত সময়সূচীঃ

আবেদন শুরুঃ ০১/০৪/২০১৭ ইং সকাল ১০.০০ ঘটিকা
আবেদন শেষঃ ০৩/০৫/২০১৭ ইং বিকাল ৪.০০ ঘটিকা
প্রবেশপত্র ডাউনলোডঃ ০২/০৪/২০১৭ ইং হইতে ০৪/০৫/২০১৭ ইং পর্যন্ত শেষ তারিখে বিকাল ৪.০০ ঘটিকা পর্যন্ত

ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণের যোগ্য প্রার্থীদের তালিকা ঘোষণাঃ ০৯/০৫/২০১৭ ইং বিকাল ৪.০০ ঘটিকা

ভর্তি পরীক্ষার সংশোধিত তারিখ ও সময়সূচীঃ

সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং, ইন্ডাষ্ট্রিয়াল এন্ড প্রোডাকশন ইঞ্জিনিয়ারিং ও ফুড ইঞ্জিনিয়ারিং

২১/০৫/২০১৭ ইং  (সকাল) ০৯:৩০-১১:৩০ ঘটিকা

মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং, কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং

২১/০৫/২০১৭ ইং (দুপুর) ১২:০০-০২:৩০ ঘটিকা

ইলেকট্রিক্যাল এন্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং , টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং ও আর্কিটেকচার

২১/০৫/২০১৭ ইং (বিকাল) ০৩:৩০-০৫:৩০ ঘটিকা

এ বছর ৮টি বিভাগে ৬৫৪টি (কোটাসহ) আসনের বিপরীতে মোট ৯ হাজার ৫০৭ জন শিক্ষার্থী আবেদন করেন।
অর্থাৎ গড়ে একটি আসনের জন্য লড়ছেন ১৫ জন পরীক্ষার্থী।

ভর্তির জন্য নির্বাচিত প্রার্থীদের তালিকা ঘোষণার সম্ভাব্য তারিখঃ ২৮/০৫/২০১৭ ইং রোজ রবিবার

ডুয়েটে বিএসসি ইঞ্জিনিয়ারিং ও ব্যাচেলর অব আর্কিটেকচার প্রোগ্রামে ভর্তির ফলাফল এই লিংকে পাওয়া যাবে

প্রার্থীর সাধারন যোগ্যতাঃ
ক) প্রার্থীকে বাংলাদেশের নাগরিক হইতে হইবে৷
খ) প্রার্থীকে বাংলাদেশের যে কোন মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড/কারিগরি শিক্ষা বোর্ড/মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ড হইতে মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট/দাখিল বা সমমানের পরীক্ষায় কমপক্ষে ৫০% নম্বর অথবা ৫ এর স্কেলে কমপক্ষে GPA ৩.০০ (ঐচ্ছিক বিষয় সহ) পাইয়া উত্তীর্ণ হইতে হইবে৷
গ) প্রার্থীকে বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের ডিপেস্নামা ইন ইঞ্জিনিয়ারিং/ আর্কিটেকচার এ গড়ে কমপক্ষে ৬০% নম্বর অথবা ৪ এর স্কেলে কমপক্ষে CGPA ৩.০০ পাইয়া উত্তীর্ণ হইতে হইবে৷
ঘ) ডিপ্লোমা ইন ইঞ্জিনিয়ারিং/ আর্কিটেকচার পরীক্ষায় ২০১৩ ও তত্‍পরবর্তী সনে উত্তীর্ণ ছাত্র-ছাত্রীরাই ভর্তি পরীক্ষায় অংশ গ্রহণ করিতে পারিবে৷ তবে সরকারী, আধা সরকারী, স্বায়ত্বশাসিত, সেক্টর কর্পোরেশন-এ শিক্ষকতা সহ অন্যান্য পদে কর্মরত প্রার্থীদের ক্ষেত্রে এই নিয়ম প্রযোজ্য হইবে না৷
ঙ) এই পোষ্টের শেষের দিকে উল্লেখিত বিভাগ সমূহে ভর্তির জন্য আবেদন করা যাইবে৷
চ) কোন প্রার্থী একাধিক বিভাগে ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহনের ক্ষেত্রে পৃথক পৃথক ভাবে আবেদন করিতে হইবে৷ তবে আর্কিটেকচার টেকনোলজির প্রার্থীগণ সিভিল ও আর্কিটেকচার বিভাগের যে কোন একটিতে এবং ফুড/কেমিক্যাল/ মেকানিক্যাল/পাওয়ার/রেফ্রিজারেশন এয়ারকন্ডিশনিং/ইন্সট্রুমেনটেশন এন্ড প্রসেস কন্ট্রোল টেকনোলজির প্রার্থীগণ ইন্ডাস্ট্রিয়াল এন্ড প্রোডাকশন ইঞ্জিনিয়ারিং ও ফুড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের যে কোন একটিতে আবেদন করিতে পারিবে।
ছ) চাকুরীরত প্রার্থীদের অবশ্যই যথাযথ কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে আবেদন করিতে হইবে৷

আবেদন এর নিয়মাবলিঃ
অনলাইনে আবেদনপত্র পূরণ এবং পরীক্ষার ফি জমাদান শুরু ও শেষ হওয়ার তারিখ ও সময়:
ক) ০১.০৪.২০১৭ ইং সকাল ১০:০০ টা হইতে অনলাইনে আবেদনপত্র দাখিল এবং পরীক্ষার ফি জমাদান শুরু হইবে৷
খ) ০২.০৫.২০১৭ ইং তারিখের মধ্যে
Online Application সম্পন্ন করিতে হইবে এবং ০৩.০৫.২০১৭ ইং তারিখের (অফিস চলাকালীন সময়) মধ্যে পরীক্ষার ফি জমা দিতে হইবে৷

 অনলাইনে আবেদন ফরম পূরণের নিয়মাবলিঃ

অনলাইনে আবেদন ফরম পূরণ সংক্রান্ত বিস্তারিত নির্দেশনা পাবেন এই লিংকে

HELP LINE:
আবেদন করিতে কোন সমস্যার সম্মুখীন হইলে 01764484633 ও 01633637573 নম্বরে অফিস চলাকালিন সময় ফোন করিয়া প্রয়োজনীয় সহযোগিতা পাওয়া যাইবে৷

প্রয়োজনীয় কাগজপত্রাদি (ভর্তি পরীক্ষার নির্বাচিত প্রার্থীকে ভর্তির সময় আনিতে হইবে):
১৷ আপলোডকৃত ছবির পাসপোর্ট সাইজের দুই কপি সত্যায়িত ছবি ৷
২৷ মাধ্যমিক পরীক্ষার সার্টিফিকেট৷
৩৷ মাধ্যমিক পরীক্ষার নম্বরপত্র/গ্রেড সীট৷
৪৷ ডিপ্লোমা ইন ইঞ্জিনিয়ারিং / আর্কিটেকচার পার্ট-২/৬ষ্ঠ/৮ম পর্ব পরীক্ষার নম্বরপত্র/গ্রেড সীট৷
৫৷ ডিপেস্নামা ইন ইঞ্জিনিয়ারিং/ আর্কিটেকচার পরীক্ষার সার্টিফিকেট৷
৬৷ সংশ্লিষ্ট সর্বশেষ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রধান হইতে প্রাপ্ত প্রশংসাপত্র৷
৭৷ চাকুরীরত প্রার্থীর নিয়োগকারী কর্তৃপক্ষের অনুমতিপত্র (প্রযোজ্য ক্ষেত্রে)৷
৮৷ (ক) জেলা প্রশাসক/ সংশ্লিষ্ট উপজাতীয় গোত্রের প্রধান/ রাজা/ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান/ সিটি কর্পোরেশন/ পৌরসভার কাউন্সিলর কর্তৃক ইস্যুকৃত উপজাতি সার্টিফিকেট (প্রযোজ্য ক্ষেত্রে)৷
(খ) মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রনালয় কর্তৃক ইস্যুকৃত মুক্তিযোদ্ধা সার্টিফিকেট (প্রযোজ্য ক্ষেত্রে)৷ মুক্তিযোদ্ধার নাতি/নাতনি প্রমানের সার্টিফিকেট হিসেবে প্রার্থীর জন্ম নিবন্ধন সনদপত্র/জাতীয় পরিচয় পত্র, পিতা/মাতার জাতীয় পরিচয় পত্র, থানা/উপজেলা/জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ড কাউন্সিল কর্তৃক ইস্যুকৃত প্রত্যয়ন পত্র, ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান/সিটি কর্পোরেশন/পৌরসভার কাউন্সিলর কর্তৃক ইস্যুকৃত প্রত্যয়ন পত্র (প্রযোজ্য ক্ষেত্রে)।
৯৷ সিভিল ইঞ্জিনিয়িারিং বিভাগে আবেদন করিবার জন্য নির্ধারিত ঐচ্ছিক বিষয়সমূহের নম্বর পত্র/গ্রেড সীট প্রদর্শন করিতে হইবে।
ক) আর্কিটেকচার-এর জন্য ঐচ্ছিক বিষয়সমূহ: Geotechnical Engineering, Environmental Engineering-I, Theory & Design of Structure-II এবং Transportation Engineering-I।
খ) এনভায়রনমেন্টাল এর জন্য ঐচ্ছিক বিষয়সমূহ: Civil Engineering Drawing-I, Construction Process-I, Transportation Engineering –I |
১০৷ উপরোক্ত সকল Document এর মূল কপির সহিত এক সেট সত্যায়িত ফটোকপি সঙ্গে আনিতে হইবে৷

আবেদনপত্রে প্রদত্ত তথ্যাদি ভুল প্রমাণিত হইলে তাহা সরাসরি বাতিল হইয়া যাইবে৷ এই ধরনের প্রার্থী ভুলবশতঃ ভর্তি হইলে এবং ভবিষ্যতে উহা প্রকাশ পাইলে তাহার ভর্তি বাতিল হইয়া যাইবে৷

ভর্তি পরীক্ষাঃ
ক) ঢাকা প্রকৌশল ও প্রযু্িক্ত বিশ্ববিদ্যালয়, গাজীপুর-এ নিম্নে বর্ণিত বিভাগ সমূহে ছাত্র/ছাত্রীদেরকে প্রথম বর্ষ বি এসসি ইঞ্জিনিয়ারিং/বি আর্ক প্রোগ্রামে ভর্তি করা হইবে৷

বিভাগঃ সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং
ভর্তির শিক্ষাগত যোগ্যতাঃ সিভিল, সার্ভেয়িং, আর্কিটেকচার (নির্ধারিত ঐচিছক বিষয়সমূহে পাশসহ), এনভায়রনমেন্টাল (নির্ধারিত ঐচিছক বিষয়সমূহে পাশসহ), সিভিল (উড স্পেশালাইজেশন) ও কনস্ট্রাকশন টেকনোলজিতে ডিপ্লোমা।

বিভাগঃ ইলেকট্রিক্যাল এন্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং
ভর্তির শিক্ষাগত যোগ্যতাঃ ইলেকট্রিক্যাল, ইলেকট্রনিক্ম, ইনস্ট্রুমেনটেশন এন্ড প্রসেস কন্ট্রোল, টেলিকমিউনিকেশন ও ইলেকট্রো-মেডিকেল টেকনোলজিতে ডিপ্লোমা।

বিভাগঃ মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং
ভর্তির শিক্ষাগত যোগ্যতাঃ  মেকানিক্যাল, পাওয়ার, কেমিক্যাল, রেফ্রিজারেশন এন্ড এয়ারকন্ডিশনিং, অটোমোবাইল, ফুড, মেকাট্রনিক্স, মেরিন ও মাইনিং এ্যান্ড মাইন সার্ভে টেকনোলজিতে ডিপ্লোমা।

বিভাগঃ কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং
ভর্তির শিক্ষাগত যোগ্যতাঃ কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড টেকনোলজি, কম্পিউটার, ইলেকট্রনিক্ম ও ডাটা টেলিকমিউনিকেশন এন্ড নেটওয়ার্কিং, গ্রাফিক্স ডিজাইন ও প্রিন্টিং টেকনোলজিতে ডিপ্লোমা।

বিভাগঃ টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং
ভর্তির শিক্ষাগত যোগ্যতাঃ টেক্সটাইল, জুট ও গার্মেন্টস এন্ড প্যাটার্ন মেকিং টেকনোলজিতে ডিপ্লোমা।

বিভাগঃ আর্কিটেকচার
ভর্তির শিক্ষাগত যোগ্যতাঃ আর্কিটেকচার ও আর্কিটেকচার এন্ড ইনটেরিয়র ডিজাইন টেকনোলজিতে ডিপ্লোমা।

বিভাগঃ ইন্ডাষ্ট্রিয়াল এন্ড প্রোডাকশন ইঞ্জিনিয়ারিং
ভর্তির শিক্ষাগত যোগ্যতাঃ মেকানিক্যাল, পাওয়ার, অটোমোবাইল, মেরিন, মেকাট্রনিক্স, শিপ বিল্ডিং, ফুড, রেফ্রিজারেশন এন্ড এয়ারকন্ডিশনিং, ইন্সট্রুমেনটেশন এন্ড প্রসেস কন্ট্রোল, কেমিক্যাল ও মাইনিং এ্যান্ড মাইন সার্ভে টেকনোলজিতে ডিপ্লোমা।

বিভাগঃ ফুড ইঞ্জিনিয়ারিং

ফুড, কেমিক্যাল, মেকানিক্যাল, পাওয়ার, রেফ্রিজারেশন এন্ড এয়ারকন্ডিশনিং, ইন্সট্রুমেনটেশন এন্ড প্রসেস কন্ট্রোল টেকনোলজিতে ডিপ্লোমা ও ডিপ্লোমা ইন এগ্রিকালচার।

খ) ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণের যোগ্য প্রার্থীদের তালিকা নির্দিষ্ট তারিখে আবেদনের ক্রমিক নম্বর অনুযায়ী বিশ্ববিদ্যালয়ের নোটিশ বোর্ড এবং ওয়েবসাইটে দেওয়া হইবে৷
গ) প্রবেশপত্র সম্বলিত উত্তরপত্র বিশ্ববিদ্যালয় হইতে সরবরাহ করা হইবে৷
ঘ) পরীক্ষার জন্য প্রয়োজনীয় সামগ্রী প্রার্থীকে সংগে আনিতে হইবে৷ পরীক্ষায় ক্যালকুলেটর ব্যবহার করা তবে প্রোগ্রামেবল ক্যালকুলেটরসহ কোন স্মার্ট ডিভাইস সঙ্গে আনা যাইবে না।
ঙ) পরীক্ষার হলে মোবাইল ফোন আনা যাইবে না৷

ভর্তি পরীক্ষার বিষয়সমুহ ও নম্বর বিভাজনঃ
নির্ধারিত সিলেবাসের উপর ভিত্তি করিয়া লিখিত ভর্তি পরীক্ষা গ্রহণ করা হইবে৷ সকল বিষয়ে মোট নম্বরের ২০%-২৫% MCQ থাকিবে৷
বিষয় সমূহের নম্বর বিভাজনঃ

ভর্তির আসন সংখ্যা ও প্রার্থী বাছাইয়ের নিয়মঃ

ক) ভর্তি পরীক্ষায় পাশ নম্বর সর্বনিম্ন শতকরা চল্লিশ (৪০%)৷ তবে ১ম ও ২য় পত্রে পৃথক পৃথকভাবে শতকরা পঁয়ত্রিশ (৩৫%) নম্বরের কম পাইলে ভর্তির অযোগ্য বলিয়া বিবেচিত হইবে৷ কেবলমাত্র ভর্তি পরীক্ষায় কৃতকার্য প্রার্থীদের মধ্য হইতে প্রাপ্ত মোট নম্বরের মেধা ভিত্তিতে আসন পূরণ করা হইবে৷

খ) উপরোক্ত শর্ত সাপেক্ষে সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং, ইলেকট্রিক্যাল এন্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং, মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং ও কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের প্রতিটিতে ১২০ (একশত বিশ), টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগে ৬০ (ষাট) এবং আর্কিটেকচার ও ইন্ডাষ্ট্রিয়াল এন্ড প্রোডাকশন ইঞ্জিনিয়ারিং ও ফুড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের প্রতিটিতে ৩০ (ত্রিশ) টি নির্ধারিত আসনে ভর্তির জন্য প্রার্থী বাছাই করা হইবে৷

গ) একাধিক প্রার্থী ভর্তি পরীক্ষায় একই নম্বর পাইলে সেই ক্ষেত্রে ভর্তি পরীক্ষায় ১ম পত্রে প্রাপ্ত নম্বরের ভিত্তিতে প্রার্থীদের মেধাস্থান নির্ধারণ করা হইবে৷ প্রথম পত্রের প্রাপ্ত নম্বরও সমান হইলে যথাক্রমে গণিত, পদার্থ বিজ্ঞান ও রসায়নে প্রাপ্ত নম্বরের ভিত্তিতে মেধাস্থান নির্ধারণ করা হইবে৷

ঘ) মুক্তিযোদ্ধা কোটায় প্রথমে ভর্তি পরীক্ষায় পাশকৃত প্রার্থীদের মধ্য হইতে মুক্তিযোদ্ধার সন্তানদের অগ্রাধিকারভিত্তিতে বাছাই করা হইবে, মুক্তিযোদ্ধার সন্তান পাওয়া না গেলে মুক্তিযোদ্ধার নাতি-নাতনিদেরকে বাছাই করা হইবে।

আসন সংরক্ষণঃ
ক) উপজাতিদের জন্য সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং, ইলেকট্রিক্যাল এন্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং, মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং ও কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের প্রতিটিতে নির্ধারিত ১২০টি আসনের অতিরিক্ত ০২ (দুই) টি করিয়া; টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগে নির্ধারিত ৬০ টি আসনের অতিরিক্ত ০১ (এক) টি করিয়া, আর্কিটেকচার, ইন্ডাস্ট্রিয়াল এন্ড প্রোডাকশন ইঞ্জিনিয়ারিং ও ফুড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগে নির্ধারিত ৩০ টি আসনের অতিরিক্ত ০১ (এক) টি করিয়া আসন সংরক্ষিত থাকিবে।
খ) Freedom Fighter সন্তান/নাতি-নাতনিদের জন্য সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং, ইলেকট্রিক্যাল এন্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং, মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগে নির্ধারিত আসনের অতিরিক্ত প্রতি বিভাগে ০২ (দুই) টি, কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং, টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং এবং আর্কিটেকচার ও ইন্ডাষ্ট্রিয়াল এন্ড প্রোডাকশন ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগে নির্ধারিত আসনের অতিরিক্ত প্রতি বিভাগে ০১ (এক) টি করিয়া আসন সংরক্ষিত থাকিবে৷

ভর্তির নিয়মাবলিঃ
ক) ভর্তির জন্য বাছাইকৃত ছাত্র/ছাত্রীদের সংশিস্নষ্ট বোর্ডের মূল মার্কশীট/গ্রেড শীট ও অন্যান্য মূল সনদ পত্রের সত্যতা যাচাইয়ের জন্য নির্ধারিত তারিখে সংশিস্নষ্ট কমিটির নিকট উক্ত কাগজপত্রাদি দাখিল করিতে হইবে৷
খ) কাগজপত্রের সত্যতা যাচাইয়ের পর ছাত্র/ছাত্রীদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা করা হইবে৷
গ) স্বাস্থ্য পরীক্ষায় উপযুক্ত প্রমানিত হইলে, নির্ধারিত সময়ের মধ্যে প্রয়োজনীয় ফিস জমা দিয়া ভর্তি কমিটির অনুমোদন সাপেক্ষে ভর্তি হওয়া যাইবে৷
ঘ) চাকুরীরত প্রার্থীদেরকে অত্র বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির পূর্বেই তাহাদের নিয়োগকারী কর্তৃপক্ষের নিকট হইতে ডেপুটেশন/ছুটির আদেশ অবশ্যই দাখিল করিতে হইবে৷

স্বাস্থ্য পরীক্ষাঃ
অত্র বিশ্ববিদ্যালয়ের মেডিকেল সেন্টার ভর্তি কমিটি কর্তৃক নির্বাচিত সকল প্রার্থীর স্বাস্থ্য পরীক্ষা করা হইবে৷ স্বাস্থ্য পরীক্ষার সময় প্রত্যেক প্রার্থীকে নির্ধারিত ফি পরিশোধ করিতে হইবে৷ স্বাস্থ্য পরীক্ষায় যদি কাহারো হৃদরোগ, মূক/বধির, দৃষ্টি কিংবা শ্রবণশক্তির ত্রুটি, অন্যান্য সংক্রমণ রোগ অথবা কোন প্রকারের শারীরিক বা মানসিক অক্ষমতা ধরা পড়ে যাহার ফলে অত্র বিশ্ববিদ্যালয়ে অথবা প্রকৌশল পেশায় সাধারণ কার্যনির্বাহে প্রার্থীর পক্ষে অসুবিধা হইতে পারে বলে ভর্তি কমিটি মনে করে, তাহলে তাহাকে ভর্তির অনুপযুক্ত বলিয়া গণ্য করা হইবে৷ তবে দৃষ্টি শক্তির ত্রুটি ৭ (সাত) দিনের মধ্যে পুনঃ পরীক্ষা করা যাইতে পারে৷ অন্যান্য অস্থায়ী অনুপযুক্ততা যথা হাইড্রোসিল, হারনিয়া ইত্যাদি এক মাসের মধ্যে পুনঃ পরীক্ষার জন্য বিবেচিত হইতে পারে৷

আবাসিক হলে সীট বন্টনঃ
অত্র বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রদের জন্য পাঁচটি ও ছাত্রীদের জন্য একটি আবাসিক হল রহিয়াছে৷ হলসমূহে সীট সংখ্যা অপ্রতুল বিধায় নতুন ভর্তিকৃত কোন ছাত্র/ছাত্রীকে হলে সীট বরাদ্দ করা সম্ভব নাও হইতে পারে৷ যাহারা আবাসিক ছাত্র/ছাত্রী হিসাবে হলে থাকিবে না বা হলে সীট পাইবে না তাহাদেরকে বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র/ছাত্রী হলের সাথে অবশ্যই সংযুক্ত থাকিতে হইবে৷

বিশেষ দ্রষ্টব্যঃ
ক) ভর্তি সংক্রান্ত বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের কোন শিক্ষক, কর্মকর্তা বা অন্য কোন ব্যক্তিকে প্রভাবিত করার প্রচেষ্টা করিলে প্রার্থী অযোগ্য বলিয়া বিবেচিত হইবে৷
খ) চাকুরীরত অবস্থায় সংশ্লিষ্ট নিয়োগকর্তার অনুমতি ব্যতিরেকে কোন প্রার্থী অত্র বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যয়ন করিলে শাস্তিযোগ্য অপরাধ বলিয়া বিবেচিত হইবে এবং তাহার ভর্তি বাতিল হইয়া যাইবে৷
গ) এই বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যয়নরত অবস্থায় কোন ছাত্র/ছাত্রী কোন ধরনের চাকুরীতে যোগদান করিতে পারিবে না৷ চাকুরী করার বিষয়টি কর্তৃপক্ষের গোচরীভূত হইলে তাহার ছাত্রত্ব বাতিল বলিয়া বিবেচিত হইবে৷
ঘ) ভর্তি সংক্রান্ত যে কোন ব্যাপারে ভর্তি কমিটির সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত বলিয়া বিবেচিত হইবে। 

পোষ্টটি লিখেছেন: সৌম্য

এই ব্লগে এটাই সৌম্য জিৎ এর প্রথম পোষ্ট.

IT’S সৌম্য,DHAKA UNIVERSITY STUDENT.MUSICIAN N GUITARIST..

Ads by Wizards

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।