নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (নোবিপ্রবি) ২০১৭-১৮ শিক্ষাবর্ষে ভর্তি আবেদন ১ সেপ্টেম্বর ২০১৭ থেকে শুরু হবে।

  1. :A ইউনিট: কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড টেলিকমিউনিকেশন ইঞ্জিনিয়ারিং, এপ্লায়েড কেমিস্ট্রি এন্ড কেমিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং, এপ্লায়েড ম্যাথমেটিক্স, ইনফরমেশন এন্ড কমিউনিকেশন ইঞ্জিনিয়ারিং, ইলেকট্রিক্যাল এন্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং, স্ট্যাটিস্টিক্স, সফ্টওয়্যার ইঞ্জিনিয়ারিং।B ইউনিট: ফিশারিজ এন্ড মেরিন সায়েন্স, ফার্মেসী, মাইক্রোবায়োলজী, ফুড টেকনোলজি এন্ড নিউট্রিশন সায়েন্স, এনভায়রনমেন্টাল সায়েন্স এন্ড ডিজাস্টার ম্যানেজমেন্ট, বায়োটেকনোলজি এন্ড জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিং, এগ্রিকালচার, ওশানোগ্রাফি।D ইউনিট: বিজনেস এডমিনিস্ট্রেশন, ইকোনোমিক্স, সমাজবিজ্ঞান, ম্যানেজমেন্ট ইনফরমেশন সিস্টেমস, টুরিজ্যম এন্ড হসপিটালিটি ম্যানেজমেন্ট, ব্যাচেলর অব এডুকেশন (অনার্স) ২. ভর্তি পরীক্ষার জন্য যোগ্যতা: B ইউনিটের জন্য: মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড/মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ড/কারিগরি শিক্ষা বোর্ড থেকে বিজ্ঞান বিভাগে SSC বা সমমান এবং ২০১৬ অথবা ২০১৭ সালে অনুষ্ঠিত HSC বা সমমান পরীক্ষায় বিজ্ঞান বিভাগে উত্তীর্ণ ছাত্রছাত্রীরা ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণের আবেদন করতে পারবে। আবেদন করার জন্য SSC বা সমমান পরীক্ষায় কমপক্ষে GPA ৩.০ এবং HSC বা সমমান পরীক্ষায় কমপক্ষে GPA ৩.০ সহ সর্বমোট GPA ৬.৫ থাকতে হবে। SSC/HSC/সমমানের পরীক্ষায় কোনো বিষয়ে C গ্রেডের কম পেলে আবেদনপত্র গ্রহণযোগ্য হবে না (তবে চতুর্থ বিষয়ে যে কোনো গ্রেড গ্রহণযোগ্য)। GCE “O” লেভেল পরীক্ষায় পদার্থবিজ্ঞান, রসায়ন, গণিত ও জীববিজ্ঞানসহ পাঁচটি বিষয়ে এবং A লেভেল পরীক্ষায় পদার্থবিজ্ঞান, রসায়ন, গণিত ও জীববিজ্ঞান এর মধ্যে যে কোনো দুইটি বিষয়ে উত্তীর্ণ হতে হবে। তবে O লেভেল এবং A লেভেলের কোনো বিষয়ে C গ্রেড এর নিচে থাকলে আবেদনপত্র গ্রহণযোগ্য হবে না। D ইউনিটের জন্য:  মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড/মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ড/কারিগরি শিক্ষা বোর্ড থেকে বিজ্ঞান/ব্যবসায় শিক্ষা/মানবিক বিভাগে SSC বা সমমান এবং ২০১৬ অথবা ২০১৭ সালে অনুষ্ঠিত HSC বা সমমান পরীক্ষায় বিজ্ঞান/ব্যবসায় শিক্ষা/মানবিক বিভাগে উত্তীর্ণ ছাত্রছাত্রীরা ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণের আবেদন করতে পারবে। আবেদন করার জন্য মানবিক ও ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগের ছাত্রছাত্রীদের SSC বা সমমান পরীক্ষায় কমপক্ষে GPA ৩.০ এবং HSC বা সমমান পরীক্ষায় কমপক্ষে GPA ৩.০ সহ সর্বমোট GPA ৬.০ থাকতে হবে। বিজ্ঞান বিভাগের ছাত্রছাত্রীদেরকে SSC বা সমমান পরীক্ষায় কমপক্ষে GPA ৩.০ এবং HSC বা সমমান পরীক্ষায় কমপক্ষে GPA ৩.০ সহ সর্বমোট GPA ৬.০ থাকতে হবে। SSC/HSC/সমমানের পরীক্ষায় কোনো বিষয়ে C গ্রেডের কম পেলে আবেদনপত্র গ্রহণযোগ্য হবে না (তবে চতুর্থ বিষয়ে যে কোনো গ্রেড গ্রহণযোগ্য)। GCE “O” লেভেল এবং A লেভেল পরীক্ষায় ছাত্রছাত্রীদের ইংরেজিতে কমপক্ষে B গ্রেড থাকতে হবে, তবে কোনো বিষয়ে C গ্রেড এর নিচে থাকলে আবেদনপত্র গ্রহণযোগ্য হবে না।৩.   আবেদনের নিয়মাবলি (মোবাইল ফোনের মাধ্যমে ভর্তির আবেদন): ভর্তি পরীক্ষায় আবেদনের জন্য একটি প্রি-পেইড টেলিটক মোবাইল ফোন থেকে ১৬২২২ নম্বরে SMS করতে হবে। আবেদনকারীর টেলিটক প্রি-পেইড মোবাইলে পর্যাপ্ত পরিমাণ টাকা থাকলে তা থেকে ভর্তি পরীক্ষার নির্দিষ্ট ফি কেটে নিয়ে একটি SMS এর মাধ্যমে সাথে সাথেই একটি USER ID ও একটি PASSWORD জানিয়ে দেয়া হবে। এই USER ID ও PASSWORD স্বযতেœ সংরক্ষণ করতে হবে। একবার SMS করে আবেদন করলে তা আর প্রত্যাহার করা যাবে না।প্রদত্ত উদাহরণটি কুমিল্লা বোর্ডের। এখানে ১২৩৪৫৬ এর জায়গায় আবেদনকারীর নিজের যথাক্রমে HSC এবং SSC পরীক্ষার রোল নম্বর দিতে হবে। কেউ ২০১৬ সালে HSC পাশ করে থাকলে ২০১৭ এর জায়গায় ২০১৬ লিখতে হবে। এক্ষেত্রে A ইউনিটের কি-ওয়ার্ড A; B ইউনিটের কি-ওয়ার্ড B; C ইউনিটের কি-ওয়ার্ড  C এবং D ইউনিটের কি-ওয়ার্ড D। অর্থাৎ B গ্রুপে আবেদনের জন্য A এর জায়গায় B লিখতে হবে, C গ্রুপে আবেদনের জন্য A এর জায়গায় C এবং D গ্রুপে আবেদনের জন্য A এর জায়গায় D লিখতে হবে। কোনো শিক্ষার্থী ইংরেজিতে উত্তর প্রদান করতে চাইলে ইংরেজি প্রশ্নপত্রের জন্য BEN এর স্থলে ENG লিখতে হবে। অন্যান্য বোর্ডের জন্য কুমিল্লা (COM) এর জায়গায় যথাক্রমে সিলেট (SYL), বরিশাল (BAR), চট্টগ্রাম (CHI), ঢাকা (DHA), দিনাজপুর (DIN), যশোর (JES), রাজশাহী (RAJ), মাদরাসা (MAD), কারিগরি শিক্ষা বোর্ড (TEC) লিখতে হবে।        উদাহরণ: NSTU<space>YES<space>654321<space>01XXXXXXXXX। এখানে ৬৫৪৩২১ এর জায়গায় আবেদনকারীর নিজ নিজ PIN টি বসাতে হবে। উল্লেখ্য যে, সম্মতি জানিয়ে SMS পাঠালেই কেবল আবেদনকারীর মোবাইল ফোন থেকে ভর্তি পরীক্ষার ফি কেটে নেওয়া হবে, অন্যথায় কোন ফি কাটা হবে না।৩.৩) O/A LEVEL এর ক্ষেত্রে আবেদনকারীকে উপরের নিয়ম অনুযায়ী ১৬২২২ নম্বরে SMS করতে হবে। এক্ষেত্রে শিক্ষাবোর্ডের নামের জায়গায় এঈঊ লিখতে হবে। উদাহরণ: NSTU<space>GCE<space>123456<space>2017<space>A<space>ENG| এখানে ১২৩৪৫৬ এর জায়গায় আবেদনকারীর A Level এর নিজ নিজ নম্বরটি বসাতে হবে। কেউ ২০১৬ সালে A-লেভেল পাশ করে থাকলে ২০১৭ এর জায়গায় ২০১৬ লিখতে হবে। একইভাবে B গ্রুপে আবেদনের জন্য A এর জায়গায় B লিখতে হবে, C গ্রুপে আবেদনের জন্য A এর জায়গায় C লিখতে হবে এবং D গ্রুপে আবেদনের জন্য A এর জায়গায় D লিখতে হবে। কোনো শিক্ষার্থী বাংলায় উত্তর প্রদান করতে চাইলে বাংলা প্রশ্নপত্রের জন্য ENG এর স্থলে BEN লিখতে হবে।NSTU<space>COM<space>123456<space>2017<space>COM<space>123456<space>2015<space>A<space>BEN<space>QFF|৩.৫)   প্রবেশপত্র ডাউনলোড: আবেদনকারীকে প্রবেশপত্র (ADMIT CARD) ডাউনলোড করার জন্য SMS এর মাধ্যমে জানানো হবে। প্রবেশপত্রের জন্য প্রথমে এক কপি পাসপোর্ট সাইজের রঙিন ছবি (৩০০X৩০০ পিক্সেল, সর্বোচ্চ ১০০ শন) ও আবেদনকারীর স্বাক্ষর (৩০০X ৮০ পিক্সেল, সর্বোচ্চ ৬০ শন) স্ক্যান করে ২টি আলাদা ফাইল তৈরি করে রাখতে হবে। প্রবেশপত্র (ADMIT CARD) ডাউনলোড করতে http://nstu.teletalk.com.bd ওয়েবসাইটে গিয়ে SMS এর মাধ্যমে আবেদন করার সময় প্রাপ্ত সংশ্লিষ্ট ইউনিটের  USER ID এবং PASSWORD ইনপুট দিতে হবে। ইনপুট সঠিক হলে ছবি ও স্বাক্ষর আপলোড করার অপশন পাওয়া যাবে। সফলভাবে উক্ত প্রক্রিয়া সম্পন্ন হলে প্রবেশপত্র (ADMIT CARD) প্রিন্ট করার অপশন পাওয়া যাবে। তখন আবেদনকৃত ইউনিটের জন্য ০২ (দুই) কপি প্রবেশপত্র (ADMIT CARD) প্রিন্ট নিতে হবে। উক্ত ০২ (দুই) কপি প্রবেশপত্র প্রার্থীকে অবশ্যই পরীক্ষার হলে নিয়ে আসতে হবে। প্রবেশপত্রের ০১ (এক) কপি প্রার্থী নিজের কাছে রাখবে এবং অন্য কপি পরীক্ষার হলে সংশ্লিষ্ট পরিদর্শকের নিকট জমা দেবে। প্রবেশপত্রে শিক্ষার্থীর নাম, রোল নম্বর, ইউনিটের  চয়েস, ছবি ও স্বাক্ষর থাকবে। প্রতিটি ইউনিটের  জন্য একই নিয়মে আলাদাভাবে প্রবেশপত্র (ADMIT CARD) ডাউনলোড করতে হবে। ছবি ও স্বাক্ষর আপলোড প্রক্রিয়া একবার সম্পন্ন করার পর আর পরিবর্তন করা যাবে না। ক) একটি টেলিটক মোবাইল ফোনের মাধ্যমে একাধিক আবেদন করা যাবে। তবে আবেদনের দ্বিতীয় ধাপে সম্মতি জানানোর সময় যোগাযোগের জন্যে আবেদনকারীর যে কোনো অপারেটরের একটি মোবাইল ফোন নম্বর দিতে হবে। গ) A, B, C এবং D ইউনিটের জন্য আলাদা আলাদাভাবে SMS করে আবেদন করতে হবে।ঙ) বিজ্ঞান শাখা থেকে HSC/সমমান পরীক্ষায় উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীরা সকল ইউনিটে (A, B, C এবং D) আবেদন করতে পারবে। অন্যরা শুধু C ও D ইউনিটে আবেদন করতে পারবে। ছ) O/A LEVEL থেকে পাশকৃত ছাত্রছাত্রীদের ভর্তি পরীক্ষার দিন GCE “O” ও “A” Level এর গ্রেড শিটের সত্যায়িত ফটোকপি অবশ্যই সঙ্গে আনতে হবে।ঝ) পরীক্ষার হলে কোনো ইলেকট্রনিক ডিভাইস যেমন: ট্যাব, মোবাইল ফোন, ডিজিটাল ডাইরি, ক্যালকুলেটর, প্রোগ্রামেবল ঘড়ি ইত্যাদি আনা সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ।   A ইউনিট:     ০৩ নভেম্বর ২০১৭, সকাল ১০.৩০ টা থেকে দুপুর ১২.০০ টা পর্যন্ত।           C ইউনিট:     ০৪ নভেম্বর ২০১৭, সকাল ১০.৩০ টা থেকে সকাল ১১.৩০ টা পর্যন্ত।৫.  ভর্তি পরীক্ষা: (পরীক্ষা MCQ পদ্ধতিতে অনুষ্ঠিত হবে)।B ইউনিটের জন্য: ‘বাংলা ও ইংরেজি’, পদার্থবিজ্ঞান, রসায়ন, জীববিজ্ঞান এবং গণিত বিষয়ের উপর প্রত্যেকটি থেকে ২৫ করে মোট ১২৫টি প্রশ্ন থাকবে। পদার্থবিজ্ঞান, রসায়ন ও জীববিজ্ঞান প্রত্যেক পরীক্ষার্থীর জন্য বাধ্যতামূলক। ‘বাংলা ও ইংরেজি’ এবং গণিত হতে যে কোনো একটির উত্তর দিতে হবে। পরীক্ষার মোট নম্বর হবে ১০০। পরীক্ষায় পাশ নম্বর ৪০।     D ইউনিটের  জন্য: বিজনেস এডমিনিস্ট্রেশন এবং ইকোনোমিক্স বিভাগে ভর্তি পরীক্ষায় বাংলা ২৫, ইংরেজি ২৫, সাধারণ জ্ঞান (বাংলাদেশ ও আন্তর্জাতিক প্রসঙ্গ) ২৫ সবার জন্য বাধ্যতামূলক। মানবিক বিভাগে থেকে পাশকৃত শিক্ষার্থীদের জন্য সাধারণ গণিত (মাধ্যমিক পর্যায়ের) ২৫, ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগ থেকে পাশকৃত শিক্ষার্থীদের জন্য ব্যবসায় নীতি ও প্রয়োগ এবং হিসাব বিজ্ঞান ২৫, বিজ্ঞান বিভাগ থেকে পাশকৃত শিক্ষার্থীদের জন্য সাধারণ বিজ্ঞান ২৫। পরীক্ষার মোট নম্বর ১০০। পরীক্ষায় পাশ নম্বর ৪০। ৬.২. ভর্তি পরীক্ষার MCQ পদ্ধতির উত্তরপত্র বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃক সরবরাহ করা হবে। উত্তরপত্রে সঠিক উত্তরের বৃত্তটি কালো কালির বল পয়েন্ট কলম দিয়ে ভরাট করতে হবে। উত্তরদান পদ্ধতি প্রশ্নপত্রের ‘নির্দেশাবলি’ অংশে বর্ণিত থাকবে। প্রত্যেক প্রার্থীকে কেবল একটি উত্তরপত্র সরবরাহ করা হবে। ৭.   ভর্তি ফি: ভর্তিকালীন একজন ছাত্র/ছাত্রীকে প্রথম টার্মের জন্য আনুমানিক ২০,০০০ (বিশ হাজার) টাকা ভর্তি ফি প্রদান করতে হবে।৮.১. মেধা তালিকা তৈরি করা হবে ২০০ নম্বরের ভিত্তিতে। ১. মাধ্যমিক/সমমানের পরীক্ষায় প্রাপ্ত বা হিসাবকৃত, ৪র্থ বিষয়সহ, GPA এর ৮ গুণ, ২. উচ্চ মাধ্যমিক/সমমানের পরীক্ষায় প্রাপ্ত বা হিসাবকৃত, ৪র্থ বিষয়সহ, GPA এর ১২ গুণ, এবং ৩. ভর্তি পরীক্ষায় প্রাপ্ত নম্বর।  ৮.৩. ভর্তি পরীক্ষায় কৃতকার্য ছাত্রছাত্রীদের মধ্য থেকে প্রয়োজনমতো মেধানুসারে বিষয় নির্বাচনের জন্য ডাকা হবে। আসন শূন্য থাকা সাপেক্ষে অপেক্ষমাণ তালিকা থেকে ডাকা হবে। বিশেষ দ্রষ্টব্য:২. ভর্তি সংক্রান্ত নিয়মনীতির যে কোনো ধারা ও উপধারা পরিবর্তন, পরিবর্ধন, সংশোধন, সংযোজন এবং পুনঃসংযোজনের অধিকার ভর্তি কমিটি সংরক্ষণ করে।৪. মেধাবী ও আর্থিকভাবে অস্বচ্ছল ছাত্রছাত্রীদের জন্য বৃত্তির ব্যবস্থা আছে।৬. যাবতীয় যোগাযোগ অফিস চলাকালীন সময়ে করার জন্য অনুরোধ করা হলো (সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৫ টা) ।          নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়
  2.           রেজিস্ট্রার
  3. ৫. বিশেষ প্রয়োজনে ভর্তি সংক্রান্ত অন্যান্য বিষয়ে মোবাইল নম্বর ০১৭৬৫৫৯২৬৫৪ কিংবা [email protected] এ যোগাযোগ করা যাবে।
  4. ৩. ভর্তি সংক্রান্ত বিস্তারিত তথ্য, ভর্তি পরীক্ষার সিট প্ল্যান, পরীক্ষার ফলাফল ও অন্যান্য তথ্যাবলি SMS, বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইট (www.nstu.edu.bd) এবং জাতীয় দৈনিক পত্রিকার মাধ্যমে জানানো হবে।
  5. ১. কোনো পরীক্ষার্থীর বিরুদ্ধে পরীক্ষায় অসদোপায় অবলম্বনের অভিযোগ থাকলে তার পরীক্ষা বাতিল করা হবে।
  6. ৯.  নির্বাচিত প্রার্থীকে ভর্তির দিন ভর্তি প্রক্রিয়াকরণ কমিটির আহ্বায়কের নিকট মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক বা সমমানের পরীক্ষার মূল গ্রেডশিট জমা দিতে হবে। নির্দেশিত সময়ের মধ্যে মূল গ্রেডশিট জমা দিতে ব্যর্থ হলে প্রার্থীর নির্বাচন স্বয়ংক্রিয়ভাবে বাতিল বলে গণ্য হবে। শূন্য আসনে মেধাক্রমের পরবর্তী প্রার্থীকে বিষয়ের শর্ত পূরণ সাপেক্ষে ভর্তির জন্য নির্বাচন করা হবে। বিষয় নির্বাচনের পর ভর্তির জন্য নির্বাচিত প্রার্থীদের নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে ভর্তি ফি অগ্রণী ব্যাংক লিঃ, নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (নোবিপ্রবি) শাখায় জমা দিয়ে ভর্তি হতে হবে।
  7. ৮.২. একাধিক প্রার্থীর মেধাস্কোর সমান হলে পর্যায়ক্রমে ভর্তি পরীক্ষার নম্বর, HSC ও SSC গ্রেড প্রাধান্য পাবে।
  8. ৮.   মেধাস্কোর ও মেধাক্রম:
  9. ৬.৩. উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ের পাঠ্যক্রমের ভিত্তিতে প্রশ্নপত্র প্রণয়ন করা হবে (ব্যতিক্রম: D ইউনিটের মানবিক বিভাগের শিক্ষার্থীদের জন্য মাধ্যমিক পর্যায়ের সাধারণ গণিত)।
  10. ৬.১. A, B ও D ইউনিটের পরীক্ষায় প্রত্যেক বিষয়ে ন্যূনতম পাশ নম্বর ০৮।
  11. C ইউনিটের জন্য: বাংলা, ইংরেজি এবং সাধারণ জ্ঞান (বাংলাদেশ ও আন্তর্জাতিক প্রসঙ্গ) বিষয়ে পরীক্ষা হবে। মোট নম্বর হবে ১০০। ইংরেজি বিষয়ে ৫০, বাংলা বিষয়ে ২৫ এবং সাধারণ জ্ঞান (বাংলাদেশ ও আন্তর্জাতিক প্রসঙ্গ) বিষয়ে ২৫ নম্বর থাকবে। পরীক্ষায় পাশ নম্বর ৪০। তবে ইংরেজি বিভাগে ভর্তির জন্য ইংরেজি বিষয়ে ন্যূনতম ২৫ নম্বর পেতে হবে। বাংলা ও সাধারণ জ্ঞান বিষয়ের প্রত্যেকটিতে ন্যূনতম পাশ নম্বর ০৬। বাংলাদেশ এন্ড লিবারেশন ওয়ার স্টাডিজ বিভাগে ভর্তির জন্য বাংলা, সাধারণ জ্ঞান (বাংলাদেশ ও আন্তর্জাতিক প্রসঙ্গ) এবং ইংরেজি বিষয়ের প্রত্যেকটিতে ন্যূনতম পাশ নম্বর ১০।
  12. ৬.   A ইউনিটের জন্য: ‘বাংলা ও ইংরেজি’, পদার্থবিজ্ঞান, রসায়ন, গণিত এবং জীববিজ্ঞান বিষয়ের উপর প্রত্যেকটি থেকে ২৫ করে মোট ১২৫টি প্রশ্ন থাকবে। পদার্থবিজ্ঞান, রসায়ন ও গণিত প্রত্যেক পরীক্ষার্থীর জন্য বাধ্যতামূলক। ‘বাংলা ও ইংরেজি’ এবং জীববিজ্ঞান হতে যে কোনো একটির উত্তর দিতে হবে। পরীক্ষার মোট নম্বর হবে ১০০। পরীক্ষায় পাশ নম্বর ৪০।
  13.            D ইউনিট:     ০৪ নভেম্বর ২০১৭, বিকেল ৩.০০ টা থেকে বিকেল ৪.০০ টা পর্যন্ত।
  14.            B ইউনিট:     ০৩ নভেম্বর ২০১৭, বিকেল ৩.০০ টা থেকে বিকেল ৪.৩০ টা পর্যন্ত।
  15. ৪.  ভর্তি পরীক্ষার তারিখ ও সময়:
  16.       জ) কোটায় ভর্তি: কোটায় ভর্তির ক্ষেত্রে (মুক্তিযোদ্ধা, উপজাতি ও শারীরিক প্রতিবন্ধী) সরকারি বিধান অনুসরণ করা হবে। কোটায় ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীদের ভর্তির আবেদনের সময় অবশ্যই OMR শিটের নির্ধারিত ঘর পূরণ করতে হবে। পরবর্তীতে কোনো আবেদন গ্রহণযোগ্য হবে না।
  17. চ) D ইউনিটের বিজ্ঞান, মানবিক এবং ব্যবসায় শিক্ষার জন্য আলাদা মেধা তালিকা তৈরি করা হবে।
  18. ঘ) কোনো গ্রুপে ভুলবশত: SMS করে আবেদন করে ফেললেও তা প্রত্যাহার করা যাবে না।
  19. খ) আবেদনের সময়: ০১ সেপ্টেম্বর ২০১৭ থেকে ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৭, রাত ১২.০০ টা পর্যন্ত (এই সময়সীমার মধ্যে ছুটির দিনেও আবেদন করা যাবে)।
  20.      বিশেষভাবে লক্ষ্যণীয়:
  21. USER ID এবং PASSWORD হারিয়ে গেলে NSTU<স্পেস>ঐঊখচ<স্পেস>HSC শিক্ষাবোর্ডের নামের প্রথম তিনটি অক্ষর<স্পেস>HSC পরীক্ষার রোল নম্বর <স্পেস>HSC পাসের সাল লিখে ১৬২২২ নম্বরে SMS পাঠাতে হবে।
  22. একইভাবে B গ্রুপে আবেদনের জন্য A এর জায়গায় B লিখতে হবে, C গ্রুপে আবেদনের জন্য A এর জায়গায় C লিখতে হবে এবং D গ্রুপে আবেদনের জন্য A এর জায়গায় D লিখতে হবে। কোনো শিক্ষার্থী ইংরেজি ভাষায় উত্তর প্রদান করতে চাইলে BEN এর স্থলে ENG লিখতে হবে।
  23. ৩.৪) কোটায় ভর্তি সম্পর্কিত তথ্য: নিম্নোক্ত কোটায় ভর্তিচ্ছু ছাত্রছাত্রীদের আবেদন করতে উপরের নিয়ম অনুযায়ী ১৬২২২ নম্বরে SMS করতে হবে। সেক্ষেত্রে কোটার কি-ওয়ার্ড হবে, মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কোটা: QFF, উপজাতি কোটা: QT, শারীরিক প্রতিবন্ধী কোটা: QPD, নোবিপ্রবি পোষ্য কোটা (শিক্ষক, কর্মকর্তা, কর্মচারীদের ছেলে/মেয়ে/স্বামী/স্ত্রী): QW, উদাহরণ: মুক্তিযোদ্ধা কোটার জন্য
  24.       প্রতি ইউনিটের পরীক্ষা ফি ৭০০ (সাতশত) টাকা।
  25. ৩.২) উপরের SMS টি পাঠানোর পর সকল তথ্য সঠিক হলে ফিরতি SMS এ আবেদনকারীর নাম, কাক্সিক্ষত ইউনিট, ভর্তির ফি ও একটি PIN জানিয়ে সম্মতি চাওয়া হবে। তখন ১৬২২২ নম্বরে আরেকটি SMS পাঠিয়ে সম্মতি জানাতে হবে। সম্মতি জানানোর জন্য প্রথম NSTU, তারপর স্পেস দিয়ে YES, স্পেস দিয়ে PIN, স্পেস দিয়ে আবেদনকারীর যোগাযোগের জন্য যে কোনো একটি মোবাইল নম্বর লিখে ১৬২২২ নম্বরে SMS করতে হবে।
  26. ৩.১) একটি প্রি-পেইড টেলিটক মোবাইল ফোনের মাধ্যমে মেসেজ অপশনে গিয়ে NSTU লিখে, স্পেস দিয়ে HSC শিক্ষাবোর্ডের নামের প্রথম তিনটি অক্ষর, স্পেস দিয়ে HSC পরীক্ষার রোল নম্বর, স্পেস দিয়ে HSC পাশের সাল, স্পেস দিয়ে SSC শিক্ষাবোর্ডের নামের প্রথম তিনটি অক্ষর, স্পেস দিয়ে SSC পরীক্ষার রোল নম্বর, স্পেস দিয়ে SSC পাশের সাল, স্পেস দিয়ে কাঙ্খিত ইউনিটের কি-ওয়ার্ড, স্পেস দিয়ে মিডিয়াম অব ইন্সট্রাকশন লিখে ১৬২২২ নম্বরে SMS করতে হবে। উদাহরণ: NSTU<space>COM<space>123456<space>2017<space>COM<space>123456<space>2015<space>A><space>BEN
  27. ২.২) বিদেশি ছাত্রছাত্রীরা সরাসরি আবেদন করতে পারবে; তবে আবেদনের সাথে প্রদত্ত সার্টিফিকেটগুলো বিশ্ববিদ্যালয়ের Equivalence Committee’র অনুমোদন সাপেক্ষে তারা ভর্তির যোগ্য বলে গণ্য হবে। এক্ষেত্রে বিশ্ববিদ্যালয় সরকারি অনুমোদন লাভের যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।
  28. C ইউনিটের জন্য:  মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড/মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ড/কারিগরি শিক্ষা বোর্ড থেকে বিজ্ঞান/ব্যবসায় শিক্ষা/মানবিক বিভাগে SSC বা সমমান এবং ২০১৬ অথবা ২০১৭ সালে অনুষ্ঠিত HSC বা সমমান পরীক্ষায় বিজ্ঞান/ব্যবসায় শিক্ষা/মানবিক বিভাগে উত্তীর্ণ ছাত্রছাত্রীরা ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণের আবেদন করতে পারবে। আবেদন করার জন্য মানবিক ও ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগের ছাত্রছাত্রীদের SSC বা সমমান পরীক্ষায় কমপক্ষে GPA ৩.০ এবং HSC বা সমমান পরীক্ষায় কমপক্ষে GPA ৩.০ সহ সর্বমোট GPA ৬.০ থাকতে হবে। বিজ্ঞান বিভাগের ছাত্রছাত্রীদেরকে SSC বা সমমান পরীক্ষায় কমপক্ষে GPA ৩.০ এবং HSC বা সমমান পরীক্ষায় কমপক্ষে GPA ৩.০ সহ সর্বমোট GPA ৬.০ থাকতে হবে। SSC/HSC/সমমানের পরীক্ষায় কোনো বিষয়ে C গ্রেডের কম পেলে আবেদনপত্র গ্রহণযোগ্য হবে না (তবে চতুর্থ বিষয়ে যে কোনো গ্রেড গ্রহণযোগ্য)। GCE “O” লেভেল এবং A লেভেল পরীক্ষায় ছাত্রছাত্রীদের ইংরেজিতে কমপক্ষে B গ্রেড থাকতে হবে, তবে কোনো বিষয়ে C গ্রেড এর নিচে থাকলে আবেদনপত্র গ্রহণযোগ্য হবে না।
  29. ২.১) A ইউনিটের জন্য: মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড/মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ড/কারিগরি শিক্ষা বোর্ড থেকে বিজ্ঞান বিভাগে SSC বা সমমান এবং ২০১৬ অথবা ২০১৭ সালে অনুষ্ঠিত HSC বা সমমান পরীক্ষায় বিজ্ঞান বিভাগে উত্তীর্ণ ছাত্রছাত্রীরা ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণের আবেদন করতে পারবে। আবেদন করার জন্য SSC বা সমমান পরীক্ষায় GPA ৩.০ এবং HSC বা সমমান পরীক্ষায় কমপক্ষে GPA ৩.০ সহ সর্বমোট GPA ৬.৫ থাকতে হবে। SSC/HSC/সমমানের পরীক্ষায় কোনো বিষয়ে C গ্রেডের কম পেলে আবেদনপত্র গ্রহণযোগ্য হবে না (তবে চতুর্থ বিষয়ে যে কোনো গ্রেড গ্রহণযোগ্য)। GCE “O” লেভেল পরীক্ষায় পদার্থবিজ্ঞান, রসায়ন, গণিত ও জীববিজ্ঞানসহ পাঁচটি বিষয়ে এবং A লেভেল পরীক্ষায় পদার্থবিজ্ঞান, রসায়ন, গণিত ও জীববিজ্ঞান এর মধ্যে যে কোনো দুইটি বিষয়ে উত্তীর্ণ হতে হবে। তবে O লেভেল এবং অ লেভেলের কোনো বিষয়ে C গ্রেড এর নিচে থাকলে আবেদনপত্র গ্রহণযোগ্য হবে না।
  30. C ইউনিট: ইংরেজি, বাংলাদেশ এন্ড লিবারেশন ওয়ার স্টাডিজ।

পোষ্টটি লিখেছেন: মোহাম্মদ মোহন

মোহাম্মদ মোহন এই ব্লগে 12 টি পোষ্ট লিখেছেন .

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।