এইচ.এস.সি প্রস্তুতি – বিড়াল

বিড়াল

লেখক পরিচিতি:

  • নাম :বঙ্কিমচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়
  • জন্ম:২৬ জুন,১৮৩৮
  • জন্মস্থল :পশ্চিমবঙ্গের চব্বিশ পরগনা জেলার কাঁঠালপাড়া গ্রাম
  • উপাধি:সাহিত্য সম্রাট
  • ছদ্মনাম:কমলাকান্ত
  • পেশা:ডেপুটি ম্যাজিস্ট্রেট
  • সম্পাদিত পত্রিকা :বঙ্গদর্শন(১৮৭২)
  • প্রথম কাব্য:ললিতা তথা মানস (১৮৫৬)
  • উপন্যাস:১৪টি
  • গ্রন্থ সংখ্যা:৩৪টি
  • প্রথম উপন্যাস:দুর্গেশনন্দিনী
  • রাজনৈতিক উপন্যাস: মৃণালিনী
  • মনস্তত্ত্ব উপন্যাস:রজনী
  • সামাজিক উপন্যাস:বিষবৃক্ষ,কৃষ্ণকান্তের উইল
  • ঐতিহাসিক উপন্যাস:রাজসিংহ
  • রোমান্সধর্মী উপন্যাস: কপালকুণ্ডলা
  • সর্বশেষ উপন্যাস:রজনী
  • প্রবন্ধ :সাম্য, বিবিধ প্রবন্ধ, লোকরহস্য, কৃষ্ণচরিত্র,কমলাকান্তের দপ্তর
  • ইংরেজি উপন্যাস: rajmohons wife
  • হিন্দু ধর্মানুরাগীদের থেকে ঋষি আখ্যা লাভ করেন।
  • ১৮৫৮ সালে বিএ পরীক্ষায় উত্তীর্ণ প্রথম স্নাতক দের একজন
  • মারা যান ৫৬ বছর বয়সে
  • মৃত্যু:: ৮ এপ্রিল, ১৮৯৪

 

রচনার উৎস:

  • প্রবন্ধটি কমলাকান্তেদর দপ্তর গ্রন্থ থেকে সংকলিত।
  • গ্রন্থটি ১৮৭৫ সালে প্রকাশিত হয়
  • ভাষা:সাধুরীতি
  • উত্তম পুরুষের দৃষ্টিকোণে রচিত
  • রস:রম্যরস
  • প্রথম অংশ:নিখাদ হাস্য রসাত্মক
  • দ্বিতীয় অংশ:গূঢ়ার্থে রচিত
  • প্রধান চরিত্র : কমলাকান্ত, বিড়াল
  • মূল প্রতিপাদ্য : দরিদ্রের অধিকার প্রাপ্তি

 

প্রবাদ বাক্য: ৩টি

  • কেহ মরে বিল ছেঁচে,কেহ খায় কই
  • পরোপকারই পরম ধর্ম”
  • তেলা মাথায় তেল দেয়া”

 

সংখ্যাবাচক তথ্য:

  • প্রবন্ধে ঐতিহাসিক চরিত্র -২টি ( নেপোলিয়ন, ওয়েলিংটন)
  • মেও শব্দটি ব্যবহার হয়-১৩ বার
  • বিড়াল প্রবন্ধে উল্লেখিত প্রবন্ধের সংখ্যা-৩ টি
  • বিড়াল শব্দটি আছে-৯ বার
  • হুকা শব্দটি আছে-৫ বার
  • মার্জার শব্দটি আছে-১১ বার
  • উপবাস করতে বলা হয়েছে- ৩ দিন
  • কমলাকান্তের দপ্তর বিভক্ত-৩টি অংশে

 

বিড়াল সম্পর্কিত তথ্য:

  • কমলাকান্ত কার কথা ভাবছিল -নেপোলিয়ন
  • নেপোলিয়ন মারা যান-১৮২১ সালে
  • ভান্ডারঘরটি-নসীরামবাবুর
  • আফিম-ইংরপজি শব্দ
  • বিড়াল মেও মেও করে-প্রাচীরে প্রাচীরে
  • বিড়াল দূরদর্শী বলেছে-কমলাকান্তকে
  • সমাজ বিশৃঙ্খলার মূল-মার্জারের কথা
  • সতরঞ্জ মানে-পাশা খেলা
  • বিড়াল খেয়েছে-কমলাকান্তের জন্য রাখা দুধ
  • ওয়াটারলু যুদ্ধ হয়-১৮১৫ সালে
  • নেপোলিয়ন জন্ম নেয়-১৭৬৯ সালে
  • সামাজিক ধনবৃদ্ধি মানে ধনীদের ধন বৃদ্ধি
  • কমলাকান্ত চারপায়ীর উপর বসে ঝিমাচ্ছিল
  • কমলাকান্ত নিমীলিত লোচনে ওয়াটারলু যুদ্ধের কথা ভাবছিল
  • কমলাকান্ত ওয়েলিংটন ভেবেছিল মার্জারকে
  • কমলাকান্তের জন্য প্রসন্ন দুধ রেখেছিল
  • গাভীর নাম-মঙ্গলা
  • জলযোগ-হালকা খাবার
  • কমলাকান্তেরর সহায়-বিড়াল
  • বিড়াল অভাবী মানুষের প্রতীক
  • কমলাকান্ত ধনীদের প্রতীক
  • ক্ষুদ্র আলো জলছিল মিট মিট করে
  • চোর অপেক্ষা শতগুণে দোষী কৃপন ধনী
  • নেপোলিয়ন মারা যন সেন্ট হেলেনা দ্বীপে
  • নেপোলিয়ন আধিপত্য বিস্তার করে ইউরোপে
  • কমলাকান্ত অনেক অনুসন্ধানে ভগ্ন যষ্ঠি আবিষ্কার করল
  • বিড়াল নিজেকে বলেছে বিজ্ঞ চতুষ্পদ
  • পরাস্ত হলে বিজ্ঞ লোক উপদেশ দেয়
  • মনুষ্যকুলে কমলাকান্ত কুলাঙ্গার হতে চায় না
  • রচনায় বঙ্কিমের ভাষা শ্লেষাত্মক
  • তেলা মাথায় তেল দেয়া মনুষ্যজাতির রোগ
  • পতিত আত্মা বলা হয়- মার্জারকে
  • বিড়ালের প্রশ্ন বুঝে কমলাকান্ত ভগ্ন যষ্ঠি ত্যাগ করল
  • কমলাকান্তের মতে মার্জার সুবিচারক ও সুতার্কিক
  • চিরাগত প্রথা অবমাননা করলে কমলাকান্ত মনুষ্যকুলে কুলাঙ্গার বলে বিবেচিত হবে আর
  • বিড়াল স্বজাতি মন্ডলে কাপুরুষ বলে উপহাস করবে।
  • ধনীর ধনবৃদ্ধি হলে বিড়ালের ক্ষতি নেই।
  • কমলাকান্ত বিড়ালকে ধর্মাচরণে মন দিতে বলেন।
  • কমলাকান্ত বিড়ালকে নিউম্যান ও পার্কের গ্রন্থ পড়তে বলেন।
  • আহার হয়নি বলে কমলাকান্ত হুঁকাহাতে নিমীলিতলোচনে ভাবছিল
  • শিরোমনি বলতে বোঝায় -সমাজপতি
  • আহারাভাবে বিড়ালের অবস্হা -উদর কৃশ, লাঙ্গুল বিনত,অস্হি পরিদৃশ্যমান, জিহ্বা ঝুলে গেছে।
  • বিড়াল কিছু খেলে শাস্ত্রানুসারে মারতে হয়।
  • বিড়াল কমলাকান্ত কে প্রহার না করে প্রশংসা করতে বলে।
  • চোরের দন্ড হলে দন্ড হওয়া উচিত কৃপন ধনীর।
  • চুরি করার প্রয়োজন নেই বলে সাধুরা চুরি করেন না।
  • কমলাকান্ত বিড়ালের কথা বুঝতে পারে দিব্যকর্ণ প্রাপ্ত হয়ে।
  • দুধের উপর কমলাকান্ত ও বিড়াল উভয়ের সমান অধিকার
  • মানুষ ও বিড়ালে প্রভেদ নেই-ক্ষুৎপিপাসার দিক হতে
  • বিড়াল পরিতৃপ্ত হওয়ার কারনে অতি মধুর স্বরে মেও বলেছে
  • বিড়াল কমলাকান্তপর তাড়া খেয়ে হাই তুলে সরে বসল

 

গুরুত্বপূর্ণ উক্তি

  • জলযোগের সময় আসিও উভয়ে ভাগ করিয়া খাব-কমলাকান্ত বিড়ালকে,মানবিকতা প্রকাশ।
  • অতএব তুমি সেই পরম ফলভোগী- কে??- কমলাকান্ত
  • মার্জারী কমলাকান্তকে চিনিত-উক্তিটি প্রাবন্ধিকের
  • চোরের দন্ড আছে নির্দয়তার কি দন্ড নেই-বিড়াল
  • অনাহারে মরিবার জন্য কেহ এ পৃথিবীতে আসে নাই-বিড়াল
  • দেখ হে শয্যাশায়ী মনুষ্য -কে?-কমলাকান্ত
  • আমি তোমার ধর্ম সঞ্চয়ের মূলীভূত কারণ- বিড়ালের
  • মারপিট কেন??-উক্তিটি বিড়ালের
  • তোমরা এতদিনে কথাটি বুঝিতে পারিয়াছ-কেন কথা-চতুষ্পদের কাছে শিক্ষা লাভ ছাড়া উপায় নেই
  • পরোপকারই পরম ধর্ম-বিড়ালের
  • তোমরা আমার কাছে উপদেশ গ্রহন করো-বিড়াল
  • আর আমাদিহের দশা দেখ-এখানে আমাদিগের দশা হচ্ছে-বঞ্চিত,নিষ্পেষিত,দলিত মানুষের
  • খাইতে দাও নাহলে চুরি করিব-অন্যায়ের প্রতিবাদ
  • সামাজিক ধনবৃদ্ধি ব্যতীত সমাজের উন্নতি নাই- কমলাকান্তের
  • তবে ছোটলোকের দুঃখে কাতর!ছি! কে হইবে- ছোটলোক বলা হয়েছে-দরিদ্রকে
  • এ পৃথিবীর মৎস-মাংসে আমাদের কিছু অধিকার রয়েছে-মর্মাথ সমর্থনযোগ্য- স্বাধিকার চেতনা
  • এ সংসারে সকলই তোমরা পাইবে আমরা কিছু পাইব না কেন??- ক্ষোভ প্রকাশ পেয়েছে…….

পোস্ট টা পড়ার সময় বোর্ড বইটা সাথে পড়ে নিও।।আর শব্দার্থ ও টীকাসমূহ তোমরা সবাই নিজ দায়িত্বে পড়ে নিও।। প্রবন্ধ ও কবিতার সবকিছু আলোচনা করা সম্ভব না তাই আমি যতটুকু সম্ভব আলোচনা করার চেষ্ঠা করলাম।।

  • এইচ.এস.সি বাংলা ১ম পত্রের সকল লেকচারশীট পেতে ভিজিট করুনঃ www.perfectschool.cf
  • পারফেক্ট স্কুলের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুনঃ www.facebook.com/perfectschool.cf

পোষ্টটি লিখেছেন: ROCKY RAJ

এই ব্লগে 19 টি পোষ্ট লিখেছেন .

এল.এল.বি (অনার্স) চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়।


Ads by Wizards

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।