১৩৭৮ সহকারী শিক্ষক পদের বিপরীতে আবেদন করেছে আড়াই লাখ প্রার্থী

সরকারি কর্ম কমিশন (পিএসসি)সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে নন-ক্যাডার সহকারী শিক্ষকের ১ হাজার ৩৭৮টি পদের বিপরীতে আবেদন জমা পড়েছে দুই লাখ ৪৮ হাজার ৩২২ জনের।

সরকারি কর্ম কমিশন (পিএসসি) থেকে এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

গত ৯ সেপ্টেম্বর এ নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি জারি করে পিএসসি। গত ৮ অক্টোবর সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত অনলাইনে আবেদন গ্রহণ করা হয়।

প্রসঙ্গত, সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে সহকারী শিক্ষক পদটিতকে দ্বিতীয় শ্রেণির মর্যাদা দেওয়ার পর প্রথমবারের মতো সরাসরি এ নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে পিএসসি। বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, বাংলায় ৩৬৫ জন, ইংরেজিতে ১০৬ জন, গণিতে ২০৫ জন, সামাজিক বিজ্ঞানে ৮৩ জন, ভৌতবিজ্ঞানে ১০ জন, জীববিজ্ঞান ১১৮ জন, ব্যবসায় শিক্ষায় আট জন, ভূগোলে ৫৪ জন, চারুকলায় ৯২ জন, শারীরিক শিক্ষায় ৯৩ জন, ধর্মে ১৭২ জন এবং কৃষি শিক্ষায় ৭২ জন সহকারী শিক্ষক নিয়োগ দেওয়া হবে।

পরীক্ষা পদ্ধতি

পিএসসি জানায়, সরকারি কর্ম কমিশনের মাধ্যমে এই পদে নিয়োগ দেওয়া হবে। নিয়োগ পরীক্ষা হবে দুই ধাপে— লিখিত ও মৌখিক । লিখিত পরীক্ষা হবে এমসিকিউ বা বহু নির্বাচনী পদ্ধতিতে। পরীক্ষার পূর্ণমান ২০০ নম্বর, সময় ২ ঘণ্টা। এর মধ্যে বাংলা বিষয়ে ৫০টি, ইংরেজি ৫০টি, সাধারণ জ্ঞানে বাংলাদেশ ও আন্তর্জাতিক বিষয়াবলি থেকে ৪০টি এবং গণিত ও মানসিক দক্ষতায় ৬০টি প্রশ্ন থাকবে।

প্রতিটি প্রশ্নের সঠিক উত্তরের জন্য ১ নম্বর পাওয়া যাবে। প্রত্যেক ভুল উত্তরের জন্য কাটা যাবে ০.৫০ নম্বর। লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণদের কাগজপত্র যাচাই-বাছাই শেষে ডাকা হবে মৌখিক পরীক্ষায়। এ অংশে বরাদ্দ ৫০ নম্বর। মৌখিক পরীক্ষায় পাস করতে হলে কমপক্ষে ২০ পেতে হবে। মৌখিক পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হলে যাচাই-বাছাই শেষে চূড়ান্তভাবে নিয়োগ দেওয়া হবে।

পোষ্টটি লিখেছেন: লেখাপড়া বিডি ডেস্ক

লেখাপড়া বিডি ডেস্ক এই ব্লগে 914 টি পোষ্ট লিখেছেন .

লেখাপড়া বিডি বাংলাদেশের প্রথম শিক্ষা বিষয়ক বাংলা কমিউনিটি ব্লগ।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।