করোনার কারণে পিছিয়ে গেলো নতুন শিক্ষাক্রমের বই বিতরণ

আগামী বছর থেকে পর্যায়ক্রমে নতুন শিক্ষাক্রমে বই দেওয়ার কথা ছিল শিক্ষার্থীদের। কিন্তু করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের কারণে তা পিছিয়ে গেলো। তবে এক বছর পিছিয়ে ২০২২ সাল থেকে নতুন শিক্ষাক্রমে পাঠ্যবই বিতরণ করা হবে। 

আজ মঙ্গলবার রাজধানীর আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউটে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনির সভাপতিত্বে আয়োজিত এক বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। ২০২১ সালের মধ্যে প্রাক প্রাথমিক থেকে দ্বাদশ শ্রেণি পর্যন্ত নতুন শিক্ষাক্রম চালু করার পূর্ব নির্ধারিত লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণে এই বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

সভায় উপস্থিত ছিলেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মো. জাকির হোসেন, শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী, শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের সচিব মো. মাহবুব হোসেন, কারিগরি ও মাদ্রাসা বিভাগের সচিব মুনশী শাহাবুদ্দীন আহমেদ, প্রাথমিক ও গণশিক্ষা সচিব মো. আকরাম-আল-হোসেন প্রমুখ।

বৈঠকে উপস্থিত জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ডের (এনসিটিবি) চেয়ারম্যান অধ্যাপক নারায়ণ চন্দ্র সাহা বলেন, করোনা পরিস্থিতির কারণে ২০২১ সালে নতুন শিক্ষাক্রমের বই দেয়া সম্ভব হবে না। নতুন শিক্ষাক্রমের পাঠ্যবই শিক্ষার্থীরা পাবে ২০২২ সাল থেকে। তবে নতুন শিক্ষাক্রমের আলোকে আগামী বছর একটি শিক্ষক নির্দেশিকা শিক্ষকদেরকে দেয়া হবে। এই নির্দেশিকা পড়ে ২০২২ সালের নতুন শিক্ষাক্রম সম্পকে শিক্ষকরা ধারণা পাবেন।

পোষ্টটি লিখেছেন: মোঃ মিলন ইসলাম

এই ব্লগে 163 টি পোষ্ট লিখেছেন .

মোঃ মিলন ইসলাম এই ব্লগের একজন ব্লগার। এই সাইটে গুরুত্বপূর্ণ কিছু পোষ্ট তুলে ধরেন।

আমদের ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন পেইজে লাইক দিন গ্রুপে যোগ দিন


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *