প্রাথমিক ও এবতেদায়ী শিক্ষা সমাপনী বৃত্তির ফলাফল ২০১৫ প্রকাশ দেখুন এখানে

২০১৫ সালের প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী বৃত্তি ফলাফল আজ ১৯ এপ্রিল দুপুর ৩ টায় প্রকাশ করা হয়েছে। প্রাথমিক ও গণশিক্ষামন্ত্রী মোস্তাফিজুর রহমান সচিবালয়ে সংবাদ সম্মেলনে আনুষ্ঠানিকভাবে বৃত্তির ফল ঘোষণা করেন। এবার বৃত্তিপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীর সংখ্যা বৃদ্ধির পাশাপাশি বৃত্তির অর্থের পরিমাণও বেড়েছে। বৃত্তির সংখ্যা ও বর্ধিত অর্থ বিতরণে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় প্রাথমিকের বৃত্তি নীতিমালাও সংশোধন করা হয়েছে বলেও জানা গেছে। চলুন জেনে নেওয়া যাক এই সংক্রান্ত বিস্তারিত তথ্য…

প্রাথমিক বৃত্তি দুটি বিভাগে প্রদান করা হয়। সেগুলো হলোঃ

  • ট্যালেন্টপুল বৃত্তি
  • সাধারন বৃত্তি

বৃত্তির অর্থের পরিমাণঃ

  • ট্যালেন্টপুল বৃত্তি প্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের ক্ষেত্রেঃ প্রতিমাসে ৩০০ টাকা করে প্রতি বছর ৩ হাজার ৬০০ টাকা প্রদান করা হবে।
  • সাধারণ বৃত্তি প্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের ক্ষেত্রেঃ প্রতিমাসে ২২৫ টাকা করে প্রতি বছর দুই হাজার ৭০০ টাকা।

বৃত্তির মেয়াদঃ

  • ট্যালেন্টপুল ও সাধারণ বৃত্তি উভয় ক্ষেত্রে বৃত্তির মেয়াদ ৩ বছর (ষষ্ঠ থেকে অষ্টম শ্রেণি পর্যন্ত)।

এতোদিন ৫৫ হাজার শিক্ষার্থীকে প্রাথমিকে বৃত্তি দেওয়া হলেও এবার ৮২ হাজার ৫০০ জনকে এ বৃত্তি দেওয়া হবে। অপরদিকে এতোদিন ২২ হাজার ট্যালেন্টপুলে (মেধাবৃত্তি) এবং ৩৩ হাজার সাধারণ বৃত্তি পেলেও এবার ৩৩ হাজার জনকে ট্যালেন্টপুল এবং ৪৯ হাজার ৫০০ জনকে সাধারণ বৃত্তি দেওয়া হবে।

বৃত্তি প্রাপ্তদের সংখ্যার পাশাপাশি বৃত্তির অর্থের পরিমাণও এবার থেকে বেড়েছে। আগে ট্যালেন্টপুলে বৃত্তি প্রাপ্তদের মাসে ২০০ টাকা করে দেওয়া হলেও এবার থেকে ৩০০ টাকা এবং  সাধারণ বৃত্তি প্রাপ্তদের মাসে দেড়শ’ টাকার পরিবর্তে ২২৫ টাকা করে দেওয়া হবে।

উক্ত ফলাফল প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের ওয়েবসাইটের পাশাপাশি আপনাদের সুবিধার্থে লেখাপড়া বিডি এর এই পোস্ট থেকেও দেখা যাচ্ছে।

প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী বৃত্তি ফলাফল ২০১৫ (সকল জেলা) ডাউনলোড করুন।

প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী বৃত্তির ফলাফল ২০১৫ দেখুন এখানেঃ

অফিসিয়াল সাইট থেকে ফলাফল দেখতে এখানে ক্লিক করুন

 

মোবাইলে এসএমএসের মাধ্যমে ফলাফল জানার পদ্ধতিঃ

সাধারণ শিক্ষার্থীদের জন্য:

DPE<space>Thana/Upazila Code No.<space>Roll Number<space>Year and Send to 16222

এবতেদায়ী শিক্ষার্থীদের জন্য
EBT<space>Thana/Upazila Code Number<space>Roll Number<space>Year and Send to 16222

প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনীতে উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীদের মধ্য থেকে বৃত্তি দেওয়া হয়।

এর আগে পঞ্চম শ্রেণীর শিক্ষার্থীদের আলাদা পরীক্ষা নিয়ে বৃত্তি দেয়া হলেও ২০০৯ সাল থেকে প্রাথমিক সমাপনী পরীক্ষার ফলাফলের ভিত্তিতে বৃত্তি দেয়া হচ্ছে। ২০১৪ সালের প্রাথমিক ও সমমানের সমাপনী পরীক্ষায় ২৬ লাখ ৮৩ হাজার ৭৮১ জন শিক্ষার্থী অংশ নেয়। এর মধ্যে উত্তীর্ণ হয় ২৬ লাখ ২৮ হাজার ৮৩ জন। যার মধ্যে জিপিএ-৫ পায় দুই লাখ ২৪ হাজার ৪১১ জন।

পোষ্টটি লিখেছেন: আল মামুন মুন্না

আল মামুন মুন্না এই ব্লগে 532 টি পোষ্ট লিখেছেন .

আল মামুন মুন্না, বাংলাদেশের প্রথম শিক্ষা বিষয়ক বাংলা কমিউনিটি ব্লগ সাইট "লেখাপড়া বিডি"র একজন সহ-প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা হিসেবে কাজ করছেন। বর্তমানে ফিন্যান্স এন্ড ব্যাংকিং বিষয় নিয়ে বি.বি.এ অনার্স করছেন জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীন যশোর সরকারী এম. এম. কলেজে।


পোস্টটি শেয়ার করে অন্যদেরকেও জানার সুযোগ দিন। ফেইসবুকে শিক্ষা বিষয়ক তথ্য পেতে আমাদের গ্রুপে যোগ দিন অথবা পেইজ এ লাইক দিয়ে রাখুন

One comment

  1. বৃত্তি পাওয়ার জন্যে কি আলাদা করে আবেদন করিতে হবে.

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Time limit is exhausted. Please reload CAPTCHA.