যে ৫টি উপায়ে কাটিয়ে উঠবেন পরীক্ষার ভয়ভীতি

exam-fearপরীক্ষা’শব্দটা শুনলে ক্লাসের সবচেয়ে ভাল ছাত্রটিরও বুক কেঁপে উঠে। ভাল ছাত্রের দুশ্চিন্তা সে প্রথম স্থানটি ধরে রাখতে পারবে তো? ঠিক তেমনি খারাপ ছাত্রের চিন্তা পাশ করতে পারবে তো? এই সব চিন্তার স্রোতে ভেসে যায় লক্ষ্য, পরীক্ষা খারাপ হয়। তাই কিভাবে পরীক্ষার সময় দুশ্চিন্তা বা ভীতি(exam fear) সরিয়ে রেখে মাথা ঠাণ্ডা রাখবেন আসুন জেনে নিই।

১) গুছিয়ে রাখুন ঠিকঠাক (keep your study materials arranged):  কি পড়তে হবে, কতটুকু পড়তে হবে, কোন কোন বই থেকে নোট করে পড়তে হবে এগুলো যদি পরীক্ষার আগের দিন রাতে ঠিক করতে বসেন, তবে পরীক্ষা নিয়ে আপনাকে দুশ্চিন্তা করতেই হবে। কখন এসব ঠিক করবেন আর কখন পড়া মুখস্থ করবেন। পড়ুন বা না পড়ুন পরীক্ষার আগেই সব গুছিয়ে রাখুন।

২) মনকে নিয়ন্ত্রণ করুন (try to control your mind)  যা পড়ছেন সব মনে হয় ভুলে যাচ্ছেন। এই ভাবনাটা সবার মনেই আসে। ফলে সামনের কোন পড়া পড়ার সময় সে আবার পেছনে ফিরে যায়। দেখে যে পুরনো পড়াটা মনে আছে নাকি। এইভাবে করলে দুশ্চিন্তায় আপনার কোন পড়াই ভালোভাবে হবে না। যা পড়েছেন তা অবশ্যই মনে আছে , এই ভাবে আত্মবিশ্বাস রেখে পড়ুন।

৩) রাত জাগবেন না (avoid being late-night):  পরীক্ষার সময় অবশ্যই রাতে ঠিক সময়ে বিছানায় যেতে হবে এবং টানা ৭-৮ ঘণ্টা ঘুমাতে হবে। তাহলেই ক্লান্তি থাকবে না, দুশ্চিন্তাও কমে আসবে।

৪) পুষ্টিকর খাবার খান (eat healthy food):  পরীক্ষার সময় ঠিকভাবে খাওয়াদাওয়া না করার ফলে শরীর দুর্বল হয়ে যায়। ফলে অনেকে অল্পতেই কাহিল হয়ে যায়, এই দুর্বলতা থেকে চেপে বসে দুশ্চিন্তা। পুষ্টিসমৃদ্ধ খাবার খান আর মিষ্টি জাতীয় খাবার খান। এতে মস্তিষ্ক সতেজ থাকবে।

৫) পুরনো কথা ভেবে দুশ্চিন্তা করবেন না (forget the past):  পরীক্ষা শেষ হলে আমরা একে অপরের সাথে উত্তর মিলিয়ে দেখি কোনটা হয়েছে কোনটা হয়নি। এভাবে যদি ধরা পরে যে আপনার কোন একটা উত্তর ভুল হয়েছে, সেই দুশ্চিন্তার কারণে আপনার পরের পরীক্ষা খারাপ হতে পারে। পরীক্ষা দিয়ে বের হয়ে এইসব আলোচনা থেকে সযত্নে দূরে থাকুন।  মনে রাখবেন শুধু ভালোভাবে পড়ালেখা করলেই হবে না। সব কিছু নিজের নিয়ন্ত্রণে রেখে, দুশ্চিন্তাকে(exam fear) বিদায় দিয়ে পরীক্ষা দিতে হবে। সফলতা আপনার দোরগোড়ায়, নিশ্চিন্ত থাকুন।

তথ্য সুত্রঃ poramorsho.com

পোষ্টটি লিখেছেন: বি.এম. মুন্না

এই ব্লগে 64 টি পোষ্ট লিখেছেন .

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।