২০১৮ সালের ডিগ্রী (পাস) প্রাইভেট/সার্টিফিকেট কোর্স রেজিস্ট্রেশন এর বিস্তারিত তথ্য

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০১৮ সালের ডিগ্রী (পাস) বি.এ/বি.এস.এস/বি.বি.এস প্রাইভেট/সার্টিফিকেট কোর্স পরীক্ষায় প্রাইভেট প্রার্থী হিসেবে অংশগ্রহণেচ্ছুদের রেজিস্ট্রেশন সংক্রান্ত বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ হয়েছে। প্রকাশিত বিজ্ঞপ্তি অনুসারে এই কোর্সে রেজিস্ট্রেশন এর জন্য অনলাইনে আবেদন ফরম সংগ্রহ প্রক্রিয়া ১৮/০১/২০১৮ তারিখ থেকে শুরু হয়ে ০৩/০২/ ২০১৮ তারিখ পর্যন্ত চলবে। পূরণকৃত আবেদন ফরম ও নির্ধারিত ফিসহ প্রয়োজনীয় কাগজপত্র ০৪/০২/২০১৮ তারিখের মধ্যে সংশ্লিষ্ট কলেজে জমা দিতে হবে। রেজিস্ট্রেশন সংক্রান্ত সময়সীমা নিচে তুলে দেওয়া হলোঃ

২০১৮ সালের ডিগ্রী (পাস) প্রাইভেট/সার্টিফিকেট কোর্স রেজিস্ট্রেশন সংক্রান্ত বিজ্ঞপ্তিঃ

২০১৭ সালের ডিগ্রী (পাস) প্রাইভেট/সার্টিফিকেট কোর্স রেজিস্ট্রেশন এর আবেদনের যোগ্যতা, রেজিস্ট্রেশন ফি এর পরিমাণ ও জমা দেওয়ার প্রক্রিয়া, আবেদনপত্রের সাথে যে সকল কাগজপত্র জমা দিতে হবে ও পাঠ্যক্রম ও পাঠ্যসূচি সংক্রান্ত বিস্তারিত তথ্য নিচে তুলে দেওয়া হলোঃ

১) আগ্রহী প্রার্থীদের অন-লাইন থেকে প্রাইভেট রেজিস্ট্রেশনের জন্য আবেদন ফরম সংগ্রহ করার সময়সীমাঃ ১৮/০১/২০১৮ হতে ০৩/০২/২০১৮ তারিখ পর্যন্ত
২) পূরণকৃত আবেদন ফরম ও নির্ধারিত ফিসহ প্রয়োজনীয় কাগজপত্র সংশ্লিষ্ট কলেজে জমা দেয়ার শেষ তারিখঃ ০৪/০২/২০১৮
৩) কলেজ কর্তৃক অন-লাইনে ডাটা এন্ট্রি করার শেষ তারিখঃ ০৬/০২/২০১৮
৪) কলেজ কর্তৃক রেজিস্ট্রেশন ফি ও তালিকাভুক্তি ফি এর টাকা “সোনালী সেবা” এর মাধ্যমে সোনালী ব্যাংকের যে কোন শাখায় জমা দেয়ার শেষ তারিখঃ ০৬/০২/২০১৮

স্নাতক (পাস) প্রাইভেট কোর্সে আবেদন করার যোগ্যতাঃ

ক)বাংলাদেশ-এ স্বীকৃত যে কোন শিক্ষা বোর্ড/উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় হতে ২০১৪ সাল বা তৎপূর্বে উচ্চ মাধ্যমিক/সমমান পরীক্ষায় উত্তীর্ণ প্রার্থীরা ২০১৮ সালের স্নাতক (পাস) প্রাইভেট কোর্সে বি.এ/বি.এস.এস/বি.বি.এস কোর্সে রেজিস্ট্রেশনের জন্য আবেদন করতে পারবে। এ ছাড়া বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোডের্র এইচ.এস.সি. সমমান কোর্স সমূহ থেকে শুধুমাত্র ১। এইচ.এস.সি. (ভোকেশনাল) ২। ডিপ্লোমা-ইন-কমার্স ৩। এইচ.এস.সি. (বিজনেস ম্যানেজমেন্ট) পরীক্ষায় উত্তীর্ণ প্রার্থীরা আবেদন করতে পারবে।
খ)O-Level পরীক্ষায় তিনটি বিষয়ে ‘বি’ গ্রেডসহ  অন্তত ০৪ (চার) টি বিষয়ে উত্তীর্ণ এবং ২০১৪ সাল বা তৎপূর্বে A-Level পরীক্ষায় একটি বিষয়ে বি-গ্রেডসহ অন্তত ০২ (দুই) টি বিষয়ে উত্তীর্ণ প্রার্থীরা এ কোর্সে আবেদন করতে পারবে।
গ)১৯৮৮ সালের পূর্বে বাংলাদেশ মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ড হতে আলীম পরীক্ষায় উত্তীর্ণ কোন প্রার্থী প্রাইভেট রেজিস্ট্রেশনের জন্য আবেদন করতে পারবে না।
ঘ)বিষয়সমূহঃ বাংলা(ঐচ্ছিক), ইংরেজী(ঐচ্ছিক), আরবী, উর্দু, ফার্সী, সংস্কৃত, দর্শন, ইসলামী শিক্ষা, অর্থনীতি, রাস্ট্রবিজ্ঞান, সমাজবিজ্ঞান, ইতিহাস, ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি, পালি, হিসাব বিজ্ঞান, ব্যবস্থাপনা, মার্কেটিং এবং ফাইন্যান্স ও ব্যাংকিং। উল্লিখিত বিষয়সমূহ সংশ্লিষ্ট কলেজে অধিভুক্ত বিষয় হিসাবে থাকতে হবে।
প্রাইভেট রেজিস্ট্রেশনের আবেদন পত্রে প্রার্থীগণ কোর্সওয়ারী যে সকল বিষয় নির্বাচন করবে কেবলমাত্র সে সকল বিষয়ে পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে পারবে। কোনক্রমেই বিষয় পরিবর্তন করা যাবে না । কোন কোর্স/বিষয় সংশ্লিষ্ট কলেজে অধুভুক্তি না থাকলে সে বিষয়ে রেজিস্ট্রেশন করা যাবে না।
ঙ)যে সকল বিষয়ে মাঠকর্ম বা ব্যবহারিক পরীক্ষা আছে সে সকল বিষয়ে স্নাতক (পাস) প্রাইভেট কোর্সে রেজিস্টেধশনের জন্য আবেদন করা যাবে না।
চ)স্নাতক পর্যায়ে বর্তমানে অধ্যয়নরত/রেজিস্ট্রেশন প্রাপ্ত কোন প্রার্থী ২০১৮ সালের স্নাতক (পাস) প্রাইভেট/সার্টিফিকেট প্রোগ্রামে আবেদন করতে পারবে না। উক্ত শর্ত ভঙ্গ করে কোন প্রার্থী এ কার্যক্রমে অংশগ্রহণ করলে তার রেজিস্ট্রেশন বাতিল করার অধিকার জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ সংরক্ষণ করে।

সার্টিফিকেট কোর্সে আবেদন করার যোগ্যতাঃ

ক)বাংলাদেশ-এ স্বীকৃত যে কোন বিশ্ববিদ্যালয় হতে স্নাতক (পাস)/স্নাতক (সম্মান) পরীক্ষায় উত্তীর্ণ প্রার্থীরা যে সকল বিষয় নিয়ে ডিগ্রী (পাস)/স্নাতক (সম্মান) পরীক্ষায় কৃতকার্য হয়েছে সে সব বিষয় ছাড়া নিম্নে উল্লিখিত যে কোন একটি বিষয়ে নিয়ে সার্টিফিকেট কোর্সে রেজিস্ট্রেশনের জন্য আবেদন করতে পারবে।
বাংলাদেশ মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ড হতে ফাজিল বা কামিল পরীক্ষায় উত্তীর্ণ কোন প্রার্থী সার্টিফিকেট কোর্স পরীক্ষার প্রাইভেট রেজিস্ট্রেশনের জন্য আবেদন করতে পারবে না।
খ)সার্টিফিকেট কোর্সে রেজিস্ট্রেশন প্রাপ্ত প্রার্থীরা ২০১৮ সালের স্নাতক (পাস) প্রাইভেট পরীক্ষার্থীদের সংগে একই কোর্স ও কারিকুলাম অনুযায়ী সার্টিফিকেট কোর্স পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে পারবে।
গ)বিষয় সমূহঃ বাংলা(ঐচ্ছিক), ইংরেজী(ঐচ্ছিক), আরবী, উর্দু, ফার্সী, সংস্কৃত, দর্শন, ইসলামী শিক্ষা, অর্থনীতি, রাস্ট্রবিজ্ঞান, সমাজবিজ্ঞান, ইতিহাস, ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি, পালি, হিসাব বিজ্ঞান, ব্যবস্থাপনা, মার্কেটিং এবং ফাইন্যান্স ও ব্যাংকিং।

অনলাইনে আবেদনের নিয়মাবলী ও ধার্যকৃত ফিঃ

ক)২০১৮ শিক্ষাবর্ষের স্নাতক (পাস) প্রাইভেট/সার্টিফিকেট কোর্সে রেজিস্ট্রেশনের জন্য প্রার্থীকে ১৮/০১/২০১৮ তারিখ বিকাল ৪টা থেকে ০৩/০২/২০১৮ তারিখ রাত ১২টা পর্যন্ত জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইট এর মাধ্যমে আবেদন ফরম পূরণ করতে হবে। এ লক্ষ্যে প্রার্থীকে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি বিষয়ক ওয়েবসাইটের এই পোস্টের নিচে প্রদত্ত অপশন থেকে আবেদন ফরম পূরণ করতে হবে।
খ)প্রাথমিক আবেদন ফরম পূরণের ক্ষেত্রে প্রার্থীকে সতর্কতার সংগে নিজের নাম, পিতা/মাতার নাম, শিক্ষাগত যোগ্যতার সকল তথ্য নির্ভুলভাবে এন্ট্রি দিতে হবে। এই ফরমে প্রার্থী ইচ্ছাকৃত কোন তথ্য গোপন করলে/কোন তথ্য ভুল বলে প্রমাণিত হলে তার ভর্তি বাতিল করার অধিকার জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ সংরক্ষণ করবে।
গ)আবেদনকারী তার পছন্দ অনুযায়ী বিভাগ ও জেলা নির্ধারণ করে যে কোন কলেজের নাম Select করলে সংশ্লিষ্ট কলেজে প্রার্থীর ভর্তি যোগ্য (Eligible) কোর্স/বিষয়ের তালিকা দেখতে পাবে। ভর্তি যোগ্য (Eligible) কোর্স/বিষয়ের তালিকা থেকে প্রার্থীকে সর্তকতার সংগে তার প্রার্থিত কোর্স/বিষয়ের পছন্দ নির্ধারণ করতে হবে।
ঘ)এ পর্যায়ে আবেদনকারী সঠিক লিঙ্গ (Gender) নির্ধারণ করে Male/Female এন্ট্রি দিতে হবে। তথ্য ছকে Male এর স্থলে Female বা Female এর স্থলে Male প্রদর্শিত হলে আবেদনকারীকে Click to Change অপশনে গিয়ে সঠিক তথ্য দিতে হবে।
ঙ)প্রাথমিক আবেদন ফরম পূরণের সময় প্রার্থীর পাসপোর্ট আকারে সম্প্রতি তোলা রঙিন ছবি Scan করে আপলোড করতে হবে। ছবির মাপ ১২০x১৫০ Pixels, Image Type: jpg Ges maximum file size:50Kb হতে হবে।

চ)

সঠিক তথ্য ও ছবিসহ ছক পূরণ করে প্রথমে ফরমটি Submit অপশনে ক্লিক করতে হবে। এ পর্যায়ে আবেদনকারীর রোল নম্বর ও পিন কোড প্রদর্শিত হবে এবং আবেদনকারীকে ফরমটি ডাউনলোড করে [A4 (8.5”×11”) অফসেট সাদা কাগজে] প্রিন্ট (Print) নিতে হবে।
ছ)পূরণকৃত আবেদন ফরমের ত্রুটি সংশোধন: আবেদন ফরম সংশ্লিষ্ট কলেজে জমাদানের পূর্বে প্রার্থী তার আবেদন ফরমটি যাচাই করবে। আবেদন ফরমে তথ্যগত অমিল বা ও ত্রুটিপূর্ণ ছবি থাকলে তা সংশোধন করতে হবে। আবেদন ফরম সংশোধনের জন্য প্রার্থীকে Application Login অপশনে থেকে আবেদন ফরমের রোল নম্বর ও পিন এন্ট্রি দিতে হবে। এ পর্যায়ে আবেদনকারীকে Form Cancel/Photo Change Option এ গিয়ে Click to Generate the Security key অপশনটি ক্লিক করলে প্রার্থী তার আবেদন ফরমে উল্লিখিত ব্যক্তিগত মোবাইল নম্বরে SMS এর মাধ্যমে One Time Password (OTP) পাবে। এই OTP এন্ট্রি দিয়ে প্রার্থী তার আবেদন ফরমটি বাতিলপূর্বক নতুন করে আবেদন ফরম পূরণ ও ছবি আপলোড করতে পারবে। এ লক্ষ্যে আবেদনকারীকে তার ব্যক্তিগত সঠিক মোবাইল নম্বর সর্তকতার সংগে আবেদন ফরমে সংযোজন করতে হবে। তবে কলেজ কর্তৃক আবেদন ফরম নিশ্চয়ন করার পর তা আর বাতিল করা যাবে না। প্রার্থী ছবি পরিবর্তনের সুযোগ একবার প্রাপ্য হবেন।
জ)আবেদনকারীকে প্রিন্ট করা প্রাথমিক আবেদন ফরমটির নির্ধারিত স্থানে স্বাক্ষর করতে হবে। এই আবেদন ফরমের সংগে প্রার্থীর মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক/সমমান পরীক্ষার সত্যায়িত নম্বরপত্র, সার্টিফিকেট কোর্সের ক্ষেত্রে স্নাতক (সম্মান)/স্নাতক (পাস) পরীক্ষার সত্যায়িত নম্বরপত্র, রেজিস্ট্রেশন কার্ডের সত্যায়িত কপি ও প্রাথমিক আবেদন ফি বাবদ ২৫০/- (দুইশত পঞ্চাশ) টাকা ও রেজিস্ট্রেশন ফি বাবদ ৪৮৫/-(চারশত পঁচাশি) টাকা সংশ্লিষ্ট কলেজে নির্ধারিত সময়ের মধ্যে জমা দিতে হবে। আবেদনকারীর মূল সনদপত্র ও নম্বরপত্র কলেজ কর্তৃপক্ষ সংরক্ষণ করবেন। প্রাথমিক আবেদন ফরমটির দ্বিতীয় অংশ কলেজ অধ্যক্ষ/দায়িত্বপ্রাপ্ত শিক্ষকের স্বাক্ষর ও সীলসহ প্রার্থীকে ফেরত দিবে। কলেজ যে সকল প্রাথমিক আবেদন ফরম Online-এ নিশ্চয়ন করবে সে সকল প্রার্থী তাদের মোবাইল নম্বরে SMS এর মাধ্যমে তা জানতে পারবে। প্রাথমিক আবেদন নিশ্চয়ন ব্যতীত কোন প্রার্থীকেই রেজিস্ট্রেশন কার্ড ইস্যু করা হবে না।
ভর্তিচ্ছু কোর্সসমূহআবশ্যিক বিষয়সমূহনৈর্বাচনিক বিষয়সমূহ
ক) বিএ (পাস)১) স্বাধীন বাংলাদেশের অভ্যুদয়ের ইতিহাস (১ম বর্ষ)
২) বাংলা জাতীয় ভাষা (২য় বর্ষ)
ইংরেজি (৩য় বর্ষ)
নিম্নে প্রদত্ত গুচ্ছসমূহের যে কোন তিনটি গুচ্ছ থেকে একটি করে মোট ০৩ (তিনটি) বিষয় নির্বাচন করতে হবে। কোন গুচ্ছ
থেকে একাধিক বিষয় নির্বাচন করা যাবে না।
ক গুচ্ছ- বাংলা(ঐচ্ছিক)/ইংরেজি(ঐচ্ছিক)/ সংস্কৃত/ আরবী/ আরবী/উর্দু/ফার্সী/সংস্কৃত/পালি
খ গুচ্ছ- ইতিহাস/ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি
গ গুচ্ছ- ইসলামী শিক্ষা/দর্শন
ঘ গুচ্ছ- অর্থনীতি/রাষ্ট্রবিজ্ঞান/সমাজবিজ্ঞান
খ) বিএসএস (পাস)ক গুচ্ছ থেকে ০২ (দুই) টি এবং খ গুচ্ছ থেকে ০১ (একটি) করে মোট ০৩ (তিনটি) বিষয় নির্বাচন করতে হবে।
ক গুচ্ছ- অর্থনীতি/রাষ্ট্রবিজ্ঞান/সমাজ বিজ্ঞান
খ গুচ্ছ- ইতিহাস/ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি/ ইসলামী
শিক্ষা//দর্শন/বাংলা(ঐচ্ছিক)/ইংরেজি(ঐচ্ছিক)/ সংস্কৃত/ আরবী/পালি
গ) বিবিএস (পাস)ক গুচ্ছ থেকে০২(দুই)টি এবংখ গুচ্ছ থেকে০১(এক)টি করে মোট ০৩ (তিনটি) বিষয় নির্বাচন করতে হবে।
ক গুচ্ছ- হিসাব বিজ্ঞান ও ব্যবস্থাপনা
খ গুচ্ছ- ফিন্যান্স এন্ড ব্যাংকিং/মার্কেটিং/ অর্থনীতি
নিম্নে উল্লিখিত প্রয়োজনীয় কাগজপত্রাদি আবেদনপত্রের সংগে জমা দিতে হবে

ক)মাধ্যমিক/সমমান এবং উচ্চমাধ্যমিক/সমমান পরীক্ষা পাসের সনদপত্র ও নম্বরপত্রের সত্যায়িত ফটোকপি এবং সার্টিফিকেট কোর্সের জন্য উল্লিখিত সনদপত্র ও নম্বরপত্রের সত্যায়িত ফটোকপিসহ স্নাতক (পাস) পরীক্ষার সনদপত্র ও নম্বরপত্রের সত্যায়িত ফটোকপি (মূল সনদপত্র  ও নম্বরপত্র কলেজ কর্তৃপক্ষ সংরক্ষণ করবেন)।
খ)সামরিক বাহিনী, পুলিশ, বি.জি.বি ও আনসার বাহিনীতে চাকুরীরত প্রার্থীদেরকে তাদের চাকুরী দু-বছর পূর্ণ হয়েছে এ মর্মে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের প্রত্যয়নপত্র জমা দিতে হবে। তাদের চাকুরীতে নিয়োগের তারিখ, পরীক্ষায় অংশগ্রহণ পর্যন্ত চাকুরীতে বহাল থাকার বিবরণ এবং পরীক্ষার সময় তাকে পরীক্ষায় অংশগ্রহণের জন্য ছুটি মঞ্জুর করা হবে ইত্যাদি বিষয় প্রত্যয়নপত্রে উল্লেখ থাকতে হবে।
গ)সরকারী/আধা-সরকারী/ স্বায়ত্বশাসিত প্রতিষ্ঠানে চাকুরীরত প্রার্থীকে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের প্রত্যয়নপত্র জমা দিতে হবে। পরীক্ষার সময় তাকে পরীক্ষায় অংশগ্রহণের জন্য ছুটি মঞ্জুর করা হবে মর্মে প্রত্যয়ন পত্রে উল্লেখ করতে হবে।

আবেদন ফরম সংগ্রহ করতে নিচের ঠিকানায় ক্লিক করুনঃ

প্রাইভেট ডিগ্রি পাস কোর্সের আবেদন ফরম

সার্টিফিকেট কোর্সের আবেদন ফরম

গত বছর প্রাইভেট ডিগ্রি কোর্স যে সকল কলেজে আছে তার তালিকাঃ

[বিস্তারিত বিজ্ঞপ্তি ডাউনলোড করুন]

পোষ্টটি লিখেছেন: আল মামুন মুন্না

আল মামুন মুন্না এই ব্লগে 573 টি পোষ্ট লিখেছেন .

আল মামুন মুন্না, বাংলাদেশের প্রথম শিক্ষা বিষয়ক বাংলা কমিউনিটি ব্লগ সাইট "লেখাপড়া বিডি"র প্রতিষ্ঠাতা ও পরিচালক হিসেবে নিয়োজিত আছেন। সম্প্রতি জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীন যশোর সরকারী এম. এম. কলেজ থেকে ফিন্যান্স এন্ড ব্যাংকিং বিষয় নিয়ে বি.বি.এ অনার্স সম্পন্ন করে আজম খান সরকারী কমার্স কলেজে এমবিএ করছেন।

16 comments

  1. আমি ২০১১ সালে এস এস সি পাস করেছি এবং ২০১৬ সালে বিজনেস ম্যানেজমেন্ট শাখা থেকে এইচ এস সি পাস করেছি। এখন আমি কি ডিগ্রি প্রাইভেট এ ভর্তি হতে পারবো?

    • এখন পর্যন্ত না। কারন ২০১৩ পর্যন্ত নিচ্ছে এবার।

    • ইসরাত জাহান

      আমি ২০১০ সালে ঢাকা বোর্ড থেকে মাধ্যমিক এবং ২০১৫ সালে উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এইচএসসি পাস করেছি। আমি এবারের ডিগ্রী প্রাইভেট পরিক্ষার্থী হিসেবে রেজিষ্ট্রেশন (লাস্ট ডেট :৫ জুলাই’১৭) করতে পারবো..?

    • ও ভাই সমাধান কি পেয়েছেন আমারও একেই সমস্যা S.S.C -2010 & H.S.C – 2016 ডিগ্রী বা ডিগ্রী প্রাইভেট কোথাও অনলাইন এ আবেদন করতে পারি না | কোন পথ কি পেয়েছিলেন জানাবেন খুব উপকার হবে

  2. আসসালামুয়ালাইকু,
    জনাব, আমি ২০১১ সালে S.S.C পাশ করেছি।আর ২০১৪ সালে H.S.C পাশ করেছি।আমি কি পারবো ড্রিগ্রী পাস প্রাইভেট কোর্সে ভর্তি হতে?

    আমার অনেক স্বপ্ন ছিলো আমি আবার পড়ালেখা করবো।দয়াকরে আমাকে জানাবেন।
    ০১৮৩৮৯২৯৯৯৮
    এটি আমার মোবাইল নাম্বার।

  3. আমি ২০১৭ সালে HSC পাশ করেছি।এখন কি আমি ডিগ্রীতে ভর্তি হতে পারব?

  4. সার্টিফিকেট কোর্স করার সুবিধা ও অসুবিধা কী? এই কোর্স করার যোগ্যতা কী?

  5. আমি বি বি এস পাস ২০১৬ এর ১ম বর্ষ exam দিয়েছি, আমি আমার দুই টাsuj এর code nb ভুল করছি। আমার result absent আসছে।তাই আমি not notmorpote। এ খন কি আমাকে আবার ১ ম বর্ষ ভতি হতে হবে?

  6. ২০১৭ ডিগ্রি প্রথম বর্ষের পরিক্ষায় যারা ২-৩ সাবজেক্ট এ ফেইল করেছে, তাদের কে এখন কি করতে হবে? তারা কি ২য় বর্ষে চান্স পাবে?

  7. রেজিস্ট্রেশন আর ভর্তি আবেদন কি একই কথা???
    রেজিস্ট্রেশন এর অর্থবুজলাম না

  8. এসএসসি ২০০৭ ইং, বরিশাল বোর্ড ৷
    এইসএসসি ২০১৪ ইং, উন্মোক্ত বিশ্ববিদ্যালয় ৷
    আমার খুব ভালো বন্ধু সে ৷
    এখন বাহিরে থাকে ৷
    সে জানতে চেয়েছে,
    সে প্রাইভেটে ডিগ্রি কোর্স টি করতে পারবে কি না?
    পারলে সে দেশে চলে আসবে ৷
    জানা থাকলে জানাবেন প্লিজ ৷

  9. আমি 2015 সালে মারকেটিং এ ভতি হই তার গেপ এখন 2018 সাল আমি কি এখন প্রাইভেট ভাভে ডিগ্রী করতে পারবো বা যেকোন উপায় বলবেন কি দয়া করে বিশেস ভাবে অনুরোধ জানাচ্ছি।আমার খুব সপ্ন আমি পরাশোনা করবো

  10. মোঃমিনহাজ হোসেন

    ২০১৮ সালে আর ডিগ্রী প্রাইভেট ভর্তি সুযোগ আছে কি?

  11. আমি একজন ডিপ্লোমা ইন মেক্যানিকাল ইন্জিনিয়ার আমি প্রাইভেট ডিগ্রী ভর্তি হতে চাই।
    আমি কি ভর্তি হতে পারবো?
    এবং ঢাকা বেজ কোন কোন কলেজে ভর্তি হতে পারবো।একটু দয়া করে জানাবেন।

  12. কি কি কাগজ পত্র লাগবে?

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।