খুবির ভর্তি পরীক্ষায় প্রতি আসনের জন্য লড়বেন ২২ ভর্তিচ্ছু

খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের (খুবি) ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষের প্রথমবর্ষ স্নাতক (সম্মান) শ্রেণির ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে শনিবার (১৭ নভেম্বর)। এরই মধ্যে পরীক্ষার জন্য সব প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে।

ভর্তির জন্য এবার ৬টি স্কুল ও দু’টি ইনস্টিটিউটের আওতায় ২৯টি ডিসিপ্লিনে মোট ১ হাজার ২২৯টি আসনের বিপরীতে ২৭ হাজার ৬৩০ জন ভর্তিচ্ছু আবেদন করেছেন। সে হিসাবে এবার প্রতি আসনের বিপরীতে লড়বেন ২২জন ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থী।

বিশ্ববিদ্যালয়ের তথ্যানুযায়ী, শনিবার সকাল সাড়ে ৮ টা থেকে ১০ টা পর্যন্ত ‘এ’ ইউনিটের অধীন বিজ্ঞান, প্রকৌশল ও প্রযুক্তিবিদ্যা স্কুল এবং জীব বিজ্ঞান স্কুলের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। দুপুর ১২ টা থেকে দেড়টা পর্যন্ত ‘বি’ ইউনিটের অধীন কলা ও মানবিক স্কুল, সমাজ বিজ্ঞান স্কুল, আইন স্কুল, চারুকলা ইনস্টিটিউট এবং শিক্ষা ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

তবে শুধুমাত্র চারুকলা ইনস্টিটিউটের জন্য ভর্তি পরীক্ষা দুপুর ১২ টা থেকে ২ টা পর্যন্ত অনুষ্ঠিত হবে। বিকেল ৩ টা থেকে সাড়ে ৪ টা পর্যন্ত ‘সি’ ইউনিটের অধীন ব্যবস্থাপনা ও ব্যবসায় প্রশাসন স্কুলেরভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

বৃহস্পতিবার (১৫ নভেম্বর) সন্ধ্যায় বাংলানিউজকে এসব তথ্য জানান খুবির জনসংযোগ ও প্রকাশনা বিভাগের পরিচালক (ভারপ্রাপ্ত)এস এম আতিয়ার রহমান।

তিনি জানান, এবার খুবির মূল কেন্দ্রে রোল নম্বর-০০০০১ থেকে ০৫০৬৪ পর্যন্ত এবং খুলনা প্রকৌশল ও প্রযু্ক্তি বিশ্ববিদ্যালয় উপ-কেন্দ্রে রোল নম্বর- ০৫০৬৫ থেকে ১২১০০ পর্যন্ত পরীক্ষার্থীদের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

এবার ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষে স্নাতক/স্নাতক (সম্মান) প্রথম বর্ষে ভর্তির জন্য ৬ টি স্কুল ও দু’টি ইনস্টিটিউটের আওতায় ২৯টি ডিসিপ্লিনে মোট ১ হাজার ২২৯ আসনের বিপরীতে ভর্তির জন্য ২৭ হাজার ৬৩০ জন শিক্ষার্থী ভর্তির জন্য আবেদন করেছেন। অর্থাৎ আসন প্রতি আবেদনকারীর সংখ্যা ২২ জন।

কোনো পরীক্ষার্থী ক্যাম্পাসে বা কুয়েট উপ-কেন্দ্রে মোবাইল ফোন বা কোনো প্রকার ইলেক্ট্রনিক্স ডিভাইস নিয়ে ভর্তি পরীক্ষায় প্রবেশ করতে পারবে না, কর্তৃপক্ষ মোবাইল ফোন সংরক্ষণের কোনো ব্যবস্থা নেবে না এবং পরীক্ষা কেন্দ্রে পরীক্ষার্থীদের মুখমণ্ডল ও কান অনাবৃত রাখার নির্দেশ। পাশাপাশি ভর্তি পরীক্ষায় দায়িত্বরত অবস্থায় শিক্ষক ও কর্মচারী মোবাইল ফোন ব্যবহার করতে পারবেন না বলেও জানানো হয়।

পরীক্ষার দিন গল্লামারী ব্রিজ থেকে জিরোপয়েন্ট পর্যন্ত সকাল ৭ টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত সব প্রকার যানবাহন চলাচল বন্ধ থাকবে। গাড়ি পার্কিংয়ের জন্য জিরোপয়েন্ট এবং তার আশপাশের এলাকা ব্যবহারের সুবিধা রাখা হবে। এ সময় বিকল্প পথ হিসেবে সোনাডাঙ্গা বাইপাস হয়ে রূপসা সংযোগ সড়ক দিয়ে জিরোপয়েন্ট হয়ে যানবাহন চলাচল করতে পারবে।

এদিকে পরীক্ষার দিন ক্যাম্পাস ও ক্যাম্পাসের বাইরে আশপাশের নিরাপত্তা ও শৃঙ্খলা রক্ষায় অতিরিক্ত পুলিশ, গোয়েন্দা সংস্থা, র‌্যাব ও সাদা পোশাকে নিরাপত্তা সদস্যদের এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের বিএনসিসি নিয়োজিত থাকবে।

পোষ্টটি লিখেছেন: লেখাপড়া বিডি ডেস্ক

লেখাপড়া বিডি ডেস্ক এই ব্লগে 936 টি পোষ্ট লিখেছেন .

লেখাপড়া বিডি বাংলাদেশের প্রথম শিক্ষা বিষয়ক বাংলা কমিউনিটি ব্লগ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *