একটু বাড়তি আয় হলে ক্ষতি কি? চেষ্টা করে দেখুন আপনিও পারবেন কথা দিলাম

বর্তমান সময়ে ছেলে মেয়েদের মুল কাজ হলো পড়াশুনা করা। আর এই পড়াশুনা শেষ হতে না হতেই শুরু হয়ে যায় চাকারী যুদ্ধে। আমরা সবাই জানি দিন যত যায় চাকরীর বাজার ততোটা মন্দা হতে থাকে। বর্তমান সময়ে একটা ছোট চাকরীর জন্য জমা হয় হাজার হাজার আবেদন। এটাই এখন বাস্তব চিত্র। অদূর ভবিষ্যতে হয়তোবা এরচেয়েও কঠিন পরীক্ষার সম্মুখিন হতে হবে। কারন যে হারে জনসংখ্যা বড়ছে সে হারে কর্ম সংস্থান বড়ছে না। এই চিন্তাকে মাথায় রেখে সবার জন্য ছোট কিছু টিপস্ শেয়ার করতে যাচ্ছি।

ইতিমধ্যে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এক বক্তব্যে বলেছেন, মানুষের মাথায় চাকরী ছাড়া কিছুই নেই অথচ ফ্রিল্যাংন্সিং করে লক্ষ টাকা আয় করা সম্ভব। আমি প্রধানমন্ত্রীর এমন বক্তব্যকে স্বাগত জানাই। হয়তো অনেকেই কথাটার মানে বোঝেননি। আমি দীর্ঘ ১৮ বছরের উপর প্রযুক্তি নিয়ে কাজ করে যাচ্ছি। যদিও আমার পড়াশুনার ব্যকগ্রাউন্ড সেই প্রযুক্তির সাথে মিল নেই। যাই হোক, বেকারত্ব দূর করতে ফ্রিল্যান্সিং বা আউটসোর্সিং এর বিকল্প বর্তমানে নেই। তবে চারিদিকে এতো এতো প্রতারকের ভিরে ফ্রিল্যান্সিং অনেকেটা হাসির খোরাক হয়ে গেছে। তবে আমি বলবো, হাসি নয় এটা সত্য। তবে আপনাকে সঠিক ভাবে কাজ শিখতে ও জানতে হবে। না হলে কখনোই সফল হতে পারবেন না। ছোট একটা ১০ হাজার টাকা বেতনের জব পেতে যেখানে ২০ বছর পড়াশুনা করেন সেখানে মাসে ৫০ হাজারের উপরে উপার্জন করতে আপনাকে কতো বছর পড়াশুনা করা উচিৎ বলে মনে করেন?

অনেকেই স্বপ্ন দেখায় কোর্স করলেই মাসে লক্ষ লক্ষ টাকা। হুমরি খেয়ে পড়েন একদল লোক। আমার প্রশ্ন হলো কিভাবে? কোর্স কি টাকা এনে দেবে নাকি আপনি কাজ করলে টাকা পাবেন। হ্যা, অবশ্যই আপনাকে কাজ করতে হবে। তবে কোথায় কাজ করবেন? কি কাজ করবেন? আর কেই বা টাকা দেবে? এ প্রশ্ন অনেকেরই মাথায় ঘোরে। তাদেরকে বলছি, আপনি অনলাইনে যে কাজ শিখেছেন সেই কাজ করে উপার্জন করবেন। এটা হতে পারে ডাটা এন্ট্রে, এসইও, গ্রাফিক্স ডিজাইন, এনিমেশন, ভিডিও/ অডিও এডিটিং ইত্যাদি। যখন এমন একটা কাজ আপনি শিখে ফেলবেন তখন আপনাকে আর কাজের পিছনে দৌড়াতে হবে না, কাজ আপনাকে খুজে নেবে।

আমাদের বড় সমস্যা হলো আমরা কাজ না জেনেই বা অল্প শিকেই ঝাপিয়ে পড়ি উপার্জনের পিছনে। আমি তাদেরকে বলছি, আপনি কখনোই উপার্জন করতে পারবেন না। আগে নিজেকে প্রশ্ন করেন, আপনি কি একটা বিষয়ে পুরোপুরি জ্ঞান অর্জন করেছেন? যদি করে থাকেন তাহলে বলবো। আপওয়ার্কে বা ফাইভারে জয়েন করেন। গ্যারান্টি দিচ্ছি মাসে ভালো এমাউন্ট উপার্জন করতে পারবেন। তবে এসব সাইটে জয়েন করতে হলেও দরকার অভিজ্ঞতা। গুগলে সার্চ করুন, পেয়ে যাবেন টিপস্ এন্ড ট্রিক্স।

আমি ব্যক্তিগত ভাবে এসইও নিয়ে কাজ করি। তাই ফাইভারে বা আপওয়ার্কে কাজ করতে হয়না। নিজের কাজ নিজে করি আর আমাকে বেতন দেয় গুগল। যেহেতু আমি চাকরী করি তাই ফুল টাইম এ কাজ করার মত সময় হয়না। কেন চাকরী করি? কারন ফ্রিল্যান্সিং পরিচয় দেয়ার মত এদেশে তেমন পরিস্থিতি এখনো সৃষ্টি হয়নি। যাই হোক, আমার কাজগুলো করার জন্য বাইরে থেকে লোক হায়ার করি। মাসে পে করি ভালো একটা এমাউন্ট। তার মানে হলো, যদি আপনি কাজ জানেন তাহলে অন্যলোক দিয়েও মাসে ভালো ইনকাম করতে পারবেন।

কোথা থেকে কাজ শিখবেন?

কাজ শেখার সব চেয়ে বড় প্লাটফর্ম হলো গুগল ও ইউটিউব। কষ্ট করে আপনার যে টপিক ভালো লাগে সেটা নিয়ে সার্চ করুন। যদি এসইও নিয়ে কাজ শিখতে চান তাহলে Jobayer Academy লিখে ইউটিউবে সার্চ করে দেখতে পারেন। আমার কিছু ফ্রি টিউটোরিয়াল রয়েছে। দেখে নিয়ে কিছুটা হলেও অভিজ্ঞতা হবে।

কিভাবে শিখবো?

শেখার জন্য সময় নিজেকেই বের করতে হবে। সবার হাতেই মোবাইল ফোন রয়েছে, টিউটোরিয়াল ডাউনলোড করুন আর সময় পেলেই দেখে ফেলুন। আর ছাত্র ছাত্রীদের পরামর্শ দিতে পারেন এস এস সি রেজাল্ট প্রকাশের আগে যে সময়টা পাওয়া যায় সেই সময়টাকে কাজে লাগাতে। পড়াশুনা শেষ করে অন্তত ঘরে বসে থাকতে হবে না। ভার্সিটিতে পড়াশুনা করতে থাকলো আর সেই সাথে শিখতে থাকলো। কথা দিলাম আপনি সফল হতে বাধ্য।

পরামর্শ

ছোট ছোট কোর্স করে মাসে লক্ষ টাকা ইনকাম করা যায় না, লক্ষ টাকা ইনকাম করতে হলে আগে নিজেকে লক্ষ টাকা ইনকামের যোগ্য হতে হবে। যারা এসব প্রলোভন দেখিয়ে ডেকে নেয় তাদের থেকে সাবধানে থাকুন। টাকা ইনকামের জন্য নয়, দু এক বছর আগে শেখার পেছনে ব্যয় করুন। যদি আপনি দ্রুত শিখে ফেলতে পারেন সেটা আপনার যোগ্যতা।

জানিনা এমন ধরনের লেখার গ্রহনযোগ্যতা আছে কিনা। যদি থেকে থাকে আর আপনাকে অনলাইনে উপার্জনের আগ্রহ থাকে তাহলে ভবিষ্যতে ফ্রিতে এ টু জেট লেখার মাধ্যমে শেখানোর চেষ্টা করবো। আপনাদের মন্তব্যের অপেক্ষায় রইলাম। মন্তব্য দেখেই সিদ্ধান্ত নেবো এবিষয়ে আর কিছু লেখা ঠিক হবে কিনা।

ডিজিটার হোক বংলাদেশ, মুক্ত হোক বেকারত্ব। আল্লাহ হাফেজ। ভালো থাকবেন সবাই।

পোষ্টটি লিখেছেন: jobayer09

Jobayer Rahman এই ব্লগে 9 টি পোষ্ট লিখেছেন .

আমদের ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন পেইজে লাইক দিন গ্রুপে যোগ দিন


3 comments

  1. সুপরামর্শ।
    আগামী পোষ্টের অপেক্ষায় রইলাম

  2. It’s a very helpful topic to learn to freelance. I learned SEO and trying to learn Web development now. Thanks a lot, brother.

  3. এই পদ্ধতি অবলম্বন করে যে কোন বেকার ব্যক্তি বেকারত্বের অভিশাপ থেকে মুক্তি পেতে পারে এবং সেই সাথে তার নিজের পরিবারকে স্বাবলম্বী করে গড়ে তুলতে পারে বলে আমি মনে করি। এর জন্য প্রয়োজন একটু ধর্যের সাথে চেষ্টা আর নিজের কাজকে ছোট করে না দেখে আপ্রাণ প্রচেষ্টা চালিয়ে যাওয়া।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *