এবার সমাবর্তনের দাবি জানিয়েছে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীবৃন্দ

এবার সমাবর্তনের দাবি জানিয়েছে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। ইতিমধ্যে সামজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের সমাবর্তনের দাবি নিয়ে ঝড় উঠেছে। খোলা হয়েছে ফেইসবুক ইভেন্ট। Convocation

আমরা সমাবর্তন চাই – জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীবৃন্দ শিরোনামের একটি ফেইসবুক ইভেন্টের বক্তব্য নিচে তুলে দেওয়া হলোঃ

“বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় বিশ্ববিদ্যালয় হচ্ছে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়। দেশব্যাপী জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের আওতায় সরকারি ও বেসরকারি কলেজের সংখ্যা ২ হাজার ১৫৪টি। যার মধ্যে ৫৫৭ টি কলেজে স্নাতক (সম্মান) পড়ানো হয়। এই কলেজগুলোতে ২১ লাখেরও বেশি শিক্ষার্থী ডিগ্রী/অনার্স/মাস্টার্স পর্যায়ে পড়াশুনা করে। ভর্তি হওয়ার পর থেকে প্রত্যেকটি ছাত্র-ছাত্রী মনে মনে সমাবর্তনের স্বপ্নজাল বুনতে থাকে। প্রত্যেক শিক্ষার্থী চায় সমাবর্তনের মত একটা মুহূর্তের সাক্ষী হতে। ১৯৯২ সালে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা হলেও এখন পর্যন্ত বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ কোন সমাবর্তন করতে পারেনি বা সমাবর্তন করার ব্যাপারে ইচ্ছাও প্রকাশ করেনি। ফলে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতক শেষ করা একজন শিক্ষার্থী তার প্রাপ্য সম্মান স্বীকৃতি থেকে বঞ্চিত হচ্ছে।

তাই এখনই সময়, আমাদের দাবি আদায়ে সোচ্চার হওয়ার। দাবি আদায়ের জন্য আমরা আগামী ১০ ফেব্রুয়ারি সকাল ১০ টায় (পরিস্থিতি বিবেচনায় তারিখ পরিবর্তন হতে পারে) ঢাকা কলেজের সামনে একটা মানববন্ধন কর্মসুচী আহ্বান করা হচ্ছে। সবাইকে উক্ত মানববন্ধন কর্মসুচীতে অংশগ্রহণ করতে অনুরোধ করছি।.ঢাকার বাইরের কলেজগুলোতেও নিজ নিজ ক্যাম্পাসে শান্তিপূর্ণ মানববন্ধন আয়োজন করা সময়ের দাবি।

ভিসি স্যারের প্রতি আকুল আবেদন শিক্ষার্থীদের প্রাণের দাবি এই সমাবর্তন আয়োজনের কাজ অনতিবিলম্বে শুরু করুন। লাখো শিক্ষার্থীর প্রাণের দাবি মেনে নিন।”

উল্লেখ্য, ৭ হাজারেরও বেশি মানুষকে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের এই যৌক্তিক দাবির আন্দোলনে সম্পৃক্ত হওয়ার আহ্বান জানানো হয়েছে ।

১০ হাজার জন যুক্ত হলে শিক্ষার্থীরা বৃহৎ পরিসরে কর্মসূচি ঘোষিত করবে বলে জানা গেছে।

পোষ্টটি লিখেছেন: আল মামুন মুন্না

আল মামুন মুন্না এই ব্লগে 615 টি পোষ্ট লিখেছেন .

আল মামুন মুন্না, বাংলাদেশের প্রথম শিক্ষা বিষয়ক বাংলা কমিউনিটি ব্লগ সাইট "লেখাপড়া বিডি"র প্রতিষ্ঠাতা ও পরিচালক হিসেবে নিয়োজিত আছেন। সম্প্রতি জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীন যশোর সরকারী এম. এম. কলেজ থেকে ফিন্যান্স এন্ড ব্যাংকিং বিষয় নিয়ে বি.বি.এ অনার্স সম্পন্ন করে আজম খান সরকারী কমার্স কলেজে এমবিএ করছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *