জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে অনার্সে সুযোগপ্রাপ্তদের ভর্তি হতে যা যা লাগবে

প্রতি বছর জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে অনার্স এর ভর্তির ফলাফল দেওয়ার পর আমাকে প্রায়ই একটা প্রশ্নের সম্মুখীন হতে হয়। সেটা হলো “ভাইয়া ভর্তি হতে কি কি কাগজপত্র লাগবে এবং কত টাকা লাগবে?” ভেবেছিলাম এই বিষয় নিয়ে একটা পোস্ট করবো কিন্তু অনেক দিন ধরে এই বিষয় নিয়ে লিখবো লিখবো করে লেখা হয়ে উঠছিল না ব্যস্ততার কারণে। অবশেষে আজকে এই বিষয়টা নিয়ে লিখতে বসেই গেলাম…

চলুন প্রথমেই জেনে নেওয়া যাক জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তির বিজ্ঞপ্তিতে এ বিষয়ে কি বলা হয়েছে।
Papers

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি বিজ্ঞপ্তি এবং বেশ কয়েকটি জনপ্রিয় কলেজ এর বিজ্ঞপ্তি থেকে আমি যে তথ্য পেয়েছি তার ভিত্তিতে সাধারণত নিম্নোক্ত কাগজপত্রগুলো লাগে ভর্তির সময়।

ভর্তির সময় যে সকল কাগজপত্র লাগবেঃ

  • অনলাইন থেকে মূল আবেদন ফর্মের – ২ সেট ( অবশ্যই A4 অফসেট সাদা কাগজেকালার প্রিন্ট করতে হবে)। ভর্তি ফরম পাবেন এই লিঙ্কে।
  • প্রাথমিক আবেদনের প্রবেশপত্র -২সেট।
  • পাসপোর্ট সাইজের ছবি ৪টি এবং স্ট্যাম্প সাইজ ৪টি পেছনে নাম লিখে দিতে হবে (কলেজভেদে কম বেশি হতে পারে)।
  • এসএসসি ও এইচএসসি এর সনদপত্র/প্রশংসা পত্রের সত্যায়িত ফটোকপি – ২ সেট।
  • এসএসসি ও এইচএসসি  মূল নম্বরপত্রের (এইচএসসি এর মুল কপি) সত্যায়িত ফটোকপি – ২ সেট।
  • এসএসসি ও এইচএসসি রেজিস্ট্রেশন কার্ডের (এইচএসসি এর মুল কপি) সত্যায়িত ফটোকপি – ২ সেট।
  • টাকা জমার রশিদ।
  • চারিত্রিক সনদপত্র (সাধারণত লাগেনা, কোন কোন কলেজে লাগতে পারে) – ২ টি।

উল্লেখ্য, সকল কাগজপত্র ২ কপি করে ২সেট বানাতে হবে যার এক কপি বিভাগীয় সেমিনারে এবং এক কপি অফিসে জমা দিতে হবে।

এবার জেনে নেওয়া যাক ভর্তি হতে কত টাকা লাগবেঃ…

ভর্তি ফিঃ

ভর্তি ফি কলেজ ভেদে ভিন্ন হয়ে থাকে তাই যার যার কলেজের নোটিশ বোর্ড থেকে জেনে নেওয়াই ভালো। সাধারণত  সরকারী কলেজ হলে ৪-৫ হাজার আর বেসরকারী কলেজে হলে ১০ হাজার টাকার মধ্যে হয়ে থাকে।

বিদ্রঃ ভর্তিচ্ছু কোন প্রার্থী পূর্ববর্তী শিক্ষাবর্ষে স্নাতক (সম্মান), স্নাতক (সম্মান) প্রফেশনাল ও স্নাতক (পাস) নিয়মিত/প্রাইভেট কোর্সে ভর্তি হয়ে থাকলে তাকে অবশ্যই নির্ধারিত তারিখের মধ্যে পূর্ববর্তী শিক্ষাবর্ষের ভর্তি বাতিল করতে হবে। একই অথবা দুটি ভিন্ন শিক্ষাবর্ষে কোন প্রার্থী স্নাতক (সম্মান), স্নাতক (সম্মান) প্রফেশনাল ও স্নাতক (পাস) নিয়মিত/প্রাইভেট কোর্সে দ্বৈত ভর্তি হলে তার উভয় ভর্তি বাতিল বলে গণ্য হবে। ভর্তি বাতিল প্রক্রিয়া জেনে নিন এখান থেকে।

পোষ্টটি লিখেছেন: আল মামুন মুন্না

আল মামুন মুন্না এই ব্লগে 580 টি পোষ্ট লিখেছেন .

আল মামুন মুন্না, বাংলাদেশের প্রথম শিক্ষা বিষয়ক বাংলা কমিউনিটি ব্লগ সাইট "লেখাপড়া বিডি"র প্রতিষ্ঠাতা ও পরিচালক হিসেবে নিয়োজিত আছেন। সম্প্রতি জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীন যশোর সরকারী এম. এম. কলেজ থেকে ফিন্যান্স এন্ড ব্যাংকিং বিষয় নিয়ে বি.বি.এ অনার্স সম্পন্ন করে আজম খান সরকারী কমার্স কলেজে এমবিএ করছেন।

One comment

  1. ভাই আমার বয়স সনদ পত্রে বেশি।।২৪ওভার।।আমি বয়স চেঞ্জ করে ২২ করেছি অনলাইন আবেদনে।।এখন আমার প্রস্ন হচ্চে আমি জদি চান্স পাই তবে আমার কাগজ জমা হবে।।আর সেই কাগজ কি সাথে সাথে বোর্ড এ জাবে?জদি আমি ৪ মাস সমঅয় পাই তাহলে আমি বয়স চেঞ্জ করতে পারবো।।সেতা কি পসিবল

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

+ 46 = 51