ঘুড্ডি ফাউন্ডেশন’র ‘সবার জন্য শিক্ষা বৃত্তি ২০২০’ আবেদন করার নিয়ম সহ বিস্তারিত দেখুন এখানে

“ঘুড্ডি ফাউন্ডেশন” প্রদত্ত “সবার জন্য শিক্ষা” বৃত্তি র জন্য আবেদন শুরু হয়েছে। ঘুড্ডি ফাউন্ডেশন প্রদত্ত শিক্ষাবৃত্তির জন্য আবেদন যারা করতে পারবেন,কিভাবে আবেদন করবেন,  বিস্তারিত লেখাপড়া বিডির পাঠকের সুবিধার জন্য তুলে ধরা হলোঃ
 
যোগ্যতাঃ
১. এস এস সি/সমমান ২০২০ পরীক্ষার্থী (বিজ্ঞান/মানবিক/ব্যাবসা শাখা) এবং প্রাপ্ত সর্বনিম্ন জিপিএ ৪.৫.
২. আর্থিক ভাবে অস্বচ্ছল.
 
আবেদন পদ্ধতি: “ঘুড্ডি ফাউন্ডেশন” প্রদত্ত “সবার জন্য শিক্ষা” বৃত্তি র জন্য আবেদন অনলাইনে সম্পন্ন করতে হবে। 
অনলাইনে আবেদনের লিংকঃ
(অনলাইন আবেদনের সময় কোন ডকুমেন্ট/ছবি দিতে হবে না।)
 
আবেদন জমা দেওয়ার শেষ তারিখঃ ২৫শে জুন ২০২০.
 
 
ঘুড্ডি ফাউন্ডেশন বৃত্তি কখনোই অন্যান্য প্রতিষ্ঠান কর্তৃক প্রদত্ত শিক্ষা বৃত্তির মত নয়।
এই বৃত্তি যাকেই দেওয়া হয়, নিশ্চিত করা হয় সে যেন প্রতিষ্ঠিত হতে পারে।
 
তাই বৃত্তির জন্য নির্বাচনের পূর্বে কঠোর ভাবে ২ টি ধাপ অনুসরন করা হয়।
****** ১ম ধাপ **********
মোট নাম্বার ১৫০.
এর মধ্যে ১০০ নাম্বারের এম সি কিউ এক্সাম। বাকি ৫০ নাম্বারের মার্কিং করা হবে পরীক্ষার হলে ছাত্র/ছাত্রী কর্তৃক জমাকৃত নিচের ডকুমেন্টের উপর।
** ১ কপি পাসপোর্ট সাইজ ছবি
** এস এস সি মার্কশীট অথবা ইন্টারনেট হতে প্রাপ্ত মার্কশীটের ফটোকপি।
** এস এস সি পরীক্ষার প্রবেশপত্রের ফটোকপি।
** একটি কাগজে নিজ নিজ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও পছন্দের যে কোন ১ জন শিক্ষকের নাম, মোবাইল নাম্বার লিখে আনতে হবে।
** কমের পক্ষে ৪ (চার) পেইজের একটি আবেদন পত্র লিখে আনতে হবে বৃত্তি পরীক্ষার হলে। যেখানে বিস্তারিত বর্ণনা থাকবেঃ পারিবারিক সম্পদের সঠিক পরিমান, পরিবার প্রধান সহ বাকিদের আয়ের সকল উতসের বর্ণনা, পরিবারের মাসিক আয় ও ব্যায়ের হিসেব, পরিবারের ভাই-বোন সহ অন্যান্যদের বর্ণনা, নিজের সফলতা-দুঃক্ষ-কষ্ট-ভবিষ্যত স্বপ্নের বর্ণনা।
আবেদনপত্রটি লিখতে হবে প্রতিটি A4 কাগজের এক পাশে। লিখতে হবে নিচের ফরমেটেঃ
বরাবর,
নুর খান
চেয়ারম্যান,
ঘুড্ডি ফাউন্ডেশন,
ঢাকা।
বিষয়ঃ এস এস সি/সমমান ২০২০ এর “সবার জন্য শিক্ষা” বৃত্তির আবেদন।
 
উল্লেখ্য, একজনের আবেদনের সাথে অন্য কারো আবেদনের সামান্য মিল খুজে পাওয়া গেলেও, উভয় প্রার্থীকে বাতিল ঘোষনা করা হবে।
 
১ম ধাপের এম সি কিউ পরীক্ষার মানবন্টনঃ
বিজ্ঞানঃ পদার্থ – ৩০, রসায়ন – ৩০, গণিত – ৩০, সাধারন জ্ঞান ১০.
মানবিকঃ বাংলা – ২৫, ইংরেজী – ২৫, গণিত – ২৫, সাধারন জ্ঞান – ২৫.
ব্যবসাঃ গণিত – ২৫, ব্যবসায় উদ্যোগ – ২৫, হিসাব বিজ্ঞান – ২৫, ইংরেজি – ২৫
 
পরীক্ষার সময়ঃ ১ ঘন্টা ৩০ মিনিট
** প্রতিটি ভুল উত্তরের জন্য ০.২৫ নাম্বার কাটা যাবে।
** ক্যালকুলেটর ব্যাবহার করা যাবে।
পরীক্ষার তারিখঃ পরে এস এম এস করে জানানো হবে।
পরীক্ষার কেন্দ্রঃ নিজ বিদ্যালয়ের সব চেয়ে নিকটবর্তী কেন্দ্রে। এটি এস এম এস করে জানানো হবে পরবর্তীতে।
 
********** ২য় ধাপ *******
১ম ধাপ যারা পার করতে পারবে, তাদেরকে ঢাকায় ডাকা হবে ভাইবা এবং লিখিত পরীক্ষার জন্য।
লিখিত পরীক্ষার মান বন্টন আগে থেকে উল্লেখ করা হবে না। তবে কি কি বিষয়ের উপর পরীক্ষা হবে, তা জানিয়ে দেওয়া হবে।
উল্লেখ্য, ঢাকায় যাদেরকে ডাকা হবে, তাদের যাতায়াত খরচ প্রদান করবে ঘুড্ডি ফাউন্ডেশন।
 
২য় ধাপের পরে চূড়ান্ত ভাবে নির্বাচিতরা নিম্নোক্ত সুবিধা পাবেঃ
মাসিক ২০০০ টাকা
১ম ও ২য় বর্ষে বই ও ভর্তি বাবদ ৬,০০০ টাকা
এইচ এস সি ফর্ম ফিলাপ বাবদ ২০০০ টাকা।
 
এই সময় নিম্নোক্ত বিষয় মাথায় রাখতে হবেঃ
 
** উচ্চ মাধ্যমিক ১ম ও ২য় বর্ষের ফাইনাল পরীক্ষায় নিজ কলেজের মেধা তালিকার প্রথম ১ থেকে ১০ এর মধ্যে থাকতে হবে।
** সকল ছাত্র/ছাত্রীকে ২০২২ সালের জানুয়ারি মাসে আরেকটি লিখিত পরীক্ষায় অংশগ্রহন করতে হবে। ঐ পরীক্ষায় ভাল করতে পারলে, এইচ এস সি এক্সাম পরবর্তী ৪ মাস ঢাকায় হোস্টেল এবং বর্ণে এডমিশন কেয়ারে পড়ার খরচ বৃত্তি আকারে পাবে।যারা এই বৃত্তি পাবে, তাদেরকে অবশ্যই এডমিশন কোচিং করার জন্য ঢাকায় আসতে হবে।
 

পোষ্টটি লিখেছেন: মোঃ মিলন ইসলাম

এই ব্লগে 164 টি পোষ্ট লিখেছেন .

মোঃ মিলন ইসলাম এই ব্লগের একজন ব্লগার। এই সাইটে গুরুত্বপূর্ণ কিছু পোষ্ট তুলে ধরেন।

আমদের ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন পেইজে লাইক দিন গ্রুপে যোগ দিন


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *