মাইক্রোসফট সিকিউরিটি অ্যাসেনসিয়াল ডাউনলোড এবং ব্যবহার এর সুবিধা

সবাই কে সালাম। আমি আপনাদের  আজ একটি পুরাতন বিষয় কে নতুন করে মনে করিয়ে দিতে এসেছি। অনেকেই অনেক দামী দামী এন্টিভাইরাস নিয়ে টিউন করেছেন এবং করছেন ও। তবে টাকা দিয়ে কেনা জিনিশ ফ্রী তে ব্য*বহার করতে গেলে তো একটু ঝামেলা লাগবেই, মানে লাইসেন্স ফাইল খোজা, ইউজারনেম পাসওয়ার্ড খোজা,  কী জেনারেটর ইত্যাদি ইত্যাদি… । কিন্তু আমরা ইচ্ছে করলে মাইক্রোসফট এর ফ্রী পণ্য Microsoft Security Essential (MSE) ব্যবহার করতে পারি। এটি Antivirus হিসেবে খুব ই শক্তিশালি। এটি আপনার পিসি কে কখনোই স্লো করবেনা আর রাখবে ভাইরাস মুক্ত।

মাইক্রোসফট সিকিউরিটি অ্যাসেনসিয়াল ব্যবহার এর সুবিধা সমুহ:

আমদের পেইজে লাইক দিন গ্রুপে যোগ দিন
  • পিসি কে স্লো করে না।
  • অটো আপডেট বন্ধ করে রাখা যায়।
  • ফাইল, ফোল্ডার, ড্রাইভ খুব দ্রুত স্ক্যান করে।
  • অ্যান্টিম্যালওয়ার, স্প্যাইএয়্যার, ভাইরাস বিশেষ করে বিভিন্য প্রকার ট্রোজান এর বিরুদ্ধে খুবই কার্যকরি।
  • রিমোভেবল ড্রাইভ ইনসার্ট করলে কোন পপ আপ উইন্ডো ওপেন হবে না স্ক্যান এর জন্য। ম্যানুয়্যালি স্ক্যান করে নিতে পারবেন।
  • স্ক্যান করার পর কোন ফাইল অটোম্যাটিক ডিলিট করবেনা (যদি Default Action এ সবগুলা Recommended Action এ রাখেন, তবে by default এভাবেই থাকবে)। ম্যানুয়ালি ডিলিট করবেন।
  • কোন ফাইল ফাইল ভিরাস হিসেবে চিহ্নিত হবার পর আপনার যদি মনে এই ফাইলটি আসলে তেমন ক্ষতিকর না বা আপনি ডিলিট করতে চাচ্ছেন না, তবে সেই ফাইল টি কে ‘Allowed Item’ এ অ্যাড করে নিলে পরবর্তি স্ক্যান এ তা আর ভিরাস হিসেবে চিহ্নিত করবেনা।
  • এটি তে তিন ধরনের স্ক্যান এর অপসন রয়েছে, কুইক, ফুল, কাস্টম।
  • পিসি সিডিউলি স্ক্যান করাতে পারবেন।
  • আরও অনেক যা ব্যবহার করলেই বুঝতে পারবেন… ।

                ইন্সটল করার একটা সুবিধাজনক পদ্ধতি আমি নিচে দিয়ে দিলাম।

windows 7 (32 bit) এর জন্য

Download Click Here

ডাউনলোড হয়ে গেলে আপনার পুর্বের অ্যান্টিভাইরাস টি আনইন্সটল করে পিসি রিস্টার্ট করুন।

এবার ডাউনলোডকৃত সেটাপ ফাইল (App 1) টি ইন্সটল করুন। ব্যস, হয়ে গেলো। কিন্তু একটা কাজ শুধু বাকি আছে। আপনাকে virus and spyware definition update file টি Update করতে হবে। এই ফাইল টি প্রায় 60 mb এর মত। অনলাইনে ম্যানুয়েলি আপডেট করতে অনেক টাইম লাগে ।

আর তাই এখন শুধু Update File(app 2) টি কে Right click করে Run As Administrator হিসেবে চালু করুন। কিছুক্ষন অপেক্ষা করুন, তাহলেই আপনার কাজ শেষ।(এক্সপি এর ক্ষেত্রে শুধু ডাবল ক্লিক করে ওপেন করে OK করবেন)। এটি করার সময় নেট কানেকশান অবশ্যই বন্ধ রাখবেন।

সব কাজ হয়ে গেলে নেট কানেকশান চালু করুন। MSE অপেন করে একবার ম্যানুয়েলি আপডেট করে নিন। এক্ষেত্রে দুই-এক মিনিটেই আপডেট কমপ্লিট হয়ে যাবে। এখন ইচ্ছে করলে আপনি আপনার পুরো পিসি বা কাস্টম স্ক্যান করে নিতে পারেন।

নিচে আমি মাইক্রোসফট সিকিউরিটি অ্যাসেনসিয়াল (MSE) এর কিছু  স্ক্রিনশট দিয়ে দিলাম।

এখন কিভাবে বুঝবেন আপনি জেনুইন উইন্ডোজ ব্যবহার করছেন কি না ?

সেভেন এর জন্য :

১) ডেস্কটপ থেকে My Computer আইকন এ Right Button Click করে Properties ওপেন করুন। Windows activation option এ যদি নিচের চিত্রের মত দেখতে পান তবে আপনার উইন্ডোজ টি জেনুইন।

ধন্যবাদ সবাই কে মুল্যবান সময় নষ্ট করে পড়ার জন্য।

সৌজন্যে : Rambs Tech

সৌজন্যে : Hope Tips

পোষ্টটি লিখেছেন: iamakash

এই ব্লগে 14 টি পোষ্ট লিখেছেন .

Ads by Wizards

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।