আসুন, দর্শক হিসেবে চ্যাম্পিয়ন হই

ঈদ মানে শৈশবের স্মৃতি। আমাদের রংপুর পিটিআইয়ের ধূলিধূসরিত প্রাঙ্গণ ঢাকা থাকত চোরকাঁটায়। হাফপ্যান্ট পরে মাঠে গিয়ে ফুটবল খেলে ফিরে আসার পর প্যান্ট ভরে থাকত চোরকাঁটার দানা কিংবা কাঁটা। আমরা বলতাম ওকড়া।

বৃষ্টির দিনে মাঠে পানি জমত, পুকুর থেকে, কিংবা শ্যামাসুন্দরী খাল থেকে উজিয়ে উঠত ডানকিনে মাছ। কৃষ্ণচূড়ার ডাল ভেঙে পড়ত সামান্য বাতাসে। আর সেই বৃষ্টিভাসা মাঠে চলত আমাদের কর্দমাক্ত ফুটবল। কিন্তু ঈদের বিকেলে? অবধারিত ক্রিকেট টুর্নামেন্ট।

পাড়ার ছেলেরা দুই ভাগে ভাগ হয়ে গাছের ডাল কেটে বানানো ব্যাট, উইকেট এবং টেনিস বল দিয়ে চলত ক্রিকেট। আজ বহুদিন পর ঈদ এবং ক্রিকেট এক হয়ে গেছে আমাদের জন্য।

যেবার বাংলাদেশে বিশ্বকাপের আসর বসেছিল, সেবার লিখেছিলাম, আসুন আমরা দর্শক হিসেবে চ্যাম্পিয়ন হই। ওয়েস্ট ইন্ডিজের কাছে ৫৮ রানে বাংলাদেশ অলআউট হয়ে যাওয়ার পরে মেরুনজার্সিদের বাসে পড়ল ঢিল, আর ক্রিস গেইল টুইটারে সেই তথ্য জানিয়ে দিলেন দুনিয়াময়। খুব লজ্জা পেয়েছিলাম আমরা।

তারপর আমাদের এই একটা বিশেষ প্রচারই ছিল মুখ্য, ক্রিকেটে কে জিতবে, তা আমাদের হাতে নেই। আমাদের হাতে যা আছে তা হলো আমরা নিজেরা সুন্দর হতে পারি, ভালো হতে পারি, চ‌্যাম্পিয়ন হতে পারি। আমরা মানে বাংলাদেশের মানুষেরা।

পোষ্টটি লিখেছেন: Md.fazlur rahman

এই ব্লগে 3 টি পোষ্ট লিখেছেন .

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *