২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষে মেডিকেল কলেজে ভর্তি পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশ

২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষের এমবিবিএস ভর্তি পরীক্ষার ফল ০৭/১০/২০১৮ তারিখ প্রকাশ করা হয়েছে। মেধা ও পছন্দের ভিত্তিতে দেশের ৩৬টি সরকারি মেডিকেল কলেজে ভর্তির জন্য প্রাথমিকভাবে ৪ হাজার ৬৮জন শিক্ষার্থীকে নির্বাচিত করেছে স্বাস্থ্য অধিদফতর। অপেক্ষমান তালিকায় রাখা হয়েছে ৫০০ জনকে।

চলতি বছর ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহনকারী মোট ৬৩ হাজার ২৬ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে পাস করেছেন ২৪ হাজার ৯৬৮ জন। ভর্তি পরীক্ষায় ১০০ নম্বরের নৈর্ব্যক্তিক প্রশ্নপত্রে নেয়া পরীক্ষায় পাস নম্বর ছিল ৪০। চলুন জেনে নেওয়া যাক কিভাবে এই ফলাফল জানা যাবে।

অনলাইনে মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষার ফলাফল ২০১৮-১৯ দেখুন এখান থেকেঃ

MBBS Medical Admission Test Result 2017-18

 

নির্বাচিতদের ও অপেক্ষমাণ তালিকা পেতে এখানে ক্লিক করুন।

উত্তীর্ণদের মধ্যে সর্বোচ্চ নম্বর উঠেছে ৮৭ ও সর্বনিম্ন ৫৭। আগামী ১৫-২৫ অক্টোবরের মধ্যে ভর্তি প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে হবে।

মোবাইলে মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষার ফলাফল দেখার পদ্ধতিঃ

মোবাইলে মেডিকেলের ফলাফল জানার জন্যে এস.এম.এস করার কোন প্রয়োজন নেই। যারা উত্তীর্ণ হয়েছে তাদের আবেদন করার সময় প্রদত্ত মোবাইল ফোন নম্বরে স্বয়ংক্রিয়ভাবে টেলিটক থেকে ওয়েলকাম জানিয়ে ফলাফল পৌঁছে যাবে।

মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষার ফলাফল সংক্রান্ত বিজ্ঞপ্তি নিচে তুলে দেওয়া হলোঃ

Medical Admission Test Result Notice 2018-19

মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষার ফলাফল পূণঃনিরীক্ষার আবেদনঃ মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষার ফলাফল পূণঃনিরীক্ষার আবেদন প্রক্রিয়া ফলাফল প্রকাশের পর ১০/১০/২০১৮ তারিখ থেকে ২০/১০/২০১৮ তারিখ পর্যন্ত চলবে। টেলিটক অপারেটর এর যে কোন প্রিপেইড সিম ব্যবহার করে আবেদন করা যাবে।  আবেদন ফি ১০০০ ( এক হাজার) টাকা। আবেদনের প্রক্রিয়া নিচে তুলে দেওয়া হলোঃ

মোবাইলের ম্যাসেজ অপশনে গিয়ে লিখুনঃ

১ম SMS: DGHS<Space>RSC<Space>Roll Number এর পর পাঠিয়ে দিন ১৬২২২ নম্বরে।

ফিরতি SMS এ একটি পিন নম্বর পাবেন।

২য় SMS: DGHS<Space>RSC<Space>Yes<Space>Pin Number

এবং পাঠিয়ে দিন ১৬২২২ নম্বরে। এরপর আপনার নম্বর থেকে ফি বাবদ এক হাজার টাকা কেটে নেওয়া হবে এবং ফিরতি SMS এ ফি জমা বাবদ প্রাপ্তি স্বীকার SMS পাবেন।

২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষে মেডিকেলে ক্লাশ শুরুর তারিখঃ ১০ জানুয়ারী ২০১৯ ।

উল্লেখ্য, ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষে এমবিবিএস কোর্সে ভর্তি বিজ্ঞপ্তি গত ১৯ আগস্ট স্বাস্থ্য অধিদপ্তর এর ওয়েবসাইটে প্রকাশ হয়।

এবার ভর্তির আবেদনে এসএসসি ও এইচএসসিতে মোট জিপিএ-৯ নির্ধারণ করা হয়। ৩১ আগস্ট ২০১৮ তারিখ দুপুর ১২টা থেকে ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮ তারিখ রাত ১১:৫৯ পর্যন্ত অনলাইনে আবেদন প্রক্রিয়া চলে। এবার আবেদন ফি এক হাজার টাকা নির্ধারণ করা হয় যা শুধুমাত্র টেলিটক প্রিপেইড সিম এর মাধ্যমে জমা দিতে হয়েছিলো।

চলতি বছর ভর্তি পরীক্ষার জন্য আবেদনকারীর মোট সংখ্যা ছিল ৬৫ হাজার ৯১৯ জন। তবে ০৫ অক্টোবর অনুষ্ঠিত ভর্তি পরীক্ষায় মোট অংশগ্রহণকারীর সংখ্যা ছিল ৬৩ হাজার ২৬ জন।

পোষ্টটি লিখেছেন: আল মামুন মুন্না

আল মামুন মুন্না এই ব্লগে 592 টি পোষ্ট লিখেছেন .

আল মামুন মুন্না, বাংলাদেশের প্রথম শিক্ষা বিষয়ক বাংলা কমিউনিটি ব্লগ সাইট "লেখাপড়া বিডি"র প্রতিষ্ঠাতা ও পরিচালক হিসেবে নিয়োজিত আছেন। সম্প্রতি জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীন যশোর সরকারী এম. এম. কলেজ থেকে ফিন্যান্স এন্ড ব্যাংকিং বিষয় নিয়ে বি.বি.এ অনার্স সম্পন্ন করে আজম খান সরকারী কমার্স কলেজে এমবিএ করছেন।

One comment

  1. লজ্জাকর ব্যাপার প্রশ্নফাস এখন অহরহ হচ্ছে। এখন তো আর ডাক্তার বের হবে না, বের হবে কবিরাজ, কসাই।।। এখন রোগী তো ডাক্তারকে দেখে ভয় পাবে।।। এসব ডাক্তার দিয়ে প্রথমে নুরুলের অপারেশন করতে হবে,,,,না কি বলেন ভায়েরা।।।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *