যেভাবে এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষার ফলাফল ২০১৯ পুনঃনিরীক্ষণ করবেন

১৭ জুলাই ২০১৯ তারিখ প্রকাশিত হয়েছে ২০১৯ সালের উচ্চ মাধ্যমিক (এইচএসসি) ও সমমানের পরীক্ষার ফলাফল। এবার সারাদেশে গড় পাশের হার ৭৩.৯৩ শতাংশ। এবার জিপিএ-৫ পেয়েছেন ৪৭ হাজার ২৮৬ জন শিক্ষার্থী। যারা কৃতিত্ত্বের সাথে পাশ করলো সবাইকে লেখাপড়া বিডি পরিবারের পক্ষ থেকে শুভেচ্ছা। কিন্তু যারা এবার ভালো করতে পারেনি তাদের জন্যেই আমার আজকের এই পোস্ট। প্রথমেই জেনে নেওয়া যাক ফলাফল পুনঃনিরীক্ষণ কি?

ফলাফল পুনঃনিরীক্ষণ কি?:

জেএসসি, এসএসসি কিংবা এইচএসসি পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশের পর দিন থেকে বাংলাদেশের সকল মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড, কারিগরি ও মাদ্রাসা বোর্ড ফলাফল আশানুরুপ না হওয়াতে শিক্ষার্থীদের মনে যদি অনিশ্চয়তা থাকে তাদের অনিশ্চয়তা দূর করতে খাতা পুনঃনিরীক্ষণ এর সুযোগ দিয়ে থাকে যা ‘ফলাফল পুনঃনিরীক্ষণ’, ‘বোর্ড চ্যালেঞ্জ’, ‘ফলাফল পুনঃমূল্যায়ন’, ‘HSC Rescrutiny Process’ ইত্যাদি নামে পরিচিত। অনেকের ধারণা বোর্ড কর্তৃপক্ষ খাতা পুনঃমূল্যায়ন করে। কিন্তু আসলে এই প্রক্রিয়ায় বোর্ড থেকে যা করা হয় তা হলো, নম্বর গণনা কিংবা কোথাও নম্বর প্রদানে ভুল ভ্রান্তি হয়েছে কিনা সেসব বিষয় মিলিয়ে দেখা হয়।

কিভাবে ফলাফল পুনঃনিরীক্ষণ করবেন?:

ফলাফল পুনঃনিরীক্ষণ করতে শিক্ষা বোর্ডে যাওয়ার কোন প্রয়োজন নেই। চাইলে ঘরে বসে মোবাইল থেকেই ফলাফল পুনঃনিরীক্ষণ এর জন্যে আবেদন করতে পারবেন। তার জন্যে যা যা লাগবেঃ

  • টেলিটক সংযোগ সহ একটি মোবাইল ফোন। ( শুধুমাত্র টেলিটক আপারেটর থেকেই ফলাফল পুনঃমূল্যায়ন সম্ভব কিন্তু যাদের টেলিটক সিম নেই তাদের চিন্তার কিছু নেই, তারাও চাইলে অন্য কারো সিম ব্যাবহার করে অথবা ফলাফল পুনঃমূল্যায়ন এর আবেদন করে এ ধরণের কোন দোকান থেকেও আবেদন করতে পারবেন)
  • মোবাইলে পর্যাপ্ত পরিমাণ ব্যালান্স ( প্রতিটি বিষয়ের আবেদনের জন্যে মোবাইল থেকে আবেদন ফি বাবদ ১৫০ টাকা করে কেটে নেওয়া হবে। যে সকল বিষয়ের ২ টি পত্র রয়েছে যেমনঃ বাংলা ও ইংরেজি সে সকল বিষয়ের ক্ষেত্রে একটি বিষয় কোডের বিপরিতে ২ টি পত্রের আবেদন বলে গণ্য হবে তাই এ ক্ষেত্রে খরচ পরবে ৩০০ টাকা )
  • আপনার সাথে যোগাযোগ এর একটি ব্যাক্তিগত নম্বর (বাংলাদেশের যে কোন অপারেটর এর নম্বর দিতে পারবেন)

আসুন এবার জেনে নেওয়া যাক আবেদনের পদ্ধতি………

আবেদন করতে এসএমএস করবেন যেভাবেঃ

মোবাইল এর ম্যাসেজ অপশন এ গিয়ে লিখবেন-

RSC<স্পেস>আপনার বোর্ড এর নামের প্রথম ৩ অক্ষর<স্পেস>রোল নম্বর<স্পেস>বিষয় কোড

উদাহরণঃ যশোর বোর্ড এর কোন শিক্ষার্থীর রোল নম্বর যদি হয় 259663 তার বাংলার জন্যে আবেদন করতে লিখতে হবে এভাবেঃ RSC<স্পেস>JES<স্পেস>259663<স্পেস>101

এর পর ম্যাসেজটি 16222 এই নম্বরে পাঠাতে হবে।

উল্লেখ্য আপনি একটি এসএমএস এ একসাথে একাধিক বিষয়ের জন্যে আবেদন করতে পারবেন। সেক্ষেত্রে কমা (,) দিয়ে বিষয়গুলোর কোড আলাদাভাবে লিখতে হবে। যেমনঃ

RSC<স্পেস>JES<স্পেস>259663<স্পেস>101,102,107

এক্ষেত্রে প্রতিটি বিষয়ের এবং প্রতিটি পত্রের জন্যে ১৫০ টাকা করে চার্জ করা হবে এবং যে সকল বিষয়ের ২ টি পত্র রয়েছে যেমনঃ বাংলা ও ইংরেজি সে সকল বিষয়ের একটি পত্রে কিংবা দুইটি পত্রে আবেদন করতে পারবেন।

ফিরতি এসএমএস এ কত টাকা কেতে নেওয়া হবে জানিয়ে আপনাকে একটি পিন নম্বর দেওয়া হবে। আপনি রাজি থাকলে এর পর ম্যাসেজ অপশন এ গিয়ে লিখবেনঃ

RSC<স্পেস>YES<স্পেস>পিন নম্বর<স্পেস>আপনার সাথে যোগাযোগের একটি নম্বর (যে কোন অপারেটর এর)

উদাহরনঃ ধরুন ফিরতি এসএমএস এ প্রদত্ত আপনার পিন নম্বর হল 12345 এবং আপনার মোবাইল নম্বর 01913XXXXXX সেক্ষেত্রে আবেদন করবেন এভাবেঃ

RSC<স্পেস>YES<স্পেস>12345<স্পেস>01913XXXXXX

এর পর ম্যাসেজটি 16222 এই নম্বরে পাঠাতে হবে।

Send করার পর ফিরতি SMS এ আবেদন Confirmation সংক্রান্ত একটি বার্তা আসবে। সেখানে Track নম্বর দেয়া থাকবে; যা আপনার আবেদন গ্রহণ করার Reference হিসেবে সংরক্ষণ করা যেতে পারে।

উপরের প্রক্রিয়াগুলো যদি আপনি সঠিক ভাবে অনুসরণ করে থাকেন তাহলে সফলভাবে আপনার ফলাফল পুনঃনিরীক্ষণ প্রক্রিয়া সম্পন্ন হয়েছে।

আবেদনের সময়সীমাঃ

এই প্রক্রিয়া সাধারণত পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশ হওয়ার পরদিন থেকে এক সপ্তাহব্যাপী চলে। ২০১৯ সালের ফলাফল পুনঃনিরীক্ষণ প্রক্রিয়া ১৮ থেকে ২৪ জুলাই পর্যন্ত চলবে।

আসলেই কি কোন কাজ হয় ফলাফল পুনঃনিরীক্ষণ করে?:

প্রতি বছর ফলাফল পুনঃমূল্যায়ন এ অনেককেই দেখি প্রথমে ফেইল করে ফলাফল পুনঃমূল্যায়ন করে পাশ করতে এবং গ্রেড উন্নয়ন হতে। চাইলে ২০১৮ সালে যারা ফলাফল পুনঃনিরীক্ষণ করেছিলো এই লিঙ্ক থেকে তাদের ফলাফল দেখে আসতে পারেন।

তাই আমার পরামর্শ হল যেহেতু এইচএসসি আমাদের জীবনের অনেক গুরুত্বপূর্ণ একটা পরীক্ষা তাই যদি কোন কনফিউশন থাকে আপনার ফলাফলের ব্যাপারে কিংবা আপনি যদি নিশ্চিত থাকেন আপনার ফলাফল পরিবর্তনের ব্যাপারে তাহলে অবশ্যই ফলাফল পুনঃমূল্যায়ন করে দেখা উচিত।

ফলাফল পুনঃনিরীক্ষণ এর ফলাফল কবে কিভাবে দেবে?:

সাধারণত ফলাফল পুনঃনিরীক্ষণ এর ফলাফল মূল ফলাফল প্রকাশের ৩০ দিনের মধ্যেই প্রতি শিক্ষা বোর্ড এর নিজ নিজ ওয়েবসাইটে পিডিএফ আকরে প্রকাশ করে থাকে। এছাড়া আবেদনকারীর আবেদন করার সময় প্রদান করা ব্যক্তিগত মোবাইল নম্বরেও কেন্দ্রীয়ভাবে ফলাফল এসএমএস এর মাধ্যমে জানিয়ে দেওয়া হয়। ২০১৯ সালের এইচএসসি ফলাফল পুনঃমূল্যায়ন এর ফলাফল ১৬ আগস্ট ২০১৯ তারিখ প্রকাশ করা হবে। প্রকাশ হওয়া মাত্র সকল শিক্ষা বোর্ড এর ফলাফল পুনঃমূল্যায়ন এর বিস্তারিত ফলাফল দেখা যাবে এই লিঙ্ক থেকে। তাই ফলাফল পুনঃমূল্যায়ন এর ফলাফল জানতে নিয়মিত এই পোস্টে চোখ রাখুন।

পোষ্টটি লিখেছেন: আল মামুন মুন্না

আল মামুন মুন্না এই ব্লগে 618 টি পোষ্ট লিখেছেন .

আল মামুন মুন্না, বাংলাদেশের প্রথম শিক্ষা বিষয়ক বাংলা কমিউনিটি ব্লগ সাইট "লেখাপড়া বিডি"র প্রতিষ্ঠাতা ও পরিচালক হিসেবে নিয়োজিত আছেন। জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীন যশোর সরকারী এম. এম. কলেজ থেকে ফিন্যান্স এন্ড ব্যাংকিং বিষয় নিয়ে বি.বি.এ অনার্স ও আজম খান সরকারী কমার্স কলেজ থেকে এমবিএ সম্পন্ন করেছেন।

63 comments

  1. পুনঃনিরীক্ষণ এর আবেদন এর সময় শেষ হলে , আর কোন ভাবে আবেদন করার উপায় আছে কি ? অনুগ্রহ করে জানাবেন ।

  2. আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ ।

  3. ফলাফল কখন দিবে… একটু বলবেন কি??

  4. অামি াা াআমার খাতা কল করেছি কবে জানতে পারবো রিজাল্ট

  5. এক মাসতো প্রায় শেষ। রেজাল্ট কখন দিবে??
    ভাইয়া জানলে বলেন।

  6. আমি কয়েকটি বিষয়ে ফলাফল পুনঃনিরীক্ষণ করতে পেরেছি কিন্তু সমাজকর্ম ২য় পত্র (২৭২) এই বিষয়ে পুনঃনিরীক্ষণ এর মেসেজ যায় না কেনো,দয়া করে যানাবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *