পড়াশোনা Life কে বদলাতে পারে হোক না সেটা জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়

মেয়েটি HSC পাশ করলো এবং ভালো গ্রেড পেলো। বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির জন্য কঠোর পরিশ্রম করলো। প্রথম বার কোন বিশ্ববিদ্যালয়ে সুযোগ হয়নি তার। জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে ভাল একটা সাবজেক্ট পেলো এবং ভর্তি হয়ে গেলো নিজের স্বপ্ন পূরণের জন্য। তার বয়ফ্রেন্ড কোন এক প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ে। মেয়েটি অসম্ভব ভালোবাসে ছেলেটাকে। সে কখনোই চায় না তাদের ব্রেকআপ হোক,,,,

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হওয়ায় তাদের সম্পর্কের টানা পোড়েন লাগে। বয়ফ্রেন্ডের মন রাখতে আবারও বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির জন্য আপ্রাণ চেষ্টা। এদিকে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্রাস প্রোগ্রাম দ্রুত গতিতে পরিক্ষা নিয়ে ফেলছে। চরম দুঃচিন্তায় মেয়েটি। দুই দিক বুঝি হারাতে হবে। না এবারও কোন সুনাম ধণ্য বিশ্ববিদ্যালয়ে সুযোগ হয়নি মেয়েটির। শুরু হল অবহেলা আর,,,,,,,,,,,

তবে কি ব্রেকাপ হয়ে যাবে????? এদিকে ব্রেকআপ কখনোই সহ্য করতে পারবে না। হ্যা অবহেলার দরুন ব্রেকআপটা হয়ে গেল। নিজের জীবনের প্রতি কোন মায়া রইলো না তার। কঠিন বাস্তবতা মেনে জীবন যাপন করে। নিজেকে ধীরে ধীরে শেষ করার পথে মেয়েটি,,,,

এ টাইপের হারামিগুলাকে পিষে মারা উচিত। এরা প্রেম করে মানুষকে দেখানোর জন্য। নিজের ব্যর্থতা অন্যের গাড়ে চাপিয়ে দেয় এরা। এদের গার্লফ্রেন্ডকে হতে হবে দেশের সেরা স্টুডেন্ট,সৌন্দর্য অার অর্থের মাপকাঠিতে তারা সম্পর্কে জড়ায়। যেকোন একটা ফসকে গেলে শুরু হয় অবহেলা। অবহেলার দরুণ হয় ব্রেকআপ। কয়েকদিন পর নির্লজ্জ আর বেহায়ার মত করে মায়া কান্না যার মধ্যে থাকে শতভাগ ছলনা।

আজকে তার রেজাল্ট দিলো। ভাল ফলাফল করলো সে। জীবনের সফলতার একটি ধাপ অতিক্রম করলো। স্বপ্ন পুরনের একটি ধাপ শেষ করলো। সফল হও আর সুন্দর ভবিষ্যৎ গড়। অনেক দুর এগিয়ে গেছো,পিছনে তাকালে শুধু ঝাপসা দেখবে। তাই সামনে তাকিয়ে লক্ষ্য পূরণ করো।

-সংগৃহীত

পোষ্টটি লিখেছেন: নাঈমুর রহমান দুর্জয়

নাঈমুর রহমান দুর্জয় এই ব্লগে 13 টি পোষ্ট লিখেছেন .

2 comments

  1. Lol..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *