ইন্টারনেটের গতি কমানোর নির্দেশনা প্রত্যাহার

প্রশ্নফাঁস এড়াতে পরীক্ষার দিন ইন্টারনেটে ধীরগতি ইন্টারনেটের গতি সীমিত রাখার নির্দেশনা দিয়েছিলো বিটিআরসি। গতি কমানোর নির্দেশনা জারির একদিন পর সেই নির্দেশনা প্রত্যাহার করেছে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি)। ১২ ফেব্রুয়ারি সকালে বিটিআরসি সচিব মো. সরওয়ার আলম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, “আপাতত সরকারি নির্দেশনা প্রত্যাহার করা হয়েছে। পরবর্তী নির্দেশনা না আসা পর্যন্ত ইন্টারনেট সেবা স্বাভাবিক থাকবে।”

রোববার নির্দেশনা জারির পর পরীক্ষামূলকভাবে রাত ১০টা থেকে সাড়ে ১০টা পর্যন্ত ইন্টানেট বন্ধ রাখা হয়। নির্দেশনা অনুযায়ী ইন্টারনেট সার্ভিস প্রোভাইডার (আইএসপি) ও মোবাইল অপারেটরগুলোকে এসএসসি পরীক্ষা চলাকালীন দিনগুলোতে ২৫ কেবিপিএস গতিতে মোবাইলে ইন্টারনেট সেবা দিতে বলা হয়েছিল।

এর আগে একই দিন সকাল ৮টা থেকে সাড়ে ১০টা পর্যন্ত মোবাইলে ইন্টারনেট সেবা বন্ধ থাকে। চলমান এসএসসি পরীক্ষার প্রশ্ন একের পর এক ফাঁস হওয়ার পরিপ্রেক্ষিতে এমন নির্দেশনা জারি করা হয়।

নির্দেশনা অনুযায়ী ১১ ফেব্রুয়ারি রাত ১০টা থেকে সাড়ে ১০টা পর্যন্ত ১২, ১৩, ১৫ ১৭, ১৮, ১৯, ২০, ২২ ও ২৪ ফেব্রুয়ারি সকাল ৮টা থেকে সাড়ে ১০টা পর্যন্ত এবং ১৮ ফেব্রুয়ারি দুপুর ১২টা থেকে আড়াইটা পর্যন্তও ইন্টারনেটে ধীরগতি থাকার কথা ছিলো।

পোষ্টটি লিখেছেন: লেখাপড়া বিডি ডেস্ক

লেখাপড়া বিডি ডেস্ক এই ব্লগে 850 টি পোষ্ট লিখেছেন .


Ads by Wizards

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।