৮টি কলেজ প্রাক-মডেল কলেজ হিসেবে নির্বাচিত

দেশে প্রথমবারের মতো ৮টি বেসরকারি কলেজকে প্রাক -মডেল কলেজ হিসেবে নির্বাচিত করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. হারুন-অর-রশিদ। সোমবার গাজীপুরে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের মূল ক্যাম্পাসে এক সংবাদ সম্মেলনে এই মডেল কলেজ নির্বাচনের ঘোষণা দেন উপাচার্য।

সংবাদ সম্মেলনে উপাচার্য বলেন, ‘প্রথমবার মডেল কলেজ নির্বাচন প্রক্রিয়ায় নির্দিষ্ট ছকে অনলাইনে মোট ৮৯টি কলেজের পক্ষ থেকে আবেদন পাওয়া যায়। প্রাপ্ত আবেদনপত্রসমূহের তথ্যাবলি বিশ্ববিদ্যালয়ের টিম কর্তৃক সরেজমিনে যাচাই করে ১৫টি কলেজকে প্রাথমিকভাবে তালিকাভুক্ত করা হয়। এরপর ৪০টি পূর্ব নির্ধারিত দক্ষতাসূচক KPI (Key Performance Indicators)-এর ভিত্তিতে এদের মধ্যে যে ৮টি কলেজ স্বল্পমেয়াদী শর্তসমূহ পূরণ করতে সমর্থ হয়েছে, তাদেরকে প্রাক-মডেল কলেজ হিসেবে নির্বাচিত করা হয়েছে।’

নির্বাচিত কলেজগুলো হল- ১) ঢাকা কমার্স কলেজ ২) সিদ্ধেশ্বরী গার্লস কলেজ, ঢাকা ৩) লালমাটিয়া মহিলা কলেজ, ঢাকা ৪) উত্তরবাংলা কলেজ, লালমনিরহাট ৫) সৈয়দ আহম্মদ কলেজ, সুখানপুকুর, বগুড়া ৬) সখিপুর রেসিডেন্সিয়াল মহিলা কলেজ, টাঙ্গাইল ৭) দৌলতপুর কলেজ, কুষ্টিয়া ও ৮) রফিকুল ইসলাম মহিলা কলেজ, কিশোরগঞ্জ।

উপাচার্য সংবাদ সম্মেলনে আরও জানান, ‘পূর্ণাঙ্গ মডেল কলেজ হিসেবে বিবেচিত হওয়ার জন্য উক্ত কলেজসমূহকে আগামি এক বছরের মধ্যে মধ্যমেয়াদি এবং দুই বছরের মধ্যে দীর্ঘমেয়াদি শর্ত পূরণ করতে হবে।’

তিনি বলেন, ‘নির্বাচিত মডেল কলেজসমূহ শিক্ষার সার্বিক উন্নয়নের ক্ষেত্রে পিছিয়ে থাকা অন্যসব কলেজের জন্য ‘রোল মডেল’ হিসেবে কাজ করবে, এটি আমাদের প্রত্যাশা। পর্যায়ক্রমে বহুসংখ্যক কলেজকে মডেল কলেজের পর্যায়ে উন্নীত করার সুদূরপ্রসারী পরিকল্পনা আমাদের রয়েছে।’

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন উপ-উপাচার্য প্রফেসর ড. হাফিজ মুহম্মদ হাসান বাবু, উপ-উপাচার্য প্রফেসর ড. মো. মশিউর রহমান, স্নাতকোত্তর শিক্ষা, প্রশিক্ষণ ও গবেষণা কেন্দ্রের ডিন প্রফেসর ড. মো. আনোয়ার হোসেন, স্নাতকপূর্ব শিক্ষা বিষয়ক স্কুলের ডিন প্রফেসর ড. মো. নাসির উদ্দিন, কারিকুলাম উন্নয়ন ও মূল্যায়ন কেন্দ্রের ডিন ড. মোহাম্মদ বিন কাশেম, রেজিস্টার মোল্লা মাহফুজ আল-হোসেন, জনসংযোগ, তথ্য ও পরামর্শ দপ্তরের পরিচালক ফয়জুল করিম ও পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক বদরুজ্জামান প্রমুখ।

ঘোষিত ৮টি প্রাক -মডেল কলেজকে সনদপত্র, পুস্তক ও মেধাবী শিক্ষার্থীদের বৃত্তি প্রদানের লক্ষ্যে আগামী ২৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯, শনিবার সকাল ১০টায় ঢাকাস্থ আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউট (সেগুনবাগিচা) মিলনায়তনে এক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে।

মডেল কলেজ হিসেবে নির্বাচিত কলেজসমূহের জন্য যেসব প্রণোদনা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে প্রদান করা হবে, তা নিম্নরূপ-

  • প্রতি বিষয়ে শ্রেষ্ঠ ফল অর্জনকারী শিক্ষার্থীদের বৃত্তি প্রদান (সম্মান ২য় বর্ষ থেকে ৪র্থ বর্ষ);
  • তথ্য-প্রযুক্তিগত উন্নয়নে কলেজকে আর্থিক সহায়তা;
  • গ্রন্থাগারের জন্য মানসম্পন্ন পাঠ্য পুস্তক সরবরাহ;
  • শিক্ষক প্রশিক্ষণে অগ্রাধিকার;
  • সায়েন্স ল্যাব উন্নয়নে আর্থিক সহায়তা;
  • কলেজে বিষয় অধিভুক্তির ক্ষেত্রে অগ্রাধিকার;
  • সার্টিফিকেশন অব এওয়ার্ড।

বৃত্তিপ্রাপ্তির নিয়মাবলি : নির্বাচিত কলেজের অনার্সের প্রতিটি বিষয়ে ২য় বর্ষ থেকে ৪র্থ বর্ষ পর্যন্ত শ্রেষ্ঠ ফল অর্জনকারী শিক্ষার্থীকে মেধাবৃত্তি প্রদান করা হবে। এ বছর এ সকল কলেজের বৃত্তিপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীর সংখ্যা ৮২ জন। প্রত্যেকে ১ বছরের জন্য ২০ হাজার টাকা বৃত্তিপ্রাপ্ত হবেন।

বৃত্তিপ্রাপ্তির যোগ্যতা : ক. প্রতি বিষয়ে সর্বোচ্চ জিপিএ প্রাপ্ত শিক্ষার্থী, খ. ন্যূনতম জিপিএ ৩.৫, গ. নিয়মিত শিক্ষার্থী।

ঘোষিত ৮টি প্রাক -মডেল কলেজকে সনদপত্র, পুস্তক ও মেধাবী শিক্ষার্থীদের বৃত্তি প্রদানের লক্ষ্যে আগামী ২৮শে সেপ্টেম্বর ২০১৯, শনিবার সকাল ১০টায় ঢাকাস্থ্য আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউট (সেগুনবাগিচা) মিলনায়তনে এক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। উক্ত অনুষ্ঠানে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাননীয় উপমন্ত্রী জনাব মহিবুল হাসান চৌধুরী এমপি প্রধান অতিথি এবং মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের সিনিয়র সচিব জনাব মো. সোহরাব হোসাইন বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন।

পোষ্টটি লিখেছেন: লেখাপড়া বিডি ডেস্ক

লেখাপড়া বিডি ডেস্ক এই ব্লগে 1083 টি পোষ্ট লিখেছেন .

লেখাপড়া বিডি বাংলাদেশের প্রথম শিক্ষা বিষয়ক বাংলা কমিউনিটি ব্লগ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *