অসীম শূন্যতা ____মো. এমদাদ ইমন এর কবিতা

জামাইয়ের নামে মেরে হাঁস গুষ্টি সুদ্ধো খায় মাস-
অনুতাপে সাহস বাড়ে যদিও নীরবতা ভূষন!
বহুদিন লিখিনা-
লিখবো কেমন করে?
নিউরনে কালির উৎপত্তি বন্ধ হয়ে গেছে-ভালবাসার যোগান কমে গেলে নিউরন শুদ্ধ-অশুদ্ধ কোনকিছুই উৎপাদন করেনা-
শুধু কি কালির অভাব?উহু,খাতারও অভাব-হৃদয়ে যে অত্যাধিক দাগ পড়েছে!তাই খাতার কাজ করতে পারছে না।

অবাক,
খুব অবাক লাগে-পুরো মানবদেহ একটা দুনিয়া-তাইনা?
সময় করে ঝড় বয়ে যায় হৃদয়ে,সুখের সমুদ্রে দুঃখের ঢেউ বইতেও সময় লাগেনা।
হৃদয়ে তো আগ্নেয়গিরিও আছে-মাঝেমধ্যেই অগ্নুৎপাত হয়…আমার বেলায় তো বেশিই হয়।
মাঝেমাঝে আনন্দের অনুভূতিতে মিল্কিওয়ে গ্যালাক্সির শেষ সীমানাও অতিক্রম করে ফেলে হাজার মিলিয়ন আলোকবর্ষ গতিতে!
আর ভালবাসা তো ঐ ধ্রুব তারার গন্ডিতেই সীমাবদ্ধ।
চাইলেও অতিক্রম করতে পারিনা-
কি জানি মহাকালের ক্ষুদ্র আবিষ্কার হিসাবে কবে যে ব্ল্যাকহোলে জন্ম-জন্মান্তরের জন্য পতিত হয়ে যাই..?

একজোড়া হাত,
হুম সত্যিই একজোড় হাত চাই-
বিশ্বাসের হাত-সকল ঝড়ঝাপটায় নিউরনের উৎপাদন বজায় রাখতে নিয়মিত যোগান দিবে।
হৃদয়ের ক্ষতগুলো উন্নত তুলোর স্পর্শে লিখবার উপযোগি খাতা করে তুলবে!
আরে আমিই,এই আমিই পৃথিবী হতে চাই-লিখতে চাই,অনেককিছু লিখে যেতে চাই।পাঠক?না..না..লাগবেনা-
কারণ প্রত্যেকটা পাঠকই যে আমি।
কবিতা…তুমি হবে?হুম আমার অ’জড় কবিতা হবে?
যতন করে লিখে যাব-
সময় থাকতে কেউ তো চিনে নাও,
মহাবিশ্বের মতো যে আমাকে তুমি চেনো,নিজেকে গুটিয়ে নিতে নিতে সে আমি খুব ক্ষুদ্র হয়ে যাবো!
এ আমাকে চেনার সাধ্যও তোমার থাকবেনা……

ব্ল্যাকহোলে হারিয়ে যেতে দিওনা-
কেউ তো নিউরনে যোগান দাও,নিউরন কি জানো তো?
না জানলেও চলবে-আমি তো জানি!বড্ড পাগল তাইনা?অনেক…সীমাহীন-
আমি আর আমার লিখা কিছু ব্যর্থদের মনের খোরাক হয়ে জন্ম-জন্মান্তর বেঁচে থাকবে..আমি যে নিজেকে গুটিয়ে নিতে চাই-অনেকটা নিয়েছি।

নিজেকে গুটিয়ে নিতে নিতে যেদিন পরমাণুর মতো ক্ষুদ্র হয়ে তারপর মিলিয়ে যাবো সেদিনও কারো কিছু যায় আসবেনা!
তোমার ও না!

পৃথিবীতে মানুষ অকারণে কিছুই করেনা,যার সকল কারণ ফুরিয়ে যায়, তাকে মিলিয়ে যেতে হয় অসীম শূণ্যতায়!!

আমার তো আজকাল কারণ ফুরিয়ে যাওয়ার উপশম দেখা দিয়েছে-
কারণ নেই তো!
শূণ্যতা আর কপালের বিন্দু-বিন্দু ঘামে যে পরিসমাপ্তির বার্তা বয়ে আনে কেউ কি জানো?
যেদিন পরমাণু হয়ে যাব…
ঠিক সেদিন, না কিছুনা…!

একটি ডিনামাইট হবে?
হ্যা,সত্যিই বলছি একটি ডিনামাইট প্রয়োজন ধ্বংস করে দেব প্যাঁচানো নিউরন খন্ডকে!
সবশেষে,
পৃথিবীতে মানুষ অকারণে কিছুই করেনা,যার সকল কারণ ফুরিয়ে যায়, তাকে মিলিয়ে যেতে হয় অসীম শূণ্যতায়!!

পোষ্টটি লিখেছেন: মো. এমদাদ ইমন

মো. এমদাদ ইমন এই ব্লগে 6 টি পোষ্ট লিখেছেন .

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *