ঢাবি ঘ ইউনিটের পুনঃভর্তি পরীক্ষার ফল প্রকাশ, পাস ৬১.১%

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদভুক্ত ‘ঘ’ ইউনিটের পুনঃভর্তি পরীক্ষার ফল প্রকাশ করা হয়েছে। এতে মোট ৬১ দশমিক ১ শতাংশ শিক্ষার্থী পাস করেছেন।
DU_NEW_logo_247868977

 

মোবাইল থেকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের “ঘ” ইউনিটের ফলাফল দেখার নিয়মঃ

যেকোনো মোবাইল অপারেটর থেকে DU স্পেস দিয়ে GHA স্পেস দিয়ে Roll Number টাইপ করে ১৬৩২১ নম্বরে সেন্ড করলে ফিরতি এসএমএস-এ ফলাফল জানতে পারবেন।

অনলাইনে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের “ঘ” ইউনিটের ফলাফল দেখার নিয়মঃ

অনলাইনে ফলাফল দেখতে http://admission.eis.du.ac.bd ঠিকানায় আপনার উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার রোল নম্বর, বোর্ডের নাম পাসের সন এবং মাধ্যমিক পরীক্ষার রোল নম্বরের মাধ্যমে লগইন করতে হবে।

এর আগে ১৬ নভেম্বর পুনরায় ‘ঘ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। এতে মোট ১৮ হাজার ৪৬৩ পরীক্ষার্থীর মধ্যে ১৬ হাজার ১৮১ জন পরীক্ষায় অংশ নেন। এর মধ্যে উত্তীর্ণ হয়েছেন ৯ হাজার ৮৮৬ জন। এর মধ্যে বিজ্ঞানে ৬ হাজার ৮১৪ জন, মানবিকে এক হাজার ৯০০, ব্যবসায় শিক্ষায় এক হাজার ১৭২ জন।

উত্তীর্ণ সব শিক্ষার্থীকে ২০ থেকে ২৭ নভেম্বর পর্যন্ত ভর্তি পরীক্ষার ওয়েবসাইটে বিস্তারিত ও বিষয় পছন্দক্রম ফরম পূরণ করতে বলা হয়েছে।

এছাড়া একই সময়ে কোটায় উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীদেরও সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডিন অফিস থেকে সংগ্রহ করে সঠিকভাবে পূরণ করে ডিন অফিসেই জমা দেওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। আর ফল নিরীক্ষণের জন্য ফি প্রদান সাপেক্ষে ২৫ নভেম্বরের মধ্যে সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডিন অফিসে আবেদন করা যাবে।

এদিকে বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবার সংবাদ সম্মেলন করে ফল ঘোষণা করে মেধা তালিকাসহ বিস্তারিত তথ্য দিলেও এবার আনুষ্ঠানিকভাবে কিছুই প্রকাশ করা হয়নি। সোমবার দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ দফতরের পাঠানো এক প্রেসবিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, বিকেল ৫টায় ওয়েবসাইটে ‘ঘ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষার ফল ঘোষণা করা হবে।

এবার ‘ঘ’ ইউনিটের প্রথম দফা ভর্তি পরীক্ষা হয় গত ১২ অক্টোবর। সেদিন পরীক্ষা শুরুর পৌনে এক ঘণ্টা আগে হাতে লেখা প্রশ্নপত্রের ১৪টি ছবি এক শিক্ষার্থীর মোবাইল ফোনে পাওয়া যায়। এ ঘটনায় তদন্ত কমিটি গঠন করে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

তদন্তে প্রশ্নপত্র ফাঁসের বিষয়টি স্বীকার করে নিলেও পরীক্ষার ফল প্রকাশ করে কর্তৃপক্ষ। সেখানে দেখা যায় ‘ঘ’ ইউনিটের প্রথম ১০০ জনের তালিকায় থাকা অন্তত ৭০ জন ভর্তিচ্ছু অন্য ইউনিটে ভর্তি পরীক্ষা দিয়ে উত্তীর্ণই হতে পারেননি।

আইন বিভাগের এক ছাত্র ফল বাতিলের দাবিতে রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশে অনশন শুরু করলে শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা সরব হয়ে ওঠেন। কোটা সংস্কার আন্দোলনকারীদের প্ল্যাটফর্ম বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদও ‘ঘ’ ইউনিটের ফল বাতিলের দাবিতে সংহতি জানায়। পরীক্ষা বাতিলের দাবি জানায় ছাত্রলীগও।

ওই ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নিয়ে অকৃতকার্য হওয়া এক শিক্ষার্থীর বাবা ফল বাতিল চেয়ে হাইকোর্টে একটি রিট আবেদন করেন। এরই মধ্যে ওই রিট আবেদন খারিজ করে দেন হাইকোর্ট।

এর মাঝে প্রশ্নপত্র ফাঁসে জড়িত সন্দেহে ছয়জনকে গ্রেফতার করে পুলিশ। পরে ঘোষিত ফলাফলে উত্তীর্ণ ১৮ হাজার ৪৬৪ জন শিক্ষার্থীকে নতুন করে পরীক্ষা করার ঘোষণা দেয় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

উত্তীর্ণ পরীক্ষার্থীদের মধ্যে এই ইউনিটে এক হাজার ৬১৫ জন ((বিজ্ঞানে ১১৫২টি, বিজনেস স্টাডিজে ৪১০টি ও মানবিকে ৫৩টি) শেষ পর্যন্ত সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদভুক্ত এই ইউনিটের বিভিন্ন বিভাগে ভর্তি হওয়ার সুযোগ পাবেন।

পোষ্টটি লিখেছেন: আল মামুন মুন্না

আল মামুন মুন্না এই ব্লগে 589 টি পোষ্ট লিখেছেন .

আল মামুন মুন্না, বাংলাদেশের প্রথম শিক্ষা বিষয়ক বাংলা কমিউনিটি ব্লগ সাইট "লেখাপড়া বিডি"র প্রতিষ্ঠাতা ও পরিচালক হিসেবে নিয়োজিত আছেন। সম্প্রতি জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীন যশোর সরকারী এম. এম. কলেজ থেকে ফিন্যান্স এন্ড ব্যাংকিং বিষয় নিয়ে বি.বি.এ অনার্স সম্পন্ন করে আজম খান সরকারী কমার্স কলেজে এমবিএ করছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *