শাহাবাজপুর ইউ / সি উচ্চ বিদ্যালয়ের ১ম পুনর্মিলনী ২০১৬ , তারিখ ৯ জুলাই ২০১৬

হয়ে গেল শাহাবাজপুর ইউ /সি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রথম পুনর্মিলনী২০১৬ দিনটি ছিল শনিবার, ঈদের তৃতীয় দিন, ৯জুলাই ২০১৬। এজন্য   ২২ মে শবে বরাতে  দিনে প্রথম মিটীং করা হয়। মিটীং আমরা ঢাকাস্থ যারা ছিলাম তাদের মধ্যে আতিক, এস,এ , মাহমুদ, আরিফুল ইসলাম, শাওন, তোহিদুল ইসলাম, রুবেল,শাহীন,ইমতিয়াজ সহ আরো অনেকে। আমাদের যেহেতু কোন টাকা ছিল না , তাই শুরুটা করেছিলাম প্রতি ব্যাচ থেকে একজন প্রতিনিধি নিয়ে। ফেসবুক এ সরগরম ছিল শাওন, রিয়া,এস,এ ,মাহমুদ, দিনার, আতিক , আরিফুল ইসলাম, বাসির ভাই ও আসাদ ভাই সহ আরো অনেকে।

১। ২০০৪ এর প্রতিনিধি ছিল আসাদ, বাশির
২। ২০০৫ এর প্রতিনিধি ছিল জাহাংগীর
৩। ২০০৬ এর প্রতিনিধি ছিল জাহাংগীর, ওহীদুর
৪।২০০৭ এর প্রতিনিধি ছিল আরিফুল , আতিক, মোনায়েম
৫। ২০০৮ এর প্রতিনিধি ছিল দিনার আল মাসুফ
৬। ২০০৯ এর প্রতিনিধি ছিল সুজা উদ্দিন বাদশা
৭।২০১০ এর প্রতিনিধি ছিল এস,এ, মাহমুদ,
৮। ২০১১ এর প্রতিনিধি ছিল সুমন রেযা
৯।২০১২ এর প্রতিনিধি ছিল রাইহান, শাওন
১০।২০১৩ এর প্রতিনিধি ছিল শামীম আহমেদ
১১। ২০১৪এর প্রতিনিধি ছিল ইব্রাহীম আলি
১২। ২০১৫ এর প্রতিনিধি ছিল মুস্তাফিজুর রহমান
সহ আরো অনেকে।

টাকা সংগ্রহের যারা দায়িত্বে ছিল তাদের কে বলা হয়েছিল জুন মাসের ২০ তারিখের মধ্যে হিসেব জমা দিতে। কিন্তু লক্ষ্যমাত্রা অর্জিত না হওয়াই মেয়াদ ৩০ জুন পর্যন্ত বাড়ানো হয়। এর মধ্যে আমাদের প্রতিটা ইভেন্ট এর বীপরিতে কমিটি দেয়া হয়।
আমাদের ইভেন্ট গুলো ছিল ……
১। টি-শার্ট
২। দুই দিন ধরে স্কুল সজ্জিতকরন
৩। দুপুরের খাবার
৪। সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান
১। টি -শার্ট এর দায়িত্বে ছিল আরিফুল ইসলাম , মোনায়েম।
৩৫০ পিস টি শার্ট বানানো হয়েছিল
২। দুই দিন ধরে স্কুল সজ্জিতকরন এ ছিল ……………।
তরিকুল স্যার, আতিক, অহেদুর, বাবুল, আসাদুল, ফরহাদ, নাসির, শাহ আলম, বাবু, ইমতিয়াজ, আব্দুর রহিম, খলিল, মিজানুর সহ আরো অনেকে। তবে সব চেয়ে বেশি পরিশ্রম করেছে আতিক।
৩।দুপুরে খাবার এ ছিল ……..
হারুন স্যার, শফিকুল স্যার, দিনার আল মাসুফ, বাদশা, শামিউল ইসলাম সুজন, মোনায়েম, জুয়েল রানা , মাসুদ রানা, ফয়সাল আহমেদ আসিফ,
শাহীন আলম, নাঈম আসাদ সহ আরো অনেকে , এটি মোট্মুটি গতিশীল ছিল। দিনার আল মাসুফ ও সুজাউদ্দিন ভাল সক্রিয় ছিল।
৪। সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান এ ছিল আব্দুল মান্নান স্যার, এস, এ , মাহমুদ, শাওন, রিয়া,আরিফুল, রশিদ , বেনজির আলাওল। এখানে মোট্মুটি সবাই পরিশ্রম করেছে, সব চেয়ে ভাল লেগেছে ইলিয়াস স্যার ও মান্নান স্যার এর গম্ভীরা।
৫। টাকার হিসেবের দায়িত্বে ছিল শফিকুল স্যার, আসাদ , জাহাংগীর, এস, এ, মাহমুদ। তবে টাকা সংগ্রহের জন্যে নিবেদিত ছিল আতিক, এস, এ, মাহমুদ, আসাদ , রাইহান , শাওন সহ আরো অনেকে।

এখানের সার্বিক উপদেষ্টা  হিসেবে ছিল…
১। বাশির ভাই
২। আসাদ ভাই
৩। জাহাংগীর ভাই
৪। জাহাংগীর আলম বাবু ভাই
৫। নার্গিস ম্যাডাম সহ আরো অনেকে
আর আহবায়ক হিসেবে  যারা ছিল,  অনুষ্ঠান সফল করার  জন্য অক্লান্ত পরিশ্রম করেছ তারা হল……
১। এস,এ, মাহমুদ
২। দিনার আল মাসুফ।
৩। সুজাউদ্দিন বাদশা।
৪। আরিফুল ইসলাম
৫। রাইহান আহমেদ শুভ
৬। শাওন আহমেদ
৭। তহুর আহমেদ আতিক
৮। নাজরিন নাহার রিয়া
৯। জাহাংগীর আলম
১০। সুমন রেজা
১১। ইব্রাহীম আলি
১২। মুস্তাফিজুর সহ আরো অনেকে
আর সারা দিন অনুষ্ঠান ভিডিও করার জন্য ছিল একজন ভিডিও ম্যান।
স্লাইড শো এ দায়িত্বে ছিল রাইহান ও ইব্রাহীম খলিল।

আমরা আমাদের প্রগ্রাম সকাল ৮ঃ০০ টায় শুরু করেছিলাম, আমাদের স্লোগান ছিল ” সারাদিনের উৎসবের অনন্দে চল ফিরে যাই শৈশবে” প্রথমে পতাকা উত্তোলন করলাম , জাতীয় সংগীত গাইলাম, তারপর আনন্দ র‌্যালী করলাম শান্তির মোড়হয়ে হঠাৎ পাড়া গ্রাম ঘুরে স্কুল পর্যন্ত, তারপর স্লাইড শ ,প্রাক্তন ছাত্রছাত্রীদের   স্মৃতিচারন্মুলক বক্তব্য, প্রধান অতিথি ও আমন্ত্রিত অতিথির বক্তব্য দিয়ে সকালের প্রথম পর্বের প্রগ্রাম শেষ করা হয়েছিল।

তারপর বিকালে ২য় পর্বে  সাংকৃতিক অনুষ্ঠান ,  চাঁপাইনবাবগঞ্জ থেকে শিল্পী আনা হয়েছিল, অনুষ্ঠানে এর মধ্যে হালকা বৃষ্টি হয়েছিল।  অনুষ্ঠানের শেষের দিকে লটারী করে বিজয়ীদের হাতে পুরষ্কার তুলে দেয়া হয়।

আর অনুষ্ঠানে প্রাক্তন ছাত্রদের নিয়ে ” SHAHABAJPUR U/C HIGH SCHOOL ALUMNI ASSOCIATION” এই নামে একটি সংগঠন করার ঘোষনা করা হয়।

পোষ্টটি লিখেছেন: Milon_BUTex

এই ব্লগে এটাই এর প্রথম পোষ্ট.

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *