২০১৯-২০২০ অর্থবছরে যে ২৭৩০টি বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এম.পি.ও. ভুক্তির ঘোষণা দিলেন প্রধানমন্ত্রী

নতুন এমপিও তালিকা ২০১৯ প্রকাশ, নতুন এমপিও প্রতিষ্ঠানের তালিকা, নতুন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এমপিও ভুক্তির খবর, নন এমপিও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সর্বশেষ খবরঃ অবশেষের দেশের ২,৭৩০টি নতুন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্তির ঘোষণা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ২৩ অক্টোবর বুধবার গণভবনে প্রধানমন্ত্রী ২০১৯-২০২০ অর্থবছরে নির্বাচিত বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসমূহের এম.পি.ও. ভুক্তির এই আদেশ প্রদান করেন। প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণার পর শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইট moedu.gov.bd তে প্রকাশ করা হয়। প্রকাশিত তালিকা শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটের পাশাপাশি লেখাপড়া বিডি.কম এর এই পোস্টের শেষেও পাওয়া যাচ্ছে।

ঘোষণা দিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, এমপিওভুক্ত করা হয়েছে, এখন না পড়ালেও টাকা পাওয়া যাবে, শিক্ষকদের এমনটা ভাবার কোনো সুযোগ নেই। কারণ শিক্ষার মান ধরে রাখতে না পারলে এমপিওভুক্তি বাতিল করা হবে। এটা শিক্ষকদের মাথায় রাখতে হবে।

শেখ হাসিনা বলেন, নীতিমালা অনুযায়ী স্কুলগুলো যাচাই-বাছাই করতে কিছুটা সময় লেগেছে। যাচাই-বাছাই করে আমরা এমপিওভুক্তর ঘোষণা করছি। এছাড়া আগামীতে যারা এমপিওভুক্ত হতে চান, তাদের অবশ্যই নীতিমালার নির্দেশনা পূরণ করতে হবে।

এর আগে মঙ্গলবার (২২ অক্টোবর) আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউটে এমপিওভুক্তি বিষয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে প্রধানমন্ত্রীর এ ঘোষণার তথ্য জানান শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। একইসঙ্গে নন-এমপিও শিক্ষকদের অনশন কর্মসূচি প্রত্যাহার করে ক্লাসে ফিরে যাওয়ার আহ্বান জানান তিনি। শিক্ষামন্ত্রীর আহ্বানে সাড়া দিয়ে মঙ্গলবার রাতে অনশন কর্মসূচি স্থগিতও করেন শিক্ষকরা।

এমপিওভুক্তিতে আসা দুই হাজার ৭৩০টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের মধ্যে স্কুল ও কলেজের সংখ্যা এক হাজার ৬৫১টি। মাদ্রাসা ৫৫৭টি এবং কারিগরি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ৫২২টি।

সর্বশেষ ২০১০ সালে এক হাজার ৬২৪টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্ত করা হয়েছিল। এরপর থেকে শিক্ষকরা এমপিওভুক্তির জন্য আন্দোলন করে আসছেন।

উল্লেখ্য, MPO এর অর্থ হচ্ছে Monthly Pay order । MPO ভুক্ত করনের মাধ্যমে বেসরকারি পর্যায়ের স্কুল, কলেজ ও মাদ্রাসায় বিভিন্ন ধরনের নিয়োগ, পদোন্নতি এবং শিক্ষক-কর্মচারীদের মাসিক বেতন কার্যকর করা হয়। মান্থলি পেমেন্ট ওর্ডারে (এমপিও) অন্তর্ভূক্তি না হওয়া পর্যন্ত কোন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের কর্মচারীরা বেতন-ভাতাদির সুবিধা পান না।

MPO ভুক্ত করণের সুবিধাঃ –

  • এমপিও ভুক্ত হলে এমপিওভুক্ত শিক্ষক-কর্মচারীরা তাঁদের মূল বেতনের পুরোটাই সরকারি কোষাগার থেকে প্রাপ্ত হবেন।
  • এমপিওভুক্ত শিক্ষক-কর্মচারীরা অন্যান্য সরকারী কর্মচারীদের মত মহার্ঘ্যভাতা, বাড়িভাড়া, চিকিৎসা ও উৎসবভাতা পাবেন।
  • যে সকল প্রতিষ্ঠান এমপিও ভুক্ত হবে সেসকল প্রতিষ্ঠানের কমকর্তা ও কর্মচারীরা পর্যায়ক্রমিক ভাবে নিয়োগ প্রাপ্ত হওয়ার বেতন কাঠামোর আওতায় আসবে।
  • কেবল মাত্র এমপিও ভুক্ত হবার পরেই চাকরির স্থায়িত্ব নিশ্চিত হবে।

নতুন এমপিওভুক্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের তালিকা ২০১৯-২০ পিডিএফ ডাউনলোড করতে নিচের লিংকগুলোতে ক্লিক করুনঃ

নতুন এমপিওভুক্ত নিম্নমাধ্যমিক প্রতিষ্ঠানের তালিকা pdf ডাউনলোড

নতুন এমপিওভুক্ত মাধ্যমিক প্রতিষ্ঠানের তালিকা pdf ডাউনলোড

নতুন এমপিওভুক্ত উচ্চ মাধ্যমিক (স্কুল এন্ড কলেজ) প্রতিষ্ঠানের তালিকা pdf ডাউনলোড

নতুন এমপিওভুক্ত উচ্চ মাধ্যমিক (ইন্টারমিডিয়েট কলেজ) প্রতিষ্ঠানের তালিকা pdf ডাউনলোড

নতুন এমপিওভুক্ত ডিগ্রী কলেজ প্রতিষ্ঠানের তালিকা pdf ডাউনলোড

পোষ্টটি লিখেছেন: লেখাপড়া বিডি ডেস্ক

লেখাপড়া বিডি ডেস্ক এই ব্লগে 1024 টি পোষ্ট লিখেছেন .

লেখাপড়া বিডি বাংলাদেশের প্রথম শিক্ষা বিষয়ক বাংলা কমিউনিটি ব্লগ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *